ঢাকা ১১:২৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর ও বিমানবন্দর পুরোদমে চালু

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:০৫:৪৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ মে ২০২৩
  • / ৪৫৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা : ঘূর্ণিঝড় মোখা’র কারণে দুই দিন বন্ধ থাকার পর সোমবার (১৫ মে) সকাল ৬টা থেকে দেশের প্রধান সমুদ্র বন্দর চট্টগ্রাম বন্দর এবং চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের সার্বিক কার্যক্রম পুরোদমে শুরু হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় মোখা’র সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলায় গত ১৩ মে শনিবার সকাল ৬ টা হতে ১৪ মে রবিবার পর্যন্ত চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফ্লাইট ওঠানামা বন্ধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি শনিবার থেকে রবিবার পর্যন্ত চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙর ও জেটিতে পণ্য উঠানামা কার্যক্রমও বন্ধ থাকে।

শনিবার সকালে সকল জাহাজকে বন্দর ত্যাগ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। ঘূর্ণিঝড় মোখার কারণে আবহাওয়া অধিদপ্তরের ৮ নম্বর বিপদ সংকেতের প্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ নিজস্ব এলার্ট-৪ জারী করেছিল এবং বন্দরের সব কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। শুক্রবার রাতে বন্দরের জরুরি সভায় ঘূর্ণিঝড় মোখা’র সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলায় এসব সিন্ধান্ত নেয়া হয়।

চট্টগ্রাম বন্দর জেটিতে নোঙ্গর করা জাহাজগুলোকে সমুদ্রে পাঠিয়ে দেয়া হয়। জাহাজগুলোকে বন্দর জেটি ত্যাগ করে সমুদ্রে চলে যাওয়া এবং লাইটার জাহাজগুলোকে সদরঘাট থেকে কর্ণফুলী শাহ আমানত সেতু এলাকার দিকে নিরাপদ আশ্রয়ে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলায় চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে শনিবার ভোর থেকে ফ্লাইট ওঠানামাও বন্ধ ঘোষণা করা হয়। আজ সকালে বন্দরের বর্হিনোঙর থেকে পণ্যবাহী জাহাজ জেটিতে ভিড়লে পণ্য উঠানামার কাজ শুরু হয়।

এদিকে শারজাহ থেকে বিজি ওয়ান ফাইভ একটি ফ্লাইট আজ সকাল টা ১০ মিনিটে চট্টগ্রাম বিমান বন্দর হয়ে ঢাকা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণ করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর ও বিমানবন্দর পুরোদমে চালু

আপডেট সময় : ১২:০৫:৪৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ মে ২০২৩

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা : ঘূর্ণিঝড় মোখা’র কারণে দুই দিন বন্ধ থাকার পর সোমবার (১৫ মে) সকাল ৬টা থেকে দেশের প্রধান সমুদ্র বন্দর চট্টগ্রাম বন্দর এবং চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের সার্বিক কার্যক্রম পুরোদমে শুরু হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় মোখা’র সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলায় গত ১৩ মে শনিবার সকাল ৬ টা হতে ১৪ মে রবিবার পর্যন্ত চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফ্লাইট ওঠানামা বন্ধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি শনিবার থেকে রবিবার পর্যন্ত চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙর ও জেটিতে পণ্য উঠানামা কার্যক্রমও বন্ধ থাকে।

শনিবার সকালে সকল জাহাজকে বন্দর ত্যাগ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। ঘূর্ণিঝড় মোখার কারণে আবহাওয়া অধিদপ্তরের ৮ নম্বর বিপদ সংকেতের প্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ নিজস্ব এলার্ট-৪ জারী করেছিল এবং বন্দরের সব কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। শুক্রবার রাতে বন্দরের জরুরি সভায় ঘূর্ণিঝড় মোখা’র সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলায় এসব সিন্ধান্ত নেয়া হয়।

চট্টগ্রাম বন্দর জেটিতে নোঙ্গর করা জাহাজগুলোকে সমুদ্রে পাঠিয়ে দেয়া হয়। জাহাজগুলোকে বন্দর জেটি ত্যাগ করে সমুদ্রে চলে যাওয়া এবং লাইটার জাহাজগুলোকে সদরঘাট থেকে কর্ণফুলী শাহ আমানত সেতু এলাকার দিকে নিরাপদ আশ্রয়ে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলায় চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে শনিবার ভোর থেকে ফ্লাইট ওঠানামাও বন্ধ ঘোষণা করা হয়। আজ সকালে বন্দরের বর্হিনোঙর থেকে পণ্যবাহী জাহাজ জেটিতে ভিড়লে পণ্য উঠানামার কাজ শুরু হয়।

এদিকে শারজাহ থেকে বিজি ওয়ান ফাইভ একটি ফ্লাইট আজ সকাল টা ১০ মিনিটে চট্টগ্রাম বিমান বন্দর হয়ে ঢাকা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণ করে।