ঢাকা ০১:২০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

বারইয়ারহাট পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম খোকন গুলিবিদ্ধ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:০২:৪৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৫৪ বার পড়া হয়েছে

মেয়র রেজাউল করিম খোকন

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলার বারইয়ারহাট পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম খোকন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।
আজ শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার মুহুরী সেচ প্রকল্প এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে মেয়র চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর হোসেন মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, মুহুরী প্রজেক্ট এলাকায় বালি উত্তোলনকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে। যারা গুলি করেছেন, বালি উত্তোলন নিয়ে তাদের সঙ্গে মেয়রের আগে থেকেই বিরোধ ছিল বলে ধারণা করছি।

তিনি বলেন, উন্নত চিকিৎসার জন্য মেয়র রেজাউল করিম খোকনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফেনী নদী থেকে বালু উত্তোলন নিয়ে ফাজিলপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মজিবুল হক রিপনের লোকজনের সঙ্গে মেয়র রেজাউল করিম খোকনের লোকজনের বিরোধ ছিল। সেই বিরোধকে কেন্দ্র করেই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

বারইয়ারহাট পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম খোকন গুলিবিদ্ধ

আপডেট সময় : ০৫:০২:৪৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ অক্টোবর ২০২২

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলার বারইয়ারহাট পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম খোকন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।
আজ শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার মুহুরী সেচ প্রকল্প এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে মেয়র চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর হোসেন মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, মুহুরী প্রজেক্ট এলাকায় বালি উত্তোলনকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে। যারা গুলি করেছেন, বালি উত্তোলন নিয়ে তাদের সঙ্গে মেয়রের আগে থেকেই বিরোধ ছিল বলে ধারণা করছি।

তিনি বলেন, উন্নত চিকিৎসার জন্য মেয়র রেজাউল করিম খোকনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফেনী নদী থেকে বালু উত্তোলন নিয়ে ফাজিলপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মজিবুল হক রিপনের লোকজনের সঙ্গে মেয়র রেজাউল করিম খোকনের লোকজনের বিরোধ ছিল। সেই বিরোধকে কেন্দ্র করেই হামলার ঘটনা ঘটেছে।