ঢাকা ১০:২৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

দেশে উচ্চ রক্তচাপের রোগী সাড়ে ৪ কোটির বেশি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৩৬:২৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১১ মার্চ ২০২৩
  • / ৪৫১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : দিন দিন বাড়ছে অসংক্রামক রোগ। শুধু শহর নয়, গ্রামেও বাড়ছে উচ্চরক্তচাপের রোগী। মফস্বলে ১০০ জনের মধ্যে ২৯ জনই ভুগছেন এতে। ৮ উপজেলায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও ডায়াবেটিক সমিতির জরিপে এসেছে এ তথ্য। কায়িক শ্রম কমা ও অতিরিক্ত লবণ খাওয়াতেই এর প্রকোপ বাড়াছে, জানাচ্ছেন গবেষকরা।

গ্রামে উচ্চরক্তচাপ ও ডায়াবেটিস পরিস্থিতি জানতে ২০২২ সালের আগস্ট থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত জরিপ করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও ডায়াবেটিক সমিতি। জরিপ চলে ৮ উপজেলায় ১০ হাজার ২২৩ জনের ওপর।

২০১৮ সালের জরিপে গ্রামে উচ্চরক্তচাপের হার ছিল ১৯ ভাগ। সবশেষ জরিপে তা বেড়ে হয়েছে প্রায় ২৯ ভাগ। অর্থাৎ সাড়ে চার কোটি মানুষের রক্তচাপ স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি। চার বছরেই রোগী বেড়েছে দশ ভাগ। পুরুষের তুলনায় নারীদের মধ্যে উচ্চরক্তচাপের রোগী বেশি।

নগরায়নের প্রভাবে গ্রামের ৬৭ ভাগ মানুষ কায়িক পরিশ্রম করে না। ধূমপান করে ৩০ ভাগ মানুষ। স্বাভা্বিকের চেয়ে ওজন বেশি ৪৬ শতাংশের। গত চার বছরে গ্রামে স্থূলতার হার দ্বিগুণ হয়েছে। এসব কারণে বাড়ছে উচ্চরক্তচাপের রোগী।

গ্রামে উচ্চরক্তচাপ: ২০১৮ ১৯%, ২০২২ ২৯%, রোগী বৃদ্ধি ১০%। গ্রামে উচ্চরক্তচাপ: আক্রান্ত ২৯ %, নারী ৩০%, পুরুষ ২৬ %।

এদিকে গ্রামের বেশিরভাগ মানুষই নিয়মিত রক্তচাপ পরীক্ষা করেন না। ফলে আক্রান্তদের অনেকেই জানেন না তাদের উচ্চরক্তচাপ আছে। এতে কিডনি বিকল, স্ট্রোক ও হৃদরোগের নীরব ঝুঁকিতে অনেক রোগী।

২০০টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ডায়াবেটিসের পাশাপাশি উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে বিনামূল্যে ওষুধ দিচ্ছে সরকার। এছাড়া স্বাস্থ্য বিভাগের হিসেবে দেশে প্রতি চার জনে একজন উচ্চরক্তচাপের রোগী। আর শুধু বয়স্ক নয়, তরুণরাও আক্রান্ত হচ্ছে এই রোগে, যাকে উদ্বেগজনক বলছেন চিকিৎসকরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

দেশে উচ্চ রক্তচাপের রোগী সাড়ে ৪ কোটির বেশি

আপডেট সময় : ১১:৩৬:২৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১১ মার্চ ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক : দিন দিন বাড়ছে অসংক্রামক রোগ। শুধু শহর নয়, গ্রামেও বাড়ছে উচ্চরক্তচাপের রোগী। মফস্বলে ১০০ জনের মধ্যে ২৯ জনই ভুগছেন এতে। ৮ উপজেলায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও ডায়াবেটিক সমিতির জরিপে এসেছে এ তথ্য। কায়িক শ্রম কমা ও অতিরিক্ত লবণ খাওয়াতেই এর প্রকোপ বাড়াছে, জানাচ্ছেন গবেষকরা।

গ্রামে উচ্চরক্তচাপ ও ডায়াবেটিস পরিস্থিতি জানতে ২০২২ সালের আগস্ট থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত জরিপ করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও ডায়াবেটিক সমিতি। জরিপ চলে ৮ উপজেলায় ১০ হাজার ২২৩ জনের ওপর।

২০১৮ সালের জরিপে গ্রামে উচ্চরক্তচাপের হার ছিল ১৯ ভাগ। সবশেষ জরিপে তা বেড়ে হয়েছে প্রায় ২৯ ভাগ। অর্থাৎ সাড়ে চার কোটি মানুষের রক্তচাপ স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি। চার বছরেই রোগী বেড়েছে দশ ভাগ। পুরুষের তুলনায় নারীদের মধ্যে উচ্চরক্তচাপের রোগী বেশি।

নগরায়নের প্রভাবে গ্রামের ৬৭ ভাগ মানুষ কায়িক পরিশ্রম করে না। ধূমপান করে ৩০ ভাগ মানুষ। স্বাভা্বিকের চেয়ে ওজন বেশি ৪৬ শতাংশের। গত চার বছরে গ্রামে স্থূলতার হার দ্বিগুণ হয়েছে। এসব কারণে বাড়ছে উচ্চরক্তচাপের রোগী।

গ্রামে উচ্চরক্তচাপ: ২০১৮ ১৯%, ২০২২ ২৯%, রোগী বৃদ্ধি ১০%। গ্রামে উচ্চরক্তচাপ: আক্রান্ত ২৯ %, নারী ৩০%, পুরুষ ২৬ %।

এদিকে গ্রামের বেশিরভাগ মানুষই নিয়মিত রক্তচাপ পরীক্ষা করেন না। ফলে আক্রান্তদের অনেকেই জানেন না তাদের উচ্চরক্তচাপ আছে। এতে কিডনি বিকল, স্ট্রোক ও হৃদরোগের নীরব ঝুঁকিতে অনেক রোগী।

২০০টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ডায়াবেটিসের পাশাপাশি উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে বিনামূল্যে ওষুধ দিচ্ছে সরকার। এছাড়া স্বাস্থ্য বিভাগের হিসেবে দেশে প্রতি চার জনে একজন উচ্চরক্তচাপের রোগী। আর শুধু বয়স্ক নয়, তরুণরাও আক্রান্ত হচ্ছে এই রোগে, যাকে উদ্বেগজনক বলছেন চিকিৎসকরা।