বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:২০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
৬ দিনে ৭৪৫ কোটি ছাড়িয়েছে ‘পাঠান’ পুলের ধারে বসে চুরুট ধরালেন সুস্মিতা দেশে চার হাজার ৬৩৩টি ইটভাটা অবৈধ: সংসদে পরিবেশমন্ত্রী নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা রোধে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে : মহিলাবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী চার্লসের সেঞ্চুরিতে রেকর্ড গড়ে কুমিল্লার জয় মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগের বিনিময়ে আমরা স্বাধীন দেশ পেয়েছি : মেয়র আতিক দেশে উচ্চশিক্ষিত বেকার বাড়ছে : রাষ্ট্রপতি আকাশে কেবিন ক্রুকে নারী যাত্রীর থাপ্পড় সাহস থাকলে দেশে আসুন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পকেটে আহলে হাদিসের দুই কোটি ভোট : সংসদে এমপি রহমতুল্লাহ প্ররোচনায় পড়ে র‌্যাবের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা : সংসদে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কারামুক্ত যুবদল নেতা নয়ন ‘ভারতীয় ছবি রিলিজের পক্ষে সবাই থাকলেও আমি নেই’-রাউজানে অভিনেতা রুবেল ইসলামপুরে দৈনিক গণমুক্তি’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত অবসরে গেলেন সকলের প্রিয় ফজলু স্যার

জীবনবীমার টাকা পেতে খুনের নাটক

জীবনবীমার টাকা পেতে খুনের নাটক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

ঘটনাটি ভারতের তেলেঙ্গানার। সেখানকার এক সরকারি কর্মচারী শেয়ারবাজারে ৮৫ লাখ রুপি, বাংলাদেশি মুদ্রায় এক কোটি ৮ লাখ টাকারও বেশি, খুইয়েছেন। সেই দেনার দায় মেটাতে ‘দৃশ্যম’ সিনেমার গল্পের অবতারণা করলেন।

সিনেমার কাহিনীর মতো অন্যকে খুন করলেন। তা নিজের নামে চালিয়েও দিলেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি তার। এই ঘটনায় পুলিশ ওই সরকারি কর্মচারীকে সপরিবারে গ্রেফতার করেছে। পুলিশ জানিয়েছে, ওই সরকারি কর্মচারী তেলঙ্গানার রাজ্য সচিবালয়ের সহকারী বিভাগীয় কর্তা (অ্যাসিসট্যান্ট সেকশন অফিসার বা এএসও )।

তার নাম প্রকাশ না করলেও কুকর্মের বিশদ ফিরিস্তি দিয়েছেন তদন্তকারীরা। তারা জানিয়েছেন, শেয়ারবাজারে ৮৫ লাখ রুপি খুইয়ে জীবনবীমার টাকা পাওয়ার ছক কষেছিলেন ওই সরকারি কর্মী। তার জন্য দীর্ঘ দিন ধরে ধীরে ধীরে সাজিয়েছিলেন নিখুঁত পরিকল্পনা। পরিকল্পিত অপরাধ নিয়ে তৈরি বলিউডের ছবি ‘দৃশ্যম’-এর কথা মনে পড়ে যেতে পারে। এই সরকারি কর্মচারীও খানিকটা একই অধ্যাবসায়ে সাজিয়েছিলেন গোটা ঘটনা।

দেনার দায়ে জর্জরিত ওই এএসও এক বছর ধরে ২৫টি জীবনবীমার পলিসি করান। যার মূল্য প্রায় সাড়ে ৭ কোটি রুপি। সেই বীমা করানোর পর শুরু হয় পরিকল্পনার দ্বিতীয় ধাপ অর্থাৎ বীমার টাকা পাওয়ার চেষ্টা। জীবনবীমার টাকা। সেই টাকা মৃত্যুর পরই পাওয়ার কথা বীমাকারীর। ওই সরকারি কর্তা এর পর খুঁজতে শুরু করেন এমন একজনকে, যার সঙ্গে তার চেহারার মিল রয়েছে। পেয়েও যান।

পুলিশ জানিয়েছে, সম্প্রতি মেদক জেলারই একটি গ্রামের সীমান্তে একটি খাদের গভীরে পাওয়া যায় পুড়ে ছাই হয়ে যাওয়া একটি লাশ। আগুনে জ্বলে যাওয়া একটি গাড়ির চালকের আসনে বসানো ছিল লাশটি। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে মৃত ব্যক্তি একজন সরকারি কর্মচারী। হায়দরাবাদে রাজ্যের সচিবালয়ের কর্তা তিনি। বয়স ৪৪। কিন্তু তদন্ত এগোতেই জানা যায়, যার মৃত্যুর তদন্তে তারা নেমেছেন, তিনি বহাল তবিয়তে বেঁচে আছেন। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *