ঢাকা ০৪:৪০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

উল্লাপাড়ার সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও আ’লীগ নেতা এ্যাড. মারুফ বিন হাবিবের ৩য় মৃত্যু বার্ষিকী আজ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৫৭:৫৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৩
  • / ৪৮৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
রাজু আহমেদ সাহান, উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি :
নব্বইয়ের গণ-আন্দোলনের অন্যতম ছাত্রনেতা, সাবেক উল্লাপাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, সফল পৌর মেয়র, সরকারী আকবর আলী কলেজ ছাত্র সংসদের বারবার নির্বাচিত ভিপি ও জিএস। আধুনিক উল্লাপাড়া বিনির্মাণের রূপকার, গণ মানুষের প্রিয় নেতা সকল সম্প্রদায়ের প্রিয় মুখ এ্যাড. মারুফ বিন হাবিব এর ৩য় মৃত্যু বার্ষিকী আজ বৃহস্পতিবার। তিনি ২০২০ সালের ২৬ জানুয়ারির এই দিনে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেন। তিনি ১৯৬৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া উপজেলার শ্যামলীপাড়া গ্রামে তালুকদার পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। তাঁর পিতা মৃত হাবিবুর রহমান বকু মিয়া ও মাতা মরহুম মনিজা বেগম।
মরহুমের বন্ধু ও রাজনৈতিক সহচর ব্যাংকার রেজাউল করিম জুয়েল জানান, এ্যাড. মারুফ বিন হাবিব ছিলেন মেহনতী ও সাধারণ মানুষের অতি আপনজন। ছাত্র জীবন থেকেই তিনি ছিলেন আপামর জন সাধারনের প্রিয়জন। ১৯৮৭ সালে ব্যাপক ভোটে স্থানীয় সরকারি আকবর আলী কলেজ ছাত্র সংসদের জিএস পদে নির্বাচিত হন। তার জনপ্রিয়তায় একই কলেজে পরপর দুই বার ছাত্র সংসদের ভিপি পদে নির্বাচিত হন। এরপর তিনি উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ও আওয়ামী যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ও সভাপতি পদে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০১ সালে উপজেলা কৃষকলীগের সাধারন সম্পাদক ও সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য পদের দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৫ সালে পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচিত হয়ে জনগণের সেবক হিসেবে নন্দিত হন। পরবর্তীতে ২০১৪ সালে জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়ে সফলতার সহিত দায়িত্ব পালন করেন। পরে রাজশাহী বিভাগের শ্রেষ্ঠ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হেদায়েত আহমেদ এলান জানান, এই জনপ্রিয় নেতা বিভিন্ন পদে জনপ্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হয়ে স্কুল, কলেজ ও মাদরাসা সহ মসজিদ- মন্দির শ্মশান ও কবরস্থানে নানাবিধ উন্নয়ন সাধন করেন। তার সহযোগিতায় উন্নয়ন হয়েছে উল্লাপাড়া সরকারি মার্চেন্টস পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের বহুতল ভবন, উল্লাপাড়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের বহুতল ভবন, উল্লাপাড়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসার বহুতল ভবন, উল্লাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বহুতল ভবন, উল্লাপাড়া মডেল মসজিদ, উল্লাপাড়া যুব সংঘের ভবন নির্মাণ, উল্লাপাড়া রহমত আলী দারুল উলুম হাফেজিয়া মাদরাসা ভবন নির্মাণ, উল্লাপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের বহুতল ভবন নির্মাণ, উল্লাপাড়া এইচটি ইমাম স্কুলকে শ্রেণী পরিবর্তন করে কলেজে রূপান্তর সহ বিভিন্ন মসজিদ, মন্দির, কবরস্থান ও শ্মশানের উন্নয়ন সাধন করা হয়েছে।
মরহুমের মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও ২ মেয়ে সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান। আজ বৃহস্পতিবার তার ৩য় মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে উল্লাপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠন সমুহ দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকাল ৭ টায় দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, শোক শোভাযাত্রা, স্মৃতি চারণ অনুষ্ঠান সহ দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে সকল আত্মীয়- স্বজন ও গুনগ্রাহীদের যথা সময়ে উপস্থিত থাকতে উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বিশেষ ভাবে অনুরোধ করা হয়েছে।
বা/খ: এসআর।

নিউজটি শেয়ার করুন

উল্লাপাড়ার সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও আ’লীগ নেতা এ্যাড. মারুফ বিন হাবিবের ৩য় মৃত্যু বার্ষিকী আজ

আপডেট সময় : ১১:৫৭:৫৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৩
রাজু আহমেদ সাহান, উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি :
নব্বইয়ের গণ-আন্দোলনের অন্যতম ছাত্রনেতা, সাবেক উল্লাপাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, সফল পৌর মেয়র, সরকারী আকবর আলী কলেজ ছাত্র সংসদের বারবার নির্বাচিত ভিপি ও জিএস। আধুনিক উল্লাপাড়া বিনির্মাণের রূপকার, গণ মানুষের প্রিয় নেতা সকল সম্প্রদায়ের প্রিয় মুখ এ্যাড. মারুফ বিন হাবিব এর ৩য় মৃত্যু বার্ষিকী আজ বৃহস্পতিবার। তিনি ২০২০ সালের ২৬ জানুয়ারির এই দিনে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেন। তিনি ১৯৬৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া উপজেলার শ্যামলীপাড়া গ্রামে তালুকদার পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। তাঁর পিতা মৃত হাবিবুর রহমান বকু মিয়া ও মাতা মরহুম মনিজা বেগম।
মরহুমের বন্ধু ও রাজনৈতিক সহচর ব্যাংকার রেজাউল করিম জুয়েল জানান, এ্যাড. মারুফ বিন হাবিব ছিলেন মেহনতী ও সাধারণ মানুষের অতি আপনজন। ছাত্র জীবন থেকেই তিনি ছিলেন আপামর জন সাধারনের প্রিয়জন। ১৯৮৭ সালে ব্যাপক ভোটে স্থানীয় সরকারি আকবর আলী কলেজ ছাত্র সংসদের জিএস পদে নির্বাচিত হন। তার জনপ্রিয়তায় একই কলেজে পরপর দুই বার ছাত্র সংসদের ভিপি পদে নির্বাচিত হন। এরপর তিনি উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ও আওয়ামী যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ও সভাপতি পদে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০১ সালে উপজেলা কৃষকলীগের সাধারন সম্পাদক ও সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য পদের দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৫ সালে পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচিত হয়ে জনগণের সেবক হিসেবে নন্দিত হন। পরবর্তীতে ২০১৪ সালে জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়ে সফলতার সহিত দায়িত্ব পালন করেন। পরে রাজশাহী বিভাগের শ্রেষ্ঠ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হেদায়েত আহমেদ এলান জানান, এই জনপ্রিয় নেতা বিভিন্ন পদে জনপ্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হয়ে স্কুল, কলেজ ও মাদরাসা সহ মসজিদ- মন্দির শ্মশান ও কবরস্থানে নানাবিধ উন্নয়ন সাধন করেন। তার সহযোগিতায় উন্নয়ন হয়েছে উল্লাপাড়া সরকারি মার্চেন্টস পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের বহুতল ভবন, উল্লাপাড়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের বহুতল ভবন, উল্লাপাড়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসার বহুতল ভবন, উল্লাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বহুতল ভবন, উল্লাপাড়া মডেল মসজিদ, উল্লাপাড়া যুব সংঘের ভবন নির্মাণ, উল্লাপাড়া রহমত আলী দারুল উলুম হাফেজিয়া মাদরাসা ভবন নির্মাণ, উল্লাপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের বহুতল ভবন নির্মাণ, উল্লাপাড়া এইচটি ইমাম স্কুলকে শ্রেণী পরিবর্তন করে কলেজে রূপান্তর সহ বিভিন্ন মসজিদ, মন্দির, কবরস্থান ও শ্মশানের উন্নয়ন সাধন করা হয়েছে।
মরহুমের মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও ২ মেয়ে সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান। আজ বৃহস্পতিবার তার ৩য় মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে উল্লাপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠন সমুহ দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকাল ৭ টায় দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, শোক শোভাযাত্রা, স্মৃতি চারণ অনুষ্ঠান সহ দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে সকল আত্মীয়- স্বজন ও গুনগ্রাহীদের যথা সময়ে উপস্থিত থাকতে উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বিশেষ ভাবে অনুরোধ করা হয়েছে।
বা/খ: এসআর।