ঢাকা ১২:৪৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

অর্থ আত্মসাতের মামলায় জালালপুর ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৫০:১৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ নভেম্বর ২০২২
  • / ৪৯৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি :
দুদকের দায়ের করা অর্থ আত্মসাতের মামলায় শাহজাদপুর উপজেলার জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী সুলতান মাহমুদকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।
জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পেশকার মনোয়ার হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, বুধবার (২ নভেম্বর) সকালে ইউপি চেয়ারম্যান হাজী সুলতান মাহমুদ দুর্নীতির মামলায় আইনজীবীর মাধ্যমে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিনের আবেদন করেন। জামিন শুনানী শেষে বিচারক ফজলে খোদা মো. নাজির তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ প্রদান করেন।
এর আগে, ইউনিয়ন পরিষদের টাকা তছরুপের ঘটনায় জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি সুলতান মাহমুদ ও সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের (৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ড) সদস্য সালেহা বেগমকে গত ১৭ জানুয়ারি সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার এর পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়।
আদালত সুত্রে জানা যায়, স্থানীয় সরকার বিভাগের এলজিএসপি-৩ প্রকল্পের আওতায় ৩০ লাখ ১৫ হাজার ৮৪৪ টাকা জালালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ, সাবেক ইউপি সচিব এস এম জিয়াউল করিম ও ইউপি সদস্য সালেহা বেগমের যৌথ স্বাক্ষরে উত্তোলন করে তা সোনালী ব্যাংক শাহজাদপুর শাখায় সাবেক ইউপি সচিব জিয়াউল করিমের সঞ্চয়ী হিসাবে (নং-৪২১৩৪৩৪১৩৩৯০১) স্থানান্তর করে। এলজিএসপি-৩ এর সিরাজগঞ্জ জেলা ফ্যাসিলিটেটর (ডিএফ) মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান ঘটনার তদন্ত করে সত্যতা পান। এরপর তিনি বাদী হয়ে জালালপুর ইউপির সাবেক সচিব এস এম জিয়াউল করিম ও অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে এনায়েতপুর থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন। তদন্ত কাজ শেষ করে ঘটনার সাথে জড়িত ইউপি সচিব ও অজ্ঞাতদের কাছ থেকে জরুরি ভিত্তিতে তছরুপকৃত সরকারি অর্থ উদ্ধার ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানিয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।
এর প্রেক্ষিতে ১৭ জানুয়ারি স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ জালালপুর ইউপি চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ ও ইউপি সদস্য সালেহা বেগমকে সাময়িক বরখাস্ত করে প্রজ্ঞাপনও জারি করেন।
এদিকে এলজিএসপির টাকা আত্মাসাতের অভিযোগে দায়ের করা মামলা তদন্ত শেষে অভিযোগ প্রমানীত হওয়ায় শাহজাদপুর উপজেলার জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ, সংরক্ষিত ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের সদস্য সাহেলা বেগম ও সাবেক সচিব জিয়াউর করিমের বিরুদ্ধে গত ৫ জুলাই আদালতে চার্জশিট দাখিল করে দুদক।
এই মামলায় আজ আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিনের আবেদন করেন জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ। জামিন শুনানী শেষে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
সুলতান মাহমুদ এর আগেও জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন।
বা/খ:জই

নিউজটি শেয়ার করুন

অর্থ আত্মসাতের মামলায় জালালপুর ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

আপডেট সময় : ০২:৫০:১৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ নভেম্বর ২০২২
শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি :
দুদকের দায়ের করা অর্থ আত্মসাতের মামলায় শাহজাদপুর উপজেলার জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী সুলতান মাহমুদকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।
জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পেশকার মনোয়ার হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, বুধবার (২ নভেম্বর) সকালে ইউপি চেয়ারম্যান হাজী সুলতান মাহমুদ দুর্নীতির মামলায় আইনজীবীর মাধ্যমে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিনের আবেদন করেন। জামিন শুনানী শেষে বিচারক ফজলে খোদা মো. নাজির তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ প্রদান করেন।
এর আগে, ইউনিয়ন পরিষদের টাকা তছরুপের ঘটনায় জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি সুলতান মাহমুদ ও সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের (৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ড) সদস্য সালেহা বেগমকে গত ১৭ জানুয়ারি সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার এর পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়।
আদালত সুত্রে জানা যায়, স্থানীয় সরকার বিভাগের এলজিএসপি-৩ প্রকল্পের আওতায় ৩০ লাখ ১৫ হাজার ৮৪৪ টাকা জালালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ, সাবেক ইউপি সচিব এস এম জিয়াউল করিম ও ইউপি সদস্য সালেহা বেগমের যৌথ স্বাক্ষরে উত্তোলন করে তা সোনালী ব্যাংক শাহজাদপুর শাখায় সাবেক ইউপি সচিব জিয়াউল করিমের সঞ্চয়ী হিসাবে (নং-৪২১৩৪৩৪১৩৩৯০১) স্থানান্তর করে। এলজিএসপি-৩ এর সিরাজগঞ্জ জেলা ফ্যাসিলিটেটর (ডিএফ) মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান ঘটনার তদন্ত করে সত্যতা পান। এরপর তিনি বাদী হয়ে জালালপুর ইউপির সাবেক সচিব এস এম জিয়াউল করিম ও অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে এনায়েতপুর থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন। তদন্ত কাজ শেষ করে ঘটনার সাথে জড়িত ইউপি সচিব ও অজ্ঞাতদের কাছ থেকে জরুরি ভিত্তিতে তছরুপকৃত সরকারি অর্থ উদ্ধার ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানিয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।
এর প্রেক্ষিতে ১৭ জানুয়ারি স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ জালালপুর ইউপি চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ ও ইউপি সদস্য সালেহা বেগমকে সাময়িক বরখাস্ত করে প্রজ্ঞাপনও জারি করেন।
এদিকে এলজিএসপির টাকা আত্মাসাতের অভিযোগে দায়ের করা মামলা তদন্ত শেষে অভিযোগ প্রমানীত হওয়ায় শাহজাদপুর উপজেলার জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ, সংরক্ষিত ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের সদস্য সাহেলা বেগম ও সাবেক সচিব জিয়াউর করিমের বিরুদ্ধে গত ৫ জুলাই আদালতে চার্জশিট দাখিল করে দুদক।
এই মামলায় আজ আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিনের আবেদন করেন জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ। জামিন শুনানী শেষে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
সুলতান মাহমুদ এর আগেও জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন।
বা/খ:জই