ঢাকা ১০:১৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

লকডাউন থেকে বাঁচতে কারখানা ছেড়ে পালাচ্ছে চীনের শ্রমিকরা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:৫০:০৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩১ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৬৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 
চীনের মধ্যাঞ্চলীয় ঝেংঝু নগরীতে অবস্থিত আইফোনের সবচেয়ে বড় অ্যাসেম্বলি প্লান্টের দেয়াল টপকে পালিয়ে যাচ্ছেন শ্রমিকরা। সম্প্রতি এ ধরনের একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে চীনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোয়। সে কারখানাটি পরিচালনা করে আইফোন সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ফক্সকন।

এক কোটি জনসংখ্যা অধ্যুষিত চীনের হেনান প্রদেশের রাজধানী ঝেংঝুতে সম্প্রতি করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি সামাল দিতে সেখানে লকডাউন ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ।

করোনা পরিস্থিতি সামলাতে জিরো কোভিড নামে অভিহিত কঠোর লকডাউন নীতিমালা নিয়েছে চীনা কর্তৃপক্ষ। এর অংশ হিসেবে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উপদ্রুত এলাকায় আরোপ করা হচ্ছে কঠোর লকডাউন।

ঝেংঝুতে ফক্সকনের কারখানায় কর্মরত ২২ বছর বয়সী এক শ্রমিক ফিনান্সিয়াল টাইমসকে জানান, তাকেসহ তার সহকর্মীদের কারখানার ডরমেটরিতে আটকে রাখা হয়েছিল। সেখানে চরম বিশৃঙ্খলা বিরাজ করছে। কারখানা প্রাঙ্গন থেকে বেড়া টপকিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন তারা।

সেই প্লান্টের আশপাশে গত কয়েকদিন ধরে লকডাউন চলছে বলেও দাবি করেন শ্রমিকরা। সেখানে করোনা আক্রান্ত শ্রমিকদের আলাদা রাখা হয়েছে।

কারখানায় করোনা ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে এর আগে গত সপ্তাহে প্লান্টের শ্রমিকদের ডাইনিংয়ে একসঙ্গে খাওয়ার ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করে ফক্সকন।

ফক্সকনের এ কারখানায় আইফোনের সর্বশেষ সংস্করণ আইফোন ফোরটিন মডেলের স্মার্টফোন বানানো হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

লকডাউন থেকে বাঁচতে কারখানা ছেড়ে পালাচ্ছে চীনের শ্রমিকরা

আপডেট সময় : ০৯:৫০:০৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩১ অক্টোবর ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 
চীনের মধ্যাঞ্চলীয় ঝেংঝু নগরীতে অবস্থিত আইফোনের সবচেয়ে বড় অ্যাসেম্বলি প্লান্টের দেয়াল টপকে পালিয়ে যাচ্ছেন শ্রমিকরা। সম্প্রতি এ ধরনের একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে চীনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোয়। সে কারখানাটি পরিচালনা করে আইফোন সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ফক্সকন।

এক কোটি জনসংখ্যা অধ্যুষিত চীনের হেনান প্রদেশের রাজধানী ঝেংঝুতে সম্প্রতি করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি সামাল দিতে সেখানে লকডাউন ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ।

করোনা পরিস্থিতি সামলাতে জিরো কোভিড নামে অভিহিত কঠোর লকডাউন নীতিমালা নিয়েছে চীনা কর্তৃপক্ষ। এর অংশ হিসেবে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উপদ্রুত এলাকায় আরোপ করা হচ্ছে কঠোর লকডাউন।

ঝেংঝুতে ফক্সকনের কারখানায় কর্মরত ২২ বছর বয়সী এক শ্রমিক ফিনান্সিয়াল টাইমসকে জানান, তাকেসহ তার সহকর্মীদের কারখানার ডরমেটরিতে আটকে রাখা হয়েছিল। সেখানে চরম বিশৃঙ্খলা বিরাজ করছে। কারখানা প্রাঙ্গন থেকে বেড়া টপকিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন তারা।

সেই প্লান্টের আশপাশে গত কয়েকদিন ধরে লকডাউন চলছে বলেও দাবি করেন শ্রমিকরা। সেখানে করোনা আক্রান্ত শ্রমিকদের আলাদা রাখা হয়েছে।

কারখানায় করোনা ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে এর আগে গত সপ্তাহে প্লান্টের শ্রমিকদের ডাইনিংয়ে একসঙ্গে খাওয়ার ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করে ফক্সকন।

ফক্সকনের এ কারখানায় আইফোনের সর্বশেষ সংস্করণ আইফোন ফোরটিন মডেলের স্মার্টফোন বানানো হয়।