ঢাকা ০৮:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

কুয়াকাটায় বিধবা মায়ের বসত বাড়ি রক্ষার আকুতি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:২৯:৩৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ মার্চ ২০২৩
  • / ৪৫৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি :

কুয়াকাটা খাজুরা এলাকায় এক বিধবা মায়ের শেষ সম্বল বসত বাড়ি থেকে উৎখাত করতে বড় বড় গাছ কেটে নিয়েছে হালিম মুন্সী ও হারুন মুন্সী এমন অভিযোগ উঠেছে। পর্যটন নগরী কুয়াকাটার খাজুরা গোড়াখাল নামক এলাকায় মৃত আ: আজিজ মুন্সীর স্ত্রী বিধবা মিনারা বেগমের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে ।

বুধবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাড়ির অধিকাংশ বড় বড় গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। এমনকি গাছ কেটে সেখানে মাটি ভরাট করার প্রস্তুতি নিচ্ছে কিছু একটা করার জন্য। বিধবা মিনারা বেগম তার বসত বাড়ি রক্ষায় স্থানীয় সমাজ পতিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে আর কাঁদছে এবং ওদের এমন কার্যকলাপের কারণে ভয়-ভীতি ও শঙ্কার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। বসত বাড়ি রক্ষায় তিনি এর প্রতিকার চেয়েছেন সকলের কাছে।

বিধবা মিনারা বেগম হু হু করে কেঁদে কেঁদে বলেন, হালিম মুন্সী ও হারুন মুন্সী হচ্ছে তার স্বামীর আরেক সংসারের পুত্র। তাই স্বামীর মৃত্যুতে ওই সন্তানেরা প্রতিনিয়ত আমার উপর অমানবিক অত্যাচার চালায়। আমার স্বামীর জীবদ্ধশায় স্বামীর নগদ টাকার প্রয়োজনে মাথা গোজার ঠাই বসত ভিটাটুকু বিক্রি করে দিতে চাইলে আমি আমার স্বামীর শেষ সম্বলটুকু আকড়ে রাখতে নিজের মাথা গোজার জায়গাটা নিশ্চিত করতে বাবার বাড়ির গরু বিক্রি করে নগদ ৩৩ হাজার টাকা দিয়ে বসত ভিটার ৩৫ শতাংশ জমি নিজের নামে রেখে দেই। তিনি অভিযোগ করে আরও বলেন, বর্তমানে ওই জমির মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় বখাটে ছেলে হালিম মুন্সীর আমার জমির প্রতি তার কু-নজর পরেছে। এখন প্রতিনিয়ত আমাকে বাড়ি থেকে নামাতে নানা ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। শুধু তাই নয় বাড়ির বড় বড় গাছ কেটে নিয়েছে তারা। অপরদিকে আমি এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে আমাকে জীবন নাশের হুমকি সহ বিভিন্ন মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাসাবে বলে ভয় ভীতি দেখাচ্ছে।

এ বিষয়ে হালিম মুন্সী ও হারুন মুন্সীর কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন, যা করেছি তা মায়ের অনুমতি নিয়েই করেছি, তবে কাগজ-পত্র ঠিক থাকলে মায়ের জায়গা তাকে বুঝিয়ে দেয়া হবে।

 

বা/খ : জই

নিউজটি শেয়ার করুন

কুয়াকাটায় বিধবা মায়ের বসত বাড়ি রক্ষার আকুতি

আপডেট সময় : ০৬:২৯:৩৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ মার্চ ২০২৩

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি :

কুয়াকাটা খাজুরা এলাকায় এক বিধবা মায়ের শেষ সম্বল বসত বাড়ি থেকে উৎখাত করতে বড় বড় গাছ কেটে নিয়েছে হালিম মুন্সী ও হারুন মুন্সী এমন অভিযোগ উঠেছে। পর্যটন নগরী কুয়াকাটার খাজুরা গোড়াখাল নামক এলাকায় মৃত আ: আজিজ মুন্সীর স্ত্রী বিধবা মিনারা বেগমের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে ।

বুধবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাড়ির অধিকাংশ বড় বড় গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। এমনকি গাছ কেটে সেখানে মাটি ভরাট করার প্রস্তুতি নিচ্ছে কিছু একটা করার জন্য। বিধবা মিনারা বেগম তার বসত বাড়ি রক্ষায় স্থানীয় সমাজ পতিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে আর কাঁদছে এবং ওদের এমন কার্যকলাপের কারণে ভয়-ভীতি ও শঙ্কার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। বসত বাড়ি রক্ষায় তিনি এর প্রতিকার চেয়েছেন সকলের কাছে।

বিধবা মিনারা বেগম হু হু করে কেঁদে কেঁদে বলেন, হালিম মুন্সী ও হারুন মুন্সী হচ্ছে তার স্বামীর আরেক সংসারের পুত্র। তাই স্বামীর মৃত্যুতে ওই সন্তানেরা প্রতিনিয়ত আমার উপর অমানবিক অত্যাচার চালায়। আমার স্বামীর জীবদ্ধশায় স্বামীর নগদ টাকার প্রয়োজনে মাথা গোজার ঠাই বসত ভিটাটুকু বিক্রি করে দিতে চাইলে আমি আমার স্বামীর শেষ সম্বলটুকু আকড়ে রাখতে নিজের মাথা গোজার জায়গাটা নিশ্চিত করতে বাবার বাড়ির গরু বিক্রি করে নগদ ৩৩ হাজার টাকা দিয়ে বসত ভিটার ৩৫ শতাংশ জমি নিজের নামে রেখে দেই। তিনি অভিযোগ করে আরও বলেন, বর্তমানে ওই জমির মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় বখাটে ছেলে হালিম মুন্সীর আমার জমির প্রতি তার কু-নজর পরেছে। এখন প্রতিনিয়ত আমাকে বাড়ি থেকে নামাতে নানা ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। শুধু তাই নয় বাড়ির বড় বড় গাছ কেটে নিয়েছে তারা। অপরদিকে আমি এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে আমাকে জীবন নাশের হুমকি সহ বিভিন্ন মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাসাবে বলে ভয় ভীতি দেখাচ্ছে।

এ বিষয়ে হালিম মুন্সী ও হারুন মুন্সীর কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন, যা করেছি তা মায়ের অনুমতি নিয়েই করেছি, তবে কাগজ-পত্র ঠিক থাকলে মায়ের জায়গা তাকে বুঝিয়ে দেয়া হবে।

 

বা/খ : জই