ঢাকা ১১:৩৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

স্কটল্যান্ডকে বিদায় করে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন জিম্বাবুয়ে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৫৫:১৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৫০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

স্পোর্টস ডেস্ক : 

আবারো সেই সিকান্দার রাজা। কী বোলিং আর কী ব্যাটিং! অসাধারণ অলরাউন্ড নৈপুণ্য দেখিয়ে আবারো জিম্বাবুয়েকে জয় উপহার দিলেন তিনি। স্কটল্যান্ডকে ৫ উইকেটের ব্যবধানে হারিয়ে শুধু বিদায় করে দেয়াই নয়, ‘বি’ গ্রুপের শীর্ষে থেকেই সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত করলো জিম্বাবুয়ে।

রোমাঞ্চকর হয়ে দাঁড়িয়েছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম পর্বের ‘বি’ গ্রুপের খেলা। সব দলেরই পরের রাউন্ডে যাওয়ার সমান সুযোগ ছিল। প্রথম ম্যাচের মতো শেষ ম্যাচেরও বিজয়ী দলের টিকিট কাটার কথা সুপার টুয়েলভের। সহজ সমীকরণ মাথায় নিয়ে জিম্বাবুয়ে প্রত্যাশিত জয়টাই পেয়েছে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে।

যেহেতু গ্রুপ সেরা হতে শ্রেয়তর রান রেট পেতে বেশি বল হাতে রেখে খেলা প্রয়োজন। জিম্বাবুয়ে সেটা করেছেও ৯ বল হাতে রেখে। ৩ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে +০.২০০ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ সেরা তারাই। সমান ম্যাচে সমান পয়েন্ট পেয়ে সুপার টুয়েলভে যাওয়া আইরিশদের রান রেট +০.১৬২।

গ্রুপ সেরা হওয়ায় জিম্বাবুয়ে খেলবে গ্রুপ দুইয়ে। সেখানে রয়েছে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা ও নেদারল্যান্ডস। আর আইরিশরা গ্রুপ রানার্স আপ হওয়ায় খেলবে গ্রুপ এক-এ। সেখানে রয়েছে আফগানিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা।

১৩৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা জিম্বাবুয়ে অবশ্য শুরুতে ভীষণ ধুকঁছিল। ৪২ রানে পড়ে তৃতীয় উইকেট। অবস্থা এমন দাঁড়ায় ১০ ওভারেও স্কোর ছিল ৫৫। ওভার প্রতি প্রয়োজন ৭.৮০। তখন একপ্রান্ত আগলে ছিলেন আজকের ম্যাচে ফেরা নিয়মিত অধিনায়ক ক্রেইগ আরভিন। তার সঙ্গে সিকান্দার রাজার বিস্ফোরক ব্যাটিং যোগ হওয়ায় এই জুটিই তাদের জয়ের পথে তুলেছে। দুজনে ৪৩ বলে ৬৪ রান যোগ করেছেন। জয়ের কাছাকাছি থাকা অবস্থায় ১৫তম ওভারে রাজা ফেরেন দলীয় ১০৬ রানে। তার পরেও সমস্যা ছিল না। রাজা বিদায় নেওয়ার আগে নিজের চেনা বিস্ফোরক ব্যাটিং উপহার দিয়েছেন। ২৩ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় করেছেন ৪০ তিনি। অধিনায়ক আরভিন আরেকটু লড়াই চালিয়ে ১৭তম ওভারে ফেরেন সর্বোচ্চ ৫৮ রান করে। তার ৫৪ বলের ইনিংসে ছিল ৬টি চার। তার পর মিল্টন শুম্বা ও রায়ান বার্ল মিলে ১৮.৩ ওভারে জয় নিশ্চিত করেছেন।শুম্বা অপরাজিত ছিলেন ১১ রানে, বার্ল ৯ রানে।

স্কটিশদের হয়ে ১৬ রানে সর্বোচ্চ দুই উইকেট নেন জশ ড্যাভি। একটি করে নিয়েছেন ব্র্যাড হুইল, মার্ক ওয়াট ও মাইকেল লিস্ক।

হোবার্টে শুরুতে টস জিতে ব্যাট করা স্কটল্যান্ড ৬ উইকেটে ১৩২ রান করেছে। এই স্কোরের মূল কারিগর ছিলেন ওপেনার জর্জ মানসি। ৫১ বলে ৭ চারে ৫৪ রানের ধীর গতির ইনিংস উপহার দিয়েছেন। অধিনায়ক বেরিংটন করেছেন ১৩। এছাড়া উল্লেখযোগ্য ইনিংস ছিল কলাম ম্যাকলাউডের। ২৬ বলে ২৫ রান করেছেন।
টেন্ডাই চাতারা ১৪ রানে দুটি উইকেট নিয়েছেন। ২৮ রানে সমসংখ্যক উইকেট রিচার্ড এনগারাভার। একটি করে নিয়েছেন ব্লেসিং মুজারাবানি ও সিকান্দার রাজা।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

স্কটল্যান্ডকে বিদায় করে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন জিম্বাবুয়ে

আপডেট সময় : ০৫:৫৫:১৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ অক্টোবর ২০২২

স্পোর্টস ডেস্ক : 

আবারো সেই সিকান্দার রাজা। কী বোলিং আর কী ব্যাটিং! অসাধারণ অলরাউন্ড নৈপুণ্য দেখিয়ে আবারো জিম্বাবুয়েকে জয় উপহার দিলেন তিনি। স্কটল্যান্ডকে ৫ উইকেটের ব্যবধানে হারিয়ে শুধু বিদায় করে দেয়াই নয়, ‘বি’ গ্রুপের শীর্ষে থেকেই সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত করলো জিম্বাবুয়ে।

রোমাঞ্চকর হয়ে দাঁড়িয়েছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম পর্বের ‘বি’ গ্রুপের খেলা। সব দলেরই পরের রাউন্ডে যাওয়ার সমান সুযোগ ছিল। প্রথম ম্যাচের মতো শেষ ম্যাচেরও বিজয়ী দলের টিকিট কাটার কথা সুপার টুয়েলভের। সহজ সমীকরণ মাথায় নিয়ে জিম্বাবুয়ে প্রত্যাশিত জয়টাই পেয়েছে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে।

যেহেতু গ্রুপ সেরা হতে শ্রেয়তর রান রেট পেতে বেশি বল হাতে রেখে খেলা প্রয়োজন। জিম্বাবুয়ে সেটা করেছেও ৯ বল হাতে রেখে। ৩ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে +০.২০০ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ সেরা তারাই। সমান ম্যাচে সমান পয়েন্ট পেয়ে সুপার টুয়েলভে যাওয়া আইরিশদের রান রেট +০.১৬২।

গ্রুপ সেরা হওয়ায় জিম্বাবুয়ে খেলবে গ্রুপ দুইয়ে। সেখানে রয়েছে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা ও নেদারল্যান্ডস। আর আইরিশরা গ্রুপ রানার্স আপ হওয়ায় খেলবে গ্রুপ এক-এ। সেখানে রয়েছে আফগানিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা।

১৩৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা জিম্বাবুয়ে অবশ্য শুরুতে ভীষণ ধুকঁছিল। ৪২ রানে পড়ে তৃতীয় উইকেট। অবস্থা এমন দাঁড়ায় ১০ ওভারেও স্কোর ছিল ৫৫। ওভার প্রতি প্রয়োজন ৭.৮০। তখন একপ্রান্ত আগলে ছিলেন আজকের ম্যাচে ফেরা নিয়মিত অধিনায়ক ক্রেইগ আরভিন। তার সঙ্গে সিকান্দার রাজার বিস্ফোরক ব্যাটিং যোগ হওয়ায় এই জুটিই তাদের জয়ের পথে তুলেছে। দুজনে ৪৩ বলে ৬৪ রান যোগ করেছেন। জয়ের কাছাকাছি থাকা অবস্থায় ১৫তম ওভারে রাজা ফেরেন দলীয় ১০৬ রানে। তার পরেও সমস্যা ছিল না। রাজা বিদায় নেওয়ার আগে নিজের চেনা বিস্ফোরক ব্যাটিং উপহার দিয়েছেন। ২৩ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় করেছেন ৪০ তিনি। অধিনায়ক আরভিন আরেকটু লড়াই চালিয়ে ১৭তম ওভারে ফেরেন সর্বোচ্চ ৫৮ রান করে। তার ৫৪ বলের ইনিংসে ছিল ৬টি চার। তার পর মিল্টন শুম্বা ও রায়ান বার্ল মিলে ১৮.৩ ওভারে জয় নিশ্চিত করেছেন।শুম্বা অপরাজিত ছিলেন ১১ রানে, বার্ল ৯ রানে।

স্কটিশদের হয়ে ১৬ রানে সর্বোচ্চ দুই উইকেট নেন জশ ড্যাভি। একটি করে নিয়েছেন ব্র্যাড হুইল, মার্ক ওয়াট ও মাইকেল লিস্ক।

হোবার্টে শুরুতে টস জিতে ব্যাট করা স্কটল্যান্ড ৬ উইকেটে ১৩২ রান করেছে। এই স্কোরের মূল কারিগর ছিলেন ওপেনার জর্জ মানসি। ৫১ বলে ৭ চারে ৫৪ রানের ধীর গতির ইনিংস উপহার দিয়েছেন। অধিনায়ক বেরিংটন করেছেন ১৩। এছাড়া উল্লেখযোগ্য ইনিংস ছিল কলাম ম্যাকলাউডের। ২৬ বলে ২৫ রান করেছেন।
টেন্ডাই চাতারা ১৪ রানে দুটি উইকেট নিয়েছেন। ২৮ রানে সমসংখ্যক উইকেট রিচার্ড এনগারাভার। একটি করে নিয়েছেন ব্লেসিং মুজারাবানি ও সিকান্দার রাজা।