ঢাকা ০৮:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

৯৩টি দলের বেশিরভাগেরই কাগজপত্র ঠিক নেই: ইসি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:১২:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মার্চ ২০২৩
  • / ৪৫৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজনৈতিক দল হিসেবে নির্বাচন কমিশনের নিবন্ধন পেতে আবেদন করা ৯৩টি দলের বেশিরভাগেরই কাগজপত্র ঠিক নেই। নিবন্ধনের শর্তও পূরণ করতে পারেনি তারা। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, মাত্র সাতটি দলের ব্যাপারে মাঠ পর্যায়ে তদন্ত করবে নির্বাচন কমিশন। রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ও নির্বাচন পর্যবেক্ষকরা বলছেন, নামসর্বস্ব কোন দল যাতে নিবন্ধন না পায় সে ব্যাপারে কমিশনকে সতর্ক থাকতে হবে।

গেলো বছর নতুন রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন দিতে আবেদন গ্রহণ করে নির্বাচন কমিশন। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আবেদন জানিয়েছিলো ৯৩টি রাজনৈতিক দল। আবেদন অসম্পূর্ণ থাকায় ১৪টি দলের আবেদন প্রথমেই বাতিল হয়। এছাড়া ২টি রাজনৈতিক দল আবেদন প্রত্যাহার করে নেয়।

অবশিষ্ট ৭৭টি দলের কাছে আরও তথ্য চেয়ে চিঠি দেয়া নির্বাচন কমিশন। ইসি’র সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, আবেদনকারী দলগুলোর দেয়া তথ্য ও কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে কেবল সাতটি দলের কাগজপত্র যথাযথ পেয়েছে কমিশন।

আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচন কমিশন কিছু না বললেও কয়েকটি সূত্র থেকে জানা যায়, এই ৭টি দলের মধ্যে আছে আমার বাংলাদেশ পার্টি-এবি পার্টি, গণ অধিকার পরিষদ, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট পার্টি-বিডিপি, নাগরিক ঐক্য, বাংলাদেশ জাতীয় বঙ্গ লীগ, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টি-বিএসপি এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আন্দোলন-বিএনএম।

এই দলগুলোর নেতারা আশা করছেন, নির্বাচন কমিশন স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পারলে তারা নিবন্ধন পাবেন। রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ও নির্বাচন পর্যবেক্ষকরা বলছেন, ইসি’র নিরপেক্ষতা নিশ্চিতেস্বাধীন ও নির্মোহভাবে নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন করা উচিৎ।

নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর জানিয়েছেন, দলগুলোর দেয়া তথ্য এখনো যাচাই বাছাই চলছে। তবে তিনি জানান, নিরপেক্ষভাবেই রাজনৈতিক দল নিবন্ধনের কাজ করবে ইসি। এবছরের মে মাসের মধ্যে নতুন দল নিবন্ধন দেবে নির্বাচন কমিশন।

নিউজটি শেয়ার করুন

৯৩টি দলের বেশিরভাগেরই কাগজপত্র ঠিক নেই: ইসি

আপডেট সময় : ০৬:১২:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মার্চ ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজনৈতিক দল হিসেবে নির্বাচন কমিশনের নিবন্ধন পেতে আবেদন করা ৯৩টি দলের বেশিরভাগেরই কাগজপত্র ঠিক নেই। নিবন্ধনের শর্তও পূরণ করতে পারেনি তারা। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, মাত্র সাতটি দলের ব্যাপারে মাঠ পর্যায়ে তদন্ত করবে নির্বাচন কমিশন। রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ও নির্বাচন পর্যবেক্ষকরা বলছেন, নামসর্বস্ব কোন দল যাতে নিবন্ধন না পায় সে ব্যাপারে কমিশনকে সতর্ক থাকতে হবে।

গেলো বছর নতুন রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন দিতে আবেদন গ্রহণ করে নির্বাচন কমিশন। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আবেদন জানিয়েছিলো ৯৩টি রাজনৈতিক দল। আবেদন অসম্পূর্ণ থাকায় ১৪টি দলের আবেদন প্রথমেই বাতিল হয়। এছাড়া ২টি রাজনৈতিক দল আবেদন প্রত্যাহার করে নেয়।

অবশিষ্ট ৭৭টি দলের কাছে আরও তথ্য চেয়ে চিঠি দেয়া নির্বাচন কমিশন। ইসি’র সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, আবেদনকারী দলগুলোর দেয়া তথ্য ও কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে কেবল সাতটি দলের কাগজপত্র যথাযথ পেয়েছে কমিশন।

আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচন কমিশন কিছু না বললেও কয়েকটি সূত্র থেকে জানা যায়, এই ৭টি দলের মধ্যে আছে আমার বাংলাদেশ পার্টি-এবি পার্টি, গণ অধিকার পরিষদ, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট পার্টি-বিডিপি, নাগরিক ঐক্য, বাংলাদেশ জাতীয় বঙ্গ লীগ, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টি-বিএসপি এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আন্দোলন-বিএনএম।

এই দলগুলোর নেতারা আশা করছেন, নির্বাচন কমিশন স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পারলে তারা নিবন্ধন পাবেন। রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ও নির্বাচন পর্যবেক্ষকরা বলছেন, ইসি’র নিরপেক্ষতা নিশ্চিতেস্বাধীন ও নির্মোহভাবে নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন করা উচিৎ।

নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর জানিয়েছেন, দলগুলোর দেয়া তথ্য এখনো যাচাই বাছাই চলছে। তবে তিনি জানান, নিরপেক্ষভাবেই রাজনৈতিক দল নিবন্ধনের কাজ করবে ইসি। এবছরের মে মাসের মধ্যে নতুন দল নিবন্ধন দেবে নির্বাচন কমিশন।