ঢাকা ০১:২৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

৮৭ হাজার ডলারে বিক্রি হলো সেই জিন্স

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৩৮:০৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৬৬ বার পড়া হয়েছে

লিভাইস ব্র্যান্ডের অতি পুরনো এক জিন্স

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

লিভাইস ব্র্যান্ডের অতি পুরনো এক ‘ঐতিহাসিক’ জিন্স বিক্রি হয়েছে ৮৭ হাজার ডলারেরও বেশি দামে। ১৮৮০-এর দশকে তৈরি ওই জিন্সটি এত দাম দিয়ে কিনেছেন ২৩ বছর বয়সী কাইলি হন্টার এবং জিপ স্টিভেনসন নামের দুই মার্কিনি। খবর সিএনএন।

পরিত্যক্ত এক খনিতে যুক্তরাষ্ট্রের ‘ডেনিম প্রত্নতত্ত্ববিদ’ (জিন্স গবেষক) মাইকেল হ্যারিস ট্রাউজারটি খুঁজে পান। পরে নিউ মেক্সিকো অঙ্গরাজ্যের ছোট এক শহরে সেটি বিক্রির জন্য নিলামে ওঠান তিনি।

ক্রেতারা বলেছেন, নিলাম শুরু হওয়ার আগ পর্যন্তও আমাদের জিন্সটি কেনার ইচ্ছা ছিল না। পেছনের দিকে তাকিয়ে এখন অনেকটা পাগলামোই মনে হচ্ছে গোটা ব্যাপারটিকে।

আদিকালের ছেঁড়াখোঁড়া একটি জিন্সের এত দাম ওঠার পেছনের মূল কারণ ইতিহাসের সঙ্গে এর সংশ্লিষ্টতা। ওই জিন্সের সঙ্গে জড়িয়ে আছে মার্কিন ইতিহাসের এক কালো অধ্যায়। ১৮৮২ সালে যুক্তরাষ্ট্রে ‘চাইনিজ এক্সক্লুশন অ্যাক্ট’ নামের এক আইন প্রণয়ন করা হয়। চীনা শ্রমিকদের দেশটিতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয় ওই আইনের মাধ্যমে। লিভাইসের ওই জিন্সের ভেতরের একটি পকেট দিচ্ছে ইতিহাসের সে পর্বের সাক্ষ্য। ছাপা অক্ষরে সেখানে লেখা রয়েছে, ‘শুধু শ্বেতাঙ্গদের শ্রমে তৈরি’।

এ প্রসঙ্গে লিভাইসের এক মুখপাত্র জানান, সরকার আইনটি প্রণয়নের পর লিভাইস এ ধরনের ঘোষণাসংবলিত জিন্স তৈরি করেছিল। কিন্তু পরে ১৮৯০ সালে ঘোষণা এবং নীতি দুটিই পাল্টে ফেলেন তাঁরা। তবে আইনটি বাতিল হয় অনেক পরে, ১৯৪৩ সালে।

লস অ্যাঞ্জেলেসের এক সেফ ডিপোজিট বাক্সে রাখা হয়েছে ইতিহাসের সাক্ষী ওই ছেঁড়াফাটা জিন্সটি। আগ্রহী ব্যক্তিগত সংগ্রাহক খুঁজছেন এর বর্তমান ক্রেতারা। তাঁদের পরিকল্পনা, এটি সে রকম উপযুক্ত কারো কাছে বিক্রির মাধ্যমে অনেক লোককে দেখানোর সুযোগ করে দেওয়া।

নিউজটি শেয়ার করুন

৮৭ হাজার ডলারে বিক্রি হলো সেই জিন্স

আপডেট সময় : ১১:৩৮:০৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

লিভাইস ব্র্যান্ডের অতি পুরনো এক ‘ঐতিহাসিক’ জিন্স বিক্রি হয়েছে ৮৭ হাজার ডলারেরও বেশি দামে। ১৮৮০-এর দশকে তৈরি ওই জিন্সটি এত দাম দিয়ে কিনেছেন ২৩ বছর বয়সী কাইলি হন্টার এবং জিপ স্টিভেনসন নামের দুই মার্কিনি। খবর সিএনএন।

পরিত্যক্ত এক খনিতে যুক্তরাষ্ট্রের ‘ডেনিম প্রত্নতত্ত্ববিদ’ (জিন্স গবেষক) মাইকেল হ্যারিস ট্রাউজারটি খুঁজে পান। পরে নিউ মেক্সিকো অঙ্গরাজ্যের ছোট এক শহরে সেটি বিক্রির জন্য নিলামে ওঠান তিনি।

ক্রেতারা বলেছেন, নিলাম শুরু হওয়ার আগ পর্যন্তও আমাদের জিন্সটি কেনার ইচ্ছা ছিল না। পেছনের দিকে তাকিয়ে এখন অনেকটা পাগলামোই মনে হচ্ছে গোটা ব্যাপারটিকে।

আদিকালের ছেঁড়াখোঁড়া একটি জিন্সের এত দাম ওঠার পেছনের মূল কারণ ইতিহাসের সঙ্গে এর সংশ্লিষ্টতা। ওই জিন্সের সঙ্গে জড়িয়ে আছে মার্কিন ইতিহাসের এক কালো অধ্যায়। ১৮৮২ সালে যুক্তরাষ্ট্রে ‘চাইনিজ এক্সক্লুশন অ্যাক্ট’ নামের এক আইন প্রণয়ন করা হয়। চীনা শ্রমিকদের দেশটিতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয় ওই আইনের মাধ্যমে। লিভাইসের ওই জিন্সের ভেতরের একটি পকেট দিচ্ছে ইতিহাসের সে পর্বের সাক্ষ্য। ছাপা অক্ষরে সেখানে লেখা রয়েছে, ‘শুধু শ্বেতাঙ্গদের শ্রমে তৈরি’।

এ প্রসঙ্গে লিভাইসের এক মুখপাত্র জানান, সরকার আইনটি প্রণয়নের পর লিভাইস এ ধরনের ঘোষণাসংবলিত জিন্স তৈরি করেছিল। কিন্তু পরে ১৮৯০ সালে ঘোষণা এবং নীতি দুটিই পাল্টে ফেলেন তাঁরা। তবে আইনটি বাতিল হয় অনেক পরে, ১৯৪৩ সালে।

লস অ্যাঞ্জেলেসের এক সেফ ডিপোজিট বাক্সে রাখা হয়েছে ইতিহাসের সাক্ষী ওই ছেঁড়াফাটা জিন্সটি। আগ্রহী ব্যক্তিগত সংগ্রাহক খুঁজছেন এর বর্তমান ক্রেতারা। তাঁদের পরিকল্পনা, এটি সে রকম উপযুক্ত কারো কাছে বিক্রির মাধ্যমে অনেক লোককে দেখানোর সুযোগ করে দেওয়া।