ঢাকা ১০:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

৩০ শতাংশ ভোট কখনোই সন্তোষজনক নয়: সিইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৮:৫৩:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪
  • / ৪২৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে ৩০ শতাংশের বেশি ভোট পড়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার–সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল। এসময় নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘৩০ শতাংশ ভোট কখনোই সন্তোষজনক নয়। একটা বড় দলের নির্বাচন বর্জন ভোটার উপস্থিতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে।’

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে নিজ কার্যালয়ের সামনে ভোটগ্রহণ শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সব কথা বলেন তিনি।

এসময় সিইসি বলেন, ‘শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। বিভিন্ন অনিয়মের ঘটনায় দিনব্যাপী ২৫ জনকে আটক করা হয়েছে, ১০ জনকে তাৎক্ষণিক কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। তবে, নির্বাচনে কোনো সহিংসতার ঘটনা ঘটেনি। হাতাহাতি হয়েছে। শান্তিপূর্ণভাবে ভোট হয়েছে।’

আজ সকাল ৮টায় শুরু হওয়া ভোট চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। দ্বিতীয় ধাপে ১৫৬ উপজেলায় ভোটগ্রহণ শেষে এখন চলছে ভোট গণনা। সকালে কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম থাকলেও পরে কিছুটা বাড়ে। নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে জোরদার করা হয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

১৫৬টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ শেষে চলছে গণনা। পছন্দের প্রার্থীকে বেছে নিতে সকাল থেকেই ভোটারদের লাইন দেখা যায়। সকালে কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ে ভোটার উপস্থিতি।

২৪টি উপজেলায় ইভিএমে এবং বাকিগুলোতে ভোট হয় ব্যালট পেপারে। দয়েক জেলায় বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ছাড়া মোটামুটি নির্বিঘ্নেই ভোট দেন ভোটাররা। ভোটের পরিবেশ নিয়ে কোনো অভিযোগ নেই প্রার্থীদেরও। নিবিঘ্ন ও শান্তিপূর্ণ ভোটের সব ব্যবস্থা আগে থেকেই নেয় নির্বাচন কমিশন। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে, প্রতিটি কেন্দ্রে জোরদার করা হয় নিরাপত্তা। ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে মোট ভোটার ৩ কোটি ৫২ লাখের বেশি।

এর আগে গত ৮ মে অনুষ্ঠিত ‘ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে ১৩৯ উপজেলা নির্বাচনে শতকরা ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছিল বলে জানিয়েছিল নির্বাচন কমিশন।

ওই সময় সিইসি জানায়, দুটি ভোটকেন্দ্র ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। নির্বাচনে ৩৪ ঘটনায় ২৫ জন আহত হয়। ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ ভোট কাস্টিং হতে পারে। ভোটার আরও হলে ভাল হতো।

নিউজটি শেয়ার করুন

৩০ শতাংশ ভোট কখনোই সন্তোষজনক নয়: সিইসি

আপডেট সময় : ০৮:৫৩:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে ৩০ শতাংশের বেশি ভোট পড়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার–সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল। এসময় নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘৩০ শতাংশ ভোট কখনোই সন্তোষজনক নয়। একটা বড় দলের নির্বাচন বর্জন ভোটার উপস্থিতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে।’

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে নিজ কার্যালয়ের সামনে ভোটগ্রহণ শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সব কথা বলেন তিনি।

এসময় সিইসি বলেন, ‘শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। বিভিন্ন অনিয়মের ঘটনায় দিনব্যাপী ২৫ জনকে আটক করা হয়েছে, ১০ জনকে তাৎক্ষণিক কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। তবে, নির্বাচনে কোনো সহিংসতার ঘটনা ঘটেনি। হাতাহাতি হয়েছে। শান্তিপূর্ণভাবে ভোট হয়েছে।’

আজ সকাল ৮টায় শুরু হওয়া ভোট চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। দ্বিতীয় ধাপে ১৫৬ উপজেলায় ভোটগ্রহণ শেষে এখন চলছে ভোট গণনা। সকালে কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম থাকলেও পরে কিছুটা বাড়ে। নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে জোরদার করা হয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

১৫৬টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ শেষে চলছে গণনা। পছন্দের প্রার্থীকে বেছে নিতে সকাল থেকেই ভোটারদের লাইন দেখা যায়। সকালে কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ে ভোটার উপস্থিতি।

২৪টি উপজেলায় ইভিএমে এবং বাকিগুলোতে ভোট হয় ব্যালট পেপারে। দয়েক জেলায় বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ছাড়া মোটামুটি নির্বিঘ্নেই ভোট দেন ভোটাররা। ভোটের পরিবেশ নিয়ে কোনো অভিযোগ নেই প্রার্থীদেরও। নিবিঘ্ন ও শান্তিপূর্ণ ভোটের সব ব্যবস্থা আগে থেকেই নেয় নির্বাচন কমিশন। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে, প্রতিটি কেন্দ্রে জোরদার করা হয় নিরাপত্তা। ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে মোট ভোটার ৩ কোটি ৫২ লাখের বেশি।

এর আগে গত ৮ মে অনুষ্ঠিত ‘ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে ১৩৯ উপজেলা নির্বাচনে শতকরা ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছিল বলে জানিয়েছিল নির্বাচন কমিশন।

ওই সময় সিইসি জানায়, দুটি ভোটকেন্দ্র ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। নির্বাচনে ৩৪ ঘটনায় ২৫ জন আহত হয়। ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ ভোট কাস্টিং হতে পারে। ভোটার আরও হলে ভাল হতো।