ঢাকা ০১:০৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

২ কিমি লম্বা ট্রেন বানিয়ে ইতিহাস তৈরি করল সুইজারল্যান্ড

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৫২:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩১ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৬৫ বার পড়া হয়েছে

ফাইল ছবি

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 
প্রকৌশলখাতের শক্তিমত্তা জানান দিতে দুই কিলোমিটার দীর্ঘ ট্রেন বানিয়ে ইতিহাস গড়েছে সুইজারল্যান্ড। আলপ্স পর্বতমালার ওপর দিয়ে ২৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েই রেকর্ড গড়ে ফেলেছে ট্রেনটি। এর আগে সবচেয়ে লম্বা যাত্রীবাহী ট্রেনের রেকর্ড ছিল বেলজিয়ামের দখলে।

যাত্রীবাহী এ ট্রেনের বগি ছিল ১০০টি। পরপর ১০০ বগির কারণে প্রায় দুই কিলোমিটার লম্বা ছিল ট্রেনটি। মূলত সুইস রেলওয়ের ১৭৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানকে স্মরণীয় করে রাখতে এমন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়।

দিবসটি উপলক্ষে শনিবার (২৯ অক্টোবর) প্রায় দুই কিলোমিটার লম্বা এই যাত্রীবাহী ট্রেনটি চালিয়েছে দেশটির রিহেটিয়ান রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। সাড়ে ৪ হাজার আসনের ট্রেনটিকে বিশ্বের সর্ববৃহৎ যাত্রীবাহী ট্রেন বলা হচ্ছে।

ইউনেসকো ঘোষিত বিশ্ব ঐতিহ্যর স্বীকৃতি পাওয়া পূর্ব সুইজারল্যান্ডের প্রেডা থেকে আলভ্যানিউ পর্যন্ত ২৫ কিলোমিটার রেলপথ পাড়ি দিতে ট্রেনটির সময় লেগেছে প্রায় এক ঘণ্টা। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রেডা ও আলভ্যানিউর উচ্চতা যথাক্রমে ১ হাজার ৭৮৮ মিটার ও ১ হাজার মিটার।

এক হাজার ৯১০ মিটার লম্বা ট্রেনটি যাত্রা পথে ২২টি টানেল ও গভীর উপত্যকার ওপর দিয়ে ৪৮টি সেতু পার হয়েছে। এ পথ পাড়ি দিতে ৭ জন চালক ও ২১ জন প্রকৌশলী এ ট্রেনের নেতৃত্বে ছিলেন।

প্রথম পরীক্ষায় ট্রেন থামানোর জন্য মূল চালক আন্দ্রেস ক্রামের (৪৬) অন্য চালকদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে ব্যর্থ হয়েছিলেন। পরে বিশেষ যোগাযোগব্যবস্থা চালু করে একই গতিতে ট্রেনটি পরিচালনায় সক্ষম হন চালকেরা। সূত্র: সিএনএন।

নিউজটি শেয়ার করুন

২ কিমি লম্বা ট্রেন বানিয়ে ইতিহাস তৈরি করল সুইজারল্যান্ড

আপডেট সময় : ০২:৫২:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩১ অক্টোবর ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 
প্রকৌশলখাতের শক্তিমত্তা জানান দিতে দুই কিলোমিটার দীর্ঘ ট্রেন বানিয়ে ইতিহাস গড়েছে সুইজারল্যান্ড। আলপ্স পর্বতমালার ওপর দিয়ে ২৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েই রেকর্ড গড়ে ফেলেছে ট্রেনটি। এর আগে সবচেয়ে লম্বা যাত্রীবাহী ট্রেনের রেকর্ড ছিল বেলজিয়ামের দখলে।

যাত্রীবাহী এ ট্রেনের বগি ছিল ১০০টি। পরপর ১০০ বগির কারণে প্রায় দুই কিলোমিটার লম্বা ছিল ট্রেনটি। মূলত সুইস রেলওয়ের ১৭৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানকে স্মরণীয় করে রাখতে এমন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়।

দিবসটি উপলক্ষে শনিবার (২৯ অক্টোবর) প্রায় দুই কিলোমিটার লম্বা এই যাত্রীবাহী ট্রেনটি চালিয়েছে দেশটির রিহেটিয়ান রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। সাড়ে ৪ হাজার আসনের ট্রেনটিকে বিশ্বের সর্ববৃহৎ যাত্রীবাহী ট্রেন বলা হচ্ছে।

ইউনেসকো ঘোষিত বিশ্ব ঐতিহ্যর স্বীকৃতি পাওয়া পূর্ব সুইজারল্যান্ডের প্রেডা থেকে আলভ্যানিউ পর্যন্ত ২৫ কিলোমিটার রেলপথ পাড়ি দিতে ট্রেনটির সময় লেগেছে প্রায় এক ঘণ্টা। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রেডা ও আলভ্যানিউর উচ্চতা যথাক্রমে ১ হাজার ৭৮৮ মিটার ও ১ হাজার মিটার।

এক হাজার ৯১০ মিটার লম্বা ট্রেনটি যাত্রা পথে ২২টি টানেল ও গভীর উপত্যকার ওপর দিয়ে ৪৮টি সেতু পার হয়েছে। এ পথ পাড়ি দিতে ৭ জন চালক ও ২১ জন প্রকৌশলী এ ট্রেনের নেতৃত্বে ছিলেন।

প্রথম পরীক্ষায় ট্রেন থামানোর জন্য মূল চালক আন্দ্রেস ক্রামের (৪৬) অন্য চালকদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে ব্যর্থ হয়েছিলেন। পরে বিশেষ যোগাযোগব্যবস্থা চালু করে একই গতিতে ট্রেনটি পরিচালনায় সক্ষম হন চালকেরা। সূত্র: সিএনএন।