ঢাকা ০৫:৫১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

হোসেনপুরের বৈঠাখালী সেতুটি ভেঙে পড়েছে

এ.কে.এম.মোহাম্মদ আলী, হোসেনপুর (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১২:২৮:২১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪৩২ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার পুমদী ইউনিযনের নারায়নডহর-নিমুখালী বাজার সড়কের পুমদি ইসলামীয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে বৈঠাখালী সেতুটি এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। সেতুর নীচে ভেঙ্গে গেছে দুই পাশে রেলিংও অনেক পুর্বে ভেঙ্গে পড়ে গেছে।

পিলারের পলেস্তরা ওঠে বেরিয়ে গেছে রড। যে কোনো সময় সেতুটি ভেঙে ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। যান চলাচলের বিকল্প কোনো রাস্তা না থাকায় ঝুঁকি নিয়ে সেতু দিয়েই যাতায়াত করছেন ১০/১২ গ্রামের হাজারো মানুষ।

প্রায় ৩ যুগ পুর্বে নির্মিত সেতুটি দিয়ে উপজেলার পুমদি ও গোবিন্দপুর ইউনিয়নের জনসাধারনের চলাচলের অত্যন্ত গুরত্বপূর্ণ রাস্তা হওয়ায় এটি পুনর্র্নিমাণের জন্য উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

সরেজমিনে, স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘ ৫ বছর যাবৎ আতঙ্ক-ভয় আর ঝুঁকি নিয়ে স্কুলের শিক্ষার্থীসহ প্রতিদিন হাজারো মানুষ ও যানবাহন চলাচল করছে। যে কোনো মুহূর্তে ভেঙে বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

পুমদি ইসলামীয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নয়ন মিয়া জানান, সহপাঠিদের নিয়ে সাইকেল চালিয়ে প্রতিদিন স্কুলে ভয় নিয়ে চলাচল করছি। স্থানীয় অ্যাডভোকেট মাহবুবুর রহমান বলেন, সেতুটির ওপর দিয়ে চলাচলের সময় ভয়ে থাকতে হয়, কখন যেন এটি ভেঙে পড়ে, এমন আশঙ্কা নিয়ে জেলা ও উপজেলা সদরে চলাচল করছেন বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

এ বিষয়ে হোসেনপুর উপজেলা প্রকৌশলী গালিব মুরর্শেদ জানান,সেতুটি পুর্ণনির্মানের জন্য টেন্ডার প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অনিদ্য মন্ডল জানান সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে ব্যাবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

হোসেনপুরের বৈঠাখালী সেতুটি ভেঙে পড়েছে

আপডেট সময় : ১২:২৮:২১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার পুমদী ইউনিযনের নারায়নডহর-নিমুখালী বাজার সড়কের পুমদি ইসলামীয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে বৈঠাখালী সেতুটি এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। সেতুর নীচে ভেঙ্গে গেছে দুই পাশে রেলিংও অনেক পুর্বে ভেঙ্গে পড়ে গেছে।

পিলারের পলেস্তরা ওঠে বেরিয়ে গেছে রড। যে কোনো সময় সেতুটি ভেঙে ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। যান চলাচলের বিকল্প কোনো রাস্তা না থাকায় ঝুঁকি নিয়ে সেতু দিয়েই যাতায়াত করছেন ১০/১২ গ্রামের হাজারো মানুষ।

প্রায় ৩ যুগ পুর্বে নির্মিত সেতুটি দিয়ে উপজেলার পুমদি ও গোবিন্দপুর ইউনিয়নের জনসাধারনের চলাচলের অত্যন্ত গুরত্বপূর্ণ রাস্তা হওয়ায় এটি পুনর্র্নিমাণের জন্য উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

সরেজমিনে, স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘ ৫ বছর যাবৎ আতঙ্ক-ভয় আর ঝুঁকি নিয়ে স্কুলের শিক্ষার্থীসহ প্রতিদিন হাজারো মানুষ ও যানবাহন চলাচল করছে। যে কোনো মুহূর্তে ভেঙে বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

পুমদি ইসলামীয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নয়ন মিয়া জানান, সহপাঠিদের নিয়ে সাইকেল চালিয়ে প্রতিদিন স্কুলে ভয় নিয়ে চলাচল করছি। স্থানীয় অ্যাডভোকেট মাহবুবুর রহমান বলেন, সেতুটির ওপর দিয়ে চলাচলের সময় ভয়ে থাকতে হয়, কখন যেন এটি ভেঙে পড়ে, এমন আশঙ্কা নিয়ে জেলা ও উপজেলা সদরে চলাচল করছেন বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

এ বিষয়ে হোসেনপুর উপজেলা প্রকৌশলী গালিব মুরর্শেদ জানান,সেতুটি পুর্ণনির্মানের জন্য টেন্ডার প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অনিদ্য মন্ডল জানান সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে ব্যাবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

 

বাখ//আর