ঢাকা ১২:৩৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

জন্মশতবর্ষ উদযাপন

হেনাদাস মনের চেতনাকে চিত্রিত করছেন বর্ণিল অবয়বে : উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা

মোঃ খাদেমুল ইসলাম, দিনাজপুর প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৬:২৪:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৬৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি ড. মারুফা বেগম বলেছেন, প্রয়াত সভাপতি হেনা দাস ছিলেন আজন্ম শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক যোদ্ধা। নারীর অধিকায় আদায়ে তার কণ্ঠ ছিল খুড়ধার। একাধারে শিক্ষা ও সংস্কৃতিকর জন্য তিনি লড়াই করেছেন। পাশাপাশি নারী মুক্তি, নারীর অধিকার আদায়ে আজীবন তিনি সংগ্রাম করেছেন। ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনসহ তার জীবদ্দশায় হওয়া বাঙালীর সবমুক্তি সংগ্রামে তিনি সক্রিয় চিলেন। হেনাদাস ছিলেন একটি প্রজন্মের বাতিঘর যে বাতিঘরের আলোক বর্তিকার পরিসরকে সীমাবদ্ধ করা মহাশক্তির কাছে অনিবার্য ভাবে অধরা।

তিনি আজ বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার আয়োজনে মহিলা পরিষদের প্রয়াত সভাপতি হেনা দাস এর জন্মশত বর্ষ উদযাপনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি আরো বলেন, হেনাদাস মনের চেতনাকে চিত্রিত করছেন বর্ণিল অবয়বে। তিনি ছিলেন প্রকৃত সাম্যবাদে দিক্ষিত একজন মানবী। ইতিহাসকে আরও সমৃদ্ধকরণে তিনি ছিলেন অবিসংবাদি নেতা। তিনি যে প্রজন্মকে প্রতিনিধিত্ব করেছেন আর আজকের যে প্রজন্ম তাদের মুল্যবোধের অনেক পরিবর্তন ঘটেছে। মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়ীকতাকে দমন করে নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হলে হেনা দাসের লেখা তরুন প্রজন্মকে পড়তে হবে। তাকে জানতে হবে। তার রেখে যাওয়া আন্দোলনকে এগিয়ে নিতে হবে। এগিয়ে নিতে হবে তার দেখানো দর্শনকে।

মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক রুবিনা আকতার এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সম্মানিত সদস্য কানিজ রহমান, সহ-সভাপতি মিনতী ঘোষ, সুমিত্রা বেশরা, সহ-সাধারন সম্পাদক রুবি আফরোজ, লিগ্যাল এইড সম্পাদক গৌরী চক্রবর্তী, সাংগঠনিক সম্পাদক রাজিয়া সুলতানা পলি, আন্দোলন সম্পাদক অনামিকা পান্ডে, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক কৃষ্ণা প্রিয়া মুরমু, সদস্য কবিজান, শিবানী উড়াও, রেহানা বেগম, তামজিদা পারভীন সীমা, সাবিহা বেগম, লিপা লাকড়াসহ জেলা ও পাড়া কমিটির সদস্যবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই জন্মশত বার্ষিকী’র উদ্বোধন উপলক্ষ্যে প্রয়াত সভাপতি হেনা দাসের প্রতিকৃতিতে পুষ্পপাল্য অর্পণ ও মমবাতী প্রজ্জ্বোলনের মধ্য দিয়ে কর্মসূচীর উদ্বোধন করা হয়।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

জন্মশতবর্ষ উদযাপন

হেনাদাস মনের চেতনাকে চিত্রিত করছেন বর্ণিল অবয়বে : উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা

আপডেট সময় : ০৬:২৪:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি ড. মারুফা বেগম বলেছেন, প্রয়াত সভাপতি হেনা দাস ছিলেন আজন্ম শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক যোদ্ধা। নারীর অধিকায় আদায়ে তার কণ্ঠ ছিল খুড়ধার। একাধারে শিক্ষা ও সংস্কৃতিকর জন্য তিনি লড়াই করেছেন। পাশাপাশি নারী মুক্তি, নারীর অধিকার আদায়ে আজীবন তিনি সংগ্রাম করেছেন। ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনসহ তার জীবদ্দশায় হওয়া বাঙালীর সবমুক্তি সংগ্রামে তিনি সক্রিয় চিলেন। হেনাদাস ছিলেন একটি প্রজন্মের বাতিঘর যে বাতিঘরের আলোক বর্তিকার পরিসরকে সীমাবদ্ধ করা মহাশক্তির কাছে অনিবার্য ভাবে অধরা।

তিনি আজ বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার আয়োজনে মহিলা পরিষদের প্রয়াত সভাপতি হেনা দাস এর জন্মশত বর্ষ উদযাপনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি আরো বলেন, হেনাদাস মনের চেতনাকে চিত্রিত করছেন বর্ণিল অবয়বে। তিনি ছিলেন প্রকৃত সাম্যবাদে দিক্ষিত একজন মানবী। ইতিহাসকে আরও সমৃদ্ধকরণে তিনি ছিলেন অবিসংবাদি নেতা। তিনি যে প্রজন্মকে প্রতিনিধিত্ব করেছেন আর আজকের যে প্রজন্ম তাদের মুল্যবোধের অনেক পরিবর্তন ঘটেছে। মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়ীকতাকে দমন করে নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হলে হেনা দাসের লেখা তরুন প্রজন্মকে পড়তে হবে। তাকে জানতে হবে। তার রেখে যাওয়া আন্দোলনকে এগিয়ে নিতে হবে। এগিয়ে নিতে হবে তার দেখানো দর্শনকে।

মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক রুবিনা আকতার এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সম্মানিত সদস্য কানিজ রহমান, সহ-সভাপতি মিনতী ঘোষ, সুমিত্রা বেশরা, সহ-সাধারন সম্পাদক রুবি আফরোজ, লিগ্যাল এইড সম্পাদক গৌরী চক্রবর্তী, সাংগঠনিক সম্পাদক রাজিয়া সুলতানা পলি, আন্দোলন সম্পাদক অনামিকা পান্ডে, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক কৃষ্ণা প্রিয়া মুরমু, সদস্য কবিজান, শিবানী উড়াও, রেহানা বেগম, তামজিদা পারভীন সীমা, সাবিহা বেগম, লিপা লাকড়াসহ জেলা ও পাড়া কমিটির সদস্যবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই জন্মশত বার্ষিকী’র উদ্বোধন উপলক্ষ্যে প্রয়াত সভাপতি হেনা দাসের প্রতিকৃতিতে পুষ্পপাল্য অর্পণ ও মমবাতী প্রজ্জ্বোলনের মধ্য দিয়ে কর্মসূচীর উদ্বোধন করা হয়।

 

বাখ//আর