ঢাকা ০৬:১২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

হুমকির মুখে তুরস্ক চুপ থাকতে পারে না: এরদোয়ান

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৪২:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০২২
  • / ৪৪৮ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান বলেন, ক্রমবর্ধমান সন্ত্রাসী হুমকির মুখে তার দেশ কোনওভাবেই চুপ করে থাকতে পারে না।

মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) তুর্কমেনিস্তানে যাওয়ার প্রাক্কালে রাজধানী আঙ্কারায় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এমন মন্তব্য করেন তিনি। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এজেন্সি।

এরদোয়ান বলেন, উত্তর সিরিয়া থেকে শুরু হওয়া সন্ত্রাসী হামলার বিষয়ে আঙ্কারার পক্ষে চুপ থাকা সম্ভব নয়।

এ ধরনের সন্ত্রাসী হামলার হুমকি দূর করতে সীমান্ত পেরিয়ে উত্তর সিরিয়ায় আঙ্কারার সম্ভাব্য স্থল অভিযানের অবশ্য কোনও দিনক্ষণের কথা জানাননি তিনি। তবে বলেছেন, তুরস্ক কখনও সন্ত্রাসী হামলার বিষয়ে আপোস করবে না।

এ বিষয়ে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গেও কথা হয়েছে তার।
এরদোয়ান বলেন, আমি তাকে (পুতিনকে) আবারও মনে করিয়ে দিয়েছি যে, সোচি চুক্তিতে আমরা যে লক্ষ্যে পৌঁছেছি সেটি স্পষ্ট।

আঙ্কারা ও মস্কোর মধ্যে ২০১৯ সালে স্বাক্ষরিত ওই চুক্তি অনুযায়ী, কুর্দি সশস্ত্র গোষ্ঠী ওয়াইপিজি/পিকেকে-এর মিলিশিয়ারা সিরিয়ার তুর্কিয়ে সীমান্ত থেকে ৩০ কিলোমিটার দক্ষিণে ফিরে যাবে। তবে আঙ্কারা বলছে, মস্কোর সঙ্গে এ নিয়ে চুক্তি হলেও শেষ পর্যন্ত সেটি বাস্তবায়িত হয়নি।

এরদোয়ান বলেন, দুর্ভাগ্যবশত আমরা সন্ত্রাসীদের কাছ থেকে হুমকির মুখে রয়েছি এবং সম্প্রতি এটি জোরালোভাবে বেড়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

হুমকির মুখে তুরস্ক চুপ থাকতে পারে না: এরদোয়ান

আপডেট সময় : ১২:৪২:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান বলেন, ক্রমবর্ধমান সন্ত্রাসী হুমকির মুখে তার দেশ কোনওভাবেই চুপ করে থাকতে পারে না।

মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) তুর্কমেনিস্তানে যাওয়ার প্রাক্কালে রাজধানী আঙ্কারায় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এমন মন্তব্য করেন তিনি। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এজেন্সি।

এরদোয়ান বলেন, উত্তর সিরিয়া থেকে শুরু হওয়া সন্ত্রাসী হামলার বিষয়ে আঙ্কারার পক্ষে চুপ থাকা সম্ভব নয়।

এ ধরনের সন্ত্রাসী হামলার হুমকি দূর করতে সীমান্ত পেরিয়ে উত্তর সিরিয়ায় আঙ্কারার সম্ভাব্য স্থল অভিযানের অবশ্য কোনও দিনক্ষণের কথা জানাননি তিনি। তবে বলেছেন, তুরস্ক কখনও সন্ত্রাসী হামলার বিষয়ে আপোস করবে না।

এ বিষয়ে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গেও কথা হয়েছে তার।
এরদোয়ান বলেন, আমি তাকে (পুতিনকে) আবারও মনে করিয়ে দিয়েছি যে, সোচি চুক্তিতে আমরা যে লক্ষ্যে পৌঁছেছি সেটি স্পষ্ট।

আঙ্কারা ও মস্কোর মধ্যে ২০১৯ সালে স্বাক্ষরিত ওই চুক্তি অনুযায়ী, কুর্দি সশস্ত্র গোষ্ঠী ওয়াইপিজি/পিকেকে-এর মিলিশিয়ারা সিরিয়ার তুর্কিয়ে সীমান্ত থেকে ৩০ কিলোমিটার দক্ষিণে ফিরে যাবে। তবে আঙ্কারা বলছে, মস্কোর সঙ্গে এ নিয়ে চুক্তি হলেও শেষ পর্যন্ত সেটি বাস্তবায়িত হয়নি।

এরদোয়ান বলেন, দুর্ভাগ্যবশত আমরা সন্ত্রাসীদের কাছ থেকে হুমকির মুখে রয়েছি এবং সম্প্রতি এটি জোরালোভাবে বেড়েছে।