ঢাকা ০৪:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

হারিয়ে যাওয়া ৩০ হাজার নথি উদ্ধার হয়েছে: হাইকোর্টকে রাজউক

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৪৮:০৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ মে ২০২৩
  • / ৪৪৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) হারিয়ে যাওয়া ২৬ হাজার ৭৭৭ নথি উদ্ধার হয়েছে বলে হাইকোর্টকে জানিয়েছে রাজউক।

মঙ্গলবার (২ মে) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদারের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে এ তথ্য জানিয়েছে রাজউকের আইনজীবী ইমাম হাসান।

তিনি আদালতকে জানান, হ্যাকাররা সার্ভার থেকে নথি হ্যাক করেছিল।

পরে অ্যাড. ইমাম হাসান চ্যানেল 24 কে বলেন, ২০১৯ সালের মে মাস থেকে টেকনো হ্যাভেন কোম্পানি লিমিটেডকে আমাদের ভূমি সংক্রান্ত নথি অনলাইন সিস্টেম করার জন্যে দায়িত্ব দেয়া হয়। তারা আমাদের সফটওয়্যার দিয়েছে এবং সব কিছু মেইনটেইন করে আসছে।

কিন্তু বাংলাদেশ এবং ইন্দোনেশিয়া থেকে ২ জন হ্যাকার সফটওয়্যার থেকে ৩০ হাজার নথি হ্যাক করে আমাদের সব ডেটা মুছে ফেলে। এটি ডিটেক্ট করার পরেই সব তথ্য আবার রিকভার করা হয়। ভবিষ্যতে যেন এমন না হয় সেকারণে রাজউকের পক্ষ থেকে বুয়েটকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে এই বিষয়ে আরও অনুসন্ধ্যান করা হচ্ছে।

এর আগে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) সার্ভার থেকে প্রায় ৩০ হাজার গ্রাহকের নথি গায়েব হয়ে যাওয়ার ঘটনায় রাজউকের ব্যাখ্যা চান হাইকোর্ট।

গত ২৯ ডিসেম্বর একটি জাতীয় দৈনিকে রাজউক থেকে ৩০ হাজার নথি গায়েব শীর্ষক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) সার্ভার থেকে ভবন নির্মাণের অনুমোদন-সংক্রান্ত প্রায় ৩০ হাজার গ্রাহকের আবেদনের নথিপত্র গায়েব হয়ে গেছে। ৬ ডিসেম্বর বিষয়টি প্রথম জানতে পারে রাজউক।

নিউজটি শেয়ার করুন

হারিয়ে যাওয়া ৩০ হাজার নথি উদ্ধার হয়েছে: হাইকোর্টকে রাজউক

আপডেট সময় : ০১:৪৮:০৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ মে ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) হারিয়ে যাওয়া ২৬ হাজার ৭৭৭ নথি উদ্ধার হয়েছে বলে হাইকোর্টকে জানিয়েছে রাজউক।

মঙ্গলবার (২ মে) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদারের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে এ তথ্য জানিয়েছে রাজউকের আইনজীবী ইমাম হাসান।

তিনি আদালতকে জানান, হ্যাকাররা সার্ভার থেকে নথি হ্যাক করেছিল।

পরে অ্যাড. ইমাম হাসান চ্যানেল 24 কে বলেন, ২০১৯ সালের মে মাস থেকে টেকনো হ্যাভেন কোম্পানি লিমিটেডকে আমাদের ভূমি সংক্রান্ত নথি অনলাইন সিস্টেম করার জন্যে দায়িত্ব দেয়া হয়। তারা আমাদের সফটওয়্যার দিয়েছে এবং সব কিছু মেইনটেইন করে আসছে।

কিন্তু বাংলাদেশ এবং ইন্দোনেশিয়া থেকে ২ জন হ্যাকার সফটওয়্যার থেকে ৩০ হাজার নথি হ্যাক করে আমাদের সব ডেটা মুছে ফেলে। এটি ডিটেক্ট করার পরেই সব তথ্য আবার রিকভার করা হয়। ভবিষ্যতে যেন এমন না হয় সেকারণে রাজউকের পক্ষ থেকে বুয়েটকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে এই বিষয়ে আরও অনুসন্ধ্যান করা হচ্ছে।

এর আগে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) সার্ভার থেকে প্রায় ৩০ হাজার গ্রাহকের নথি গায়েব হয়ে যাওয়ার ঘটনায় রাজউকের ব্যাখ্যা চান হাইকোর্ট।

গত ২৯ ডিসেম্বর একটি জাতীয় দৈনিকে রাজউক থেকে ৩০ হাজার নথি গায়েব শীর্ষক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) সার্ভার থেকে ভবন নির্মাণের অনুমোদন-সংক্রান্ত প্রায় ৩০ হাজার গ্রাহকের আবেদনের নথিপত্র গায়েব হয়ে গেছে। ৬ ডিসেম্বর বিষয়টি প্রথম জানতে পারে রাজউক।