ঢাকা ০৮:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় নিকট অতীতের ইতিহাস সুখকর নয়: ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০২:২৭:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪৭৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় নিকট অতীতের ইতিহাস সুখকর নয়। ৩ মাস আগের আমদানি করা যন্ত্র এখনো ব্যবহার করা হয়নি। দেশের স্বাস্থ্য খাতে সংকট আছে, তবে তা নিরসনে সরকার সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছে। এসময় সবাইকে নিজ নিজ জায়গা থেকে স্বচ্ছভাবে কাজ করার আহবানও জানান তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার (৪ঠা এপ্রিল) বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দলের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা উপ-কমিটির আলোচনা সভায় তিনি এই কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন আছে। মহামারীর সময় আমাদের দুর্বলতা স্পষ্ট হয়েছে। তাই একটি বড় ও আধুনিক হাসপাতাল করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে। এটির খুব প্রয়োজন, জটিল রোগের জন্য বাইরে দৌঁড়াতে হয়।

তিনি বলেন, মফস্বলের কোন কোন হাসপাতাল দেখলে মনে হয় এটা আস্তাবল। ডাক্তার থাকলে ওষুধ নাই, ওষুধ আছেতো ডাক্তার নাই। আইসিইউ নাই। রোগী হাসপাতালে নিতে নিতে মারা যাবে। স্বাস্থ্য খাতকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছে সরকার।

নিউজটি শেয়ার করুন

স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় নিকট অতীতের ইতিহাস সুখকর নয়: ওবায়দুল কাদের

আপডেট সময় : ০২:২৭:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল ২০২৪

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় নিকট অতীতের ইতিহাস সুখকর নয়। ৩ মাস আগের আমদানি করা যন্ত্র এখনো ব্যবহার করা হয়নি। দেশের স্বাস্থ্য খাতে সংকট আছে, তবে তা নিরসনে সরকার সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছে। এসময় সবাইকে নিজ নিজ জায়গা থেকে স্বচ্ছভাবে কাজ করার আহবানও জানান তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার (৪ঠা এপ্রিল) বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দলের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা উপ-কমিটির আলোচনা সভায় তিনি এই কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন আছে। মহামারীর সময় আমাদের দুর্বলতা স্পষ্ট হয়েছে। তাই একটি বড় ও আধুনিক হাসপাতাল করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে। এটির খুব প্রয়োজন, জটিল রোগের জন্য বাইরে দৌঁড়াতে হয়।

তিনি বলেন, মফস্বলের কোন কোন হাসপাতাল দেখলে মনে হয় এটা আস্তাবল। ডাক্তার থাকলে ওষুধ নাই, ওষুধ আছেতো ডাক্তার নাই। আইসিইউ নাই। রোগী হাসপাতালে নিতে নিতে মারা যাবে। স্বাস্থ্য খাতকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছে সরকার।