ঢাকা ১০:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

স্পর্শকাতর স্থানে গুঁতো মেরে ১২ ম্যাচ নিষিদ্ধ রেফারি (ভিডিও)

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৩৪:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৪৪৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ক্রীড়া ডেস্ক:খেলার মাঠে শৃঙ্খলাবিরোধী কাজ করলে ফুটবলারকে নিষিদ্ধ করতে হরহামেশাই দেখা যায়। সে হিসেবে রেফারি নিষিদ্ধের ঘটনা তুলনামূলক বিরলই বলা চলে। তেমনই এক বিরল ঘটনা ঘটেছে মেক্সিকোর এক ক্লাব ফুটবলে। ফুটবলারের স্পর্শকাতর স্থানে হাঁটু দিয়ে গুঁতো মেরে নিষিদ্ধ হয়েছেন ম্যাচ পরিচালনাকারী রেফারি ফার্নান্দো হার্নান্দেজ। তাও এক দু’ম্যাচ নয়, ১২ ম্যাচ।

গত শনিবার (১ এপ্রিল) মেক্সিকোর অ্যাজটেকা স্টেডিয়ামে। এমএক্স টুর্নামেন্টে এদিন ক্লাব আমেরিকা ও লিওনের ম্যাচ পরিচালনা দায়িত্ব বর্তায় ফার্নান্দো হার্নান্দেজের ওপর। প্রথমার্ধের শেষের দিকে আলফোনসো আলভারাদোর গোলে ১-০ তে এগিয়ে যায় লিও।

বিরতির পর ম্যাচের ৬৪তম মিনিটে দিয়েগো ভালদেস কন্ত্রেরাসের গোলে সমতায় ফেরে আমেরিকা। এই গোল নিয়েই বাধে যত বিপত্তি। লিওর ফুটবলাররা রেফারি হার্নান্দেজের কাছে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) দাবি করেন। যার ফলে রেফারি হলুদ কার্ড দেখান লিওনের ডিফেন্ডার স্টিভেন বারেইরোকে।

রেফারির এই সিদ্ধান্ত পছন্দ হয়নি বারেইরোর আর্জেন্টাইন সতীর্থ মিডফিল্ডার লুকাস রোমেরোর। রেফারির মুখের ওপর গিয়ে এ সিদ্ধান্তের কড়া প্রতিবাদ জানান রোমেরো।

একপর্যায়ে রেফারি ফার্নান্দো ক্ষিপ্ত হয়ে হাঁটু দিয়ে রোমেরোকে গুঁতো মেরে বসেন। সঙ্গে সঙ্গে মাঠে শুয়ে পড়েন রোমেরো। আর মুহূর্তের মধ্যেই রেফারি কর্তৃক খেলোয়াড়কে আঘাত করার ফুটেজ খুব দ্রুত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। তাৎক্ষণিক শাস্তি না পেলেও ঘটনার তদন্তে কমিটি গঠন করে মেক্সিকান ফুটবল ফেডারেশন (এফএমএফ)। তদন্তের পরিপ্রেক্ষিতে এবার রেফারি ফার্নান্দোকে ‘খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে হিংস্র আচরণ’–এর দায়ে ১২ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা আর খেলোয়াড় রোমেরো নিষিদ্ধ হয়েছেন ২ ম্যাচের জন্য।- গোলডটকম

শুধু রেফারি এবং খেলোয়াড়ই নয়, ম্যাচে হিংসা ছড়ানোর দায়ে দুই দলের কোচদেরও ২ ম্যাচ করে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। মেক্সিকান লিগে এবং উত্তপ্ত ম্যাচে দুই দলের প্রধান কোচ ফার্নান্দো ওরটিজ এবং নিকোলাস লারকামনকে খেলার সময় টাচলাইনে একে অপরের সঙ্গে হাতাহাতির জন্য লাল কার্ড দেখান রেফারি। লিগে লিও এবং আমেরিকা যথাক্রমে তৃতীয় এবং চতুর্থ স্থানে রয়েছে।

এদিকে নিজের কাজের জন্য হার্নান্দেজ পরে ক্ষমা চেয়েছেন। মেক্সিকান রেফারি বলেন, আমি আমার কাজের জন্য ভক্ত, জনগণ ও রোমেরোর কাছে ক্ষমা চাচ্ছি। আমি তাকে অথবা কাউকে আক্রমণ করতাম না। এই ব্যাপার নিয়ে আমি সচেতন এবং ডিসিপ্লিনারি কমিশনের নিয়ম মেনে চলব। অন্যদিকে রোমেরো বলেছেন, রেফারিরা অবশ্যই মানুষ। অনেক সময় তারাও ভুল করেন। ভুল বোঝাবুঝিতে এসব হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

স্পর্শকাতর স্থানে গুঁতো মেরে ১২ ম্যাচ নিষিদ্ধ রেফারি (ভিডিও)

আপডেট সময় : ০১:৩৪:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ এপ্রিল ২০২৩

ক্রীড়া ডেস্ক:খেলার মাঠে শৃঙ্খলাবিরোধী কাজ করলে ফুটবলারকে নিষিদ্ধ করতে হরহামেশাই দেখা যায়। সে হিসেবে রেফারি নিষিদ্ধের ঘটনা তুলনামূলক বিরলই বলা চলে। তেমনই এক বিরল ঘটনা ঘটেছে মেক্সিকোর এক ক্লাব ফুটবলে। ফুটবলারের স্পর্শকাতর স্থানে হাঁটু দিয়ে গুঁতো মেরে নিষিদ্ধ হয়েছেন ম্যাচ পরিচালনাকারী রেফারি ফার্নান্দো হার্নান্দেজ। তাও এক দু’ম্যাচ নয়, ১২ ম্যাচ।

গত শনিবার (১ এপ্রিল) মেক্সিকোর অ্যাজটেকা স্টেডিয়ামে। এমএক্স টুর্নামেন্টে এদিন ক্লাব আমেরিকা ও লিওনের ম্যাচ পরিচালনা দায়িত্ব বর্তায় ফার্নান্দো হার্নান্দেজের ওপর। প্রথমার্ধের শেষের দিকে আলফোনসো আলভারাদোর গোলে ১-০ তে এগিয়ে যায় লিও।

বিরতির পর ম্যাচের ৬৪তম মিনিটে দিয়েগো ভালদেস কন্ত্রেরাসের গোলে সমতায় ফেরে আমেরিকা। এই গোল নিয়েই বাধে যত বিপত্তি। লিওর ফুটবলাররা রেফারি হার্নান্দেজের কাছে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) দাবি করেন। যার ফলে রেফারি হলুদ কার্ড দেখান লিওনের ডিফেন্ডার স্টিভেন বারেইরোকে।

রেফারির এই সিদ্ধান্ত পছন্দ হয়নি বারেইরোর আর্জেন্টাইন সতীর্থ মিডফিল্ডার লুকাস রোমেরোর। রেফারির মুখের ওপর গিয়ে এ সিদ্ধান্তের কড়া প্রতিবাদ জানান রোমেরো।

একপর্যায়ে রেফারি ফার্নান্দো ক্ষিপ্ত হয়ে হাঁটু দিয়ে রোমেরোকে গুঁতো মেরে বসেন। সঙ্গে সঙ্গে মাঠে শুয়ে পড়েন রোমেরো। আর মুহূর্তের মধ্যেই রেফারি কর্তৃক খেলোয়াড়কে আঘাত করার ফুটেজ খুব দ্রুত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। তাৎক্ষণিক শাস্তি না পেলেও ঘটনার তদন্তে কমিটি গঠন করে মেক্সিকান ফুটবল ফেডারেশন (এফএমএফ)। তদন্তের পরিপ্রেক্ষিতে এবার রেফারি ফার্নান্দোকে ‘খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে হিংস্র আচরণ’–এর দায়ে ১২ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা আর খেলোয়াড় রোমেরো নিষিদ্ধ হয়েছেন ২ ম্যাচের জন্য।- গোলডটকম

শুধু রেফারি এবং খেলোয়াড়ই নয়, ম্যাচে হিংসা ছড়ানোর দায়ে দুই দলের কোচদেরও ২ ম্যাচ করে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। মেক্সিকান লিগে এবং উত্তপ্ত ম্যাচে দুই দলের প্রধান কোচ ফার্নান্দো ওরটিজ এবং নিকোলাস লারকামনকে খেলার সময় টাচলাইনে একে অপরের সঙ্গে হাতাহাতির জন্য লাল কার্ড দেখান রেফারি। লিগে লিও এবং আমেরিকা যথাক্রমে তৃতীয় এবং চতুর্থ স্থানে রয়েছে।

এদিকে নিজের কাজের জন্য হার্নান্দেজ পরে ক্ষমা চেয়েছেন। মেক্সিকান রেফারি বলেন, আমি আমার কাজের জন্য ভক্ত, জনগণ ও রোমেরোর কাছে ক্ষমা চাচ্ছি। আমি তাকে অথবা কাউকে আক্রমণ করতাম না। এই ব্যাপার নিয়ে আমি সচেতন এবং ডিসিপ্লিনারি কমিশনের নিয়ম মেনে চলব। অন্যদিকে রোমেরো বলেছেন, রেফারিরা অবশ্যই মানুষ। অনেক সময় তারাও ভুল করেন। ভুল বোঝাবুঝিতে এসব হয়।