ঢাকা ০৯:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

স্ত্রী কালো বলে ফর্সা বউ নিয়ে ঘরে ঢুকলেন স্বামী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৩৮:৫৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৬৮ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

দীর্ঘ ৩ বছরের সংসার তাদের। তবে এত দীর্ঘ সময় পরে হঠাৎ করেই স্বামীর মনে হয়েছে, স্ত্রীর সঙ্গে তিনি আর সংসার করতে পারবেন না। কারণ হিসেবে বলছেন, স্ত্রীর গায়ের রং কালো! তাই দ্বিতীয় বিয়ে করে প্রথম স্ত্রীকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগও উঠেছে তার বিরুদ্ধে।ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পুরুলিয়ায়। এ ঘটনায় স্থানীয় পুলিশের কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ওই গৃহবধু।

ভারতীয় একাধিক গনমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, তিন বছর আগে আড়ষা এলাকার এক তরুণীর সঙ্গে বিয়ে হয় পুরুলিয়ার ঘাঘরজুড়ির বাসিন্দা রাজু মাহাতোর। বিয়ের সময় ওই তরুণীর পরিবার তাকে যৌতুক হিসেবে নগদ ৮৫ হাজার টাকা দিয়েছিল। আরও দেওয়া হয় সোনা ও রুপার গয়না।অভিযোগ উঠেছে, স্ত্রী কালো বলে তার সঙ্গে আর থাকতে চান স্বামী রাজু। অন্য একজনকেও বিয়ে করেছেন তিনি। আর নতুন স্ত্রীর জন্য প্রথম স্ত্রীকে বাড়ি থেকেও তাড়িয়ে দিয়েছেনজএ ঘটনায় স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ির ছয় জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই গৃহবধূ। তিনি বলেন, আমার স্বামী আমাকে এখন বলেন, তোকে আমার চয়েস নাই। তাই আমি রাখব না। শ্বশুর-শাশুড়িও বলছেন, আমরা তোমার দায়িত্ব নিতে পারব না। তুমি এখান থেকে চলে যাও।

ভুক্তভোগী নারী আরো জানান, আমার বাবা নেই। বাড়িতেও অনেক অভাব। আমার ভাইয়েরা আমাকে সারা জীবন রাখতে পারবে না। স্বামীর ঘর থেকে বিতাড়িত হওয়া ওই গৃহবধূ বলেন, বিয়ের পর থেকেই রাজু আরও টাকার দাবি করে। টাকা না দিতে পারায় আমার ওপর অত্যাচার চলত। আমার ভাইয়ের কাছ থেকেও কাজে যাওয়ার নাম করে টাকা নিয়েছে। এ বিষয়ে পুরুলিয়ার পুলিশ সুপার এস সেলভামুরুগন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

স্ত্রী কালো বলে ফর্সা বউ নিয়ে ঘরে ঢুকলেন স্বামী

আপডেট সময় : ০৬:৩৮:৫৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 

দীর্ঘ ৩ বছরের সংসার তাদের। তবে এত দীর্ঘ সময় পরে হঠাৎ করেই স্বামীর মনে হয়েছে, স্ত্রীর সঙ্গে তিনি আর সংসার করতে পারবেন না। কারণ হিসেবে বলছেন, স্ত্রীর গায়ের রং কালো! তাই দ্বিতীয় বিয়ে করে প্রথম স্ত্রীকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগও উঠেছে তার বিরুদ্ধে।ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পুরুলিয়ায়। এ ঘটনায় স্থানীয় পুলিশের কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ওই গৃহবধু।

ভারতীয় একাধিক গনমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, তিন বছর আগে আড়ষা এলাকার এক তরুণীর সঙ্গে বিয়ে হয় পুরুলিয়ার ঘাঘরজুড়ির বাসিন্দা রাজু মাহাতোর। বিয়ের সময় ওই তরুণীর পরিবার তাকে যৌতুক হিসেবে নগদ ৮৫ হাজার টাকা দিয়েছিল। আরও দেওয়া হয় সোনা ও রুপার গয়না।অভিযোগ উঠেছে, স্ত্রী কালো বলে তার সঙ্গে আর থাকতে চান স্বামী রাজু। অন্য একজনকেও বিয়ে করেছেন তিনি। আর নতুন স্ত্রীর জন্য প্রথম স্ত্রীকে বাড়ি থেকেও তাড়িয়ে দিয়েছেনজএ ঘটনায় স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ির ছয় জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই গৃহবধূ। তিনি বলেন, আমার স্বামী আমাকে এখন বলেন, তোকে আমার চয়েস নাই। তাই আমি রাখব না। শ্বশুর-শাশুড়িও বলছেন, আমরা তোমার দায়িত্ব নিতে পারব না। তুমি এখান থেকে চলে যাও।

ভুক্তভোগী নারী আরো জানান, আমার বাবা নেই। বাড়িতেও অনেক অভাব। আমার ভাইয়েরা আমাকে সারা জীবন রাখতে পারবে না। স্বামীর ঘর থেকে বিতাড়িত হওয়া ওই গৃহবধূ বলেন, বিয়ের পর থেকেই রাজু আরও টাকার দাবি করে। টাকা না দিতে পারায় আমার ওপর অত্যাচার চলত। আমার ভাইয়ের কাছ থেকেও কাজে যাওয়ার নাম করে টাকা নিয়েছে। এ বিষয়ে পুরুলিয়ার পুলিশ সুপার এস সেলভামুরুগন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।