ঢাকা ০২:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সৌদি ও ইউএই’র নেতৃত্বে তেল উৎপাদন হ্রাসের পদক্ষেপ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:২১:২৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৪৪৮ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত রোববার মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর সমন্বিত তেল উৎপাদন হ্রাসে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। তারা এটিকে বাজারের স্থিতিশীলতার লক্ষে একটি ‘সতর্কতামূলক ব্যবস্থা’ হিসেবে অভিহিত করে। উপসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত সবচেয়ে বেশি জ্বালানি তেল উৎপাদন করে থাকে। খবর এএফপি’র।
সরকারি সংবাদ মাধ্যমে দেওয়া বিবৃতিতে তারা জানায়, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও কুয়েত প্রতিদিন মোট ৭৭২,০০০ ব্যারেল তেল উৎপাদন হ্রাস করবে। এ পদক্ষেপ আগামী মে মাস থেকে কার্যকর হবে এবং তা চলতি বছরের বাকি সময় ধরে চলবে।
ইরাক এটি অনুসরণ করার কথা জানিয়েছে। আলজেরিয়াও বেধে দেওয়া ওই সময় ধরে প্রতিদিন ৪৮ ব্যারেল তেল উৎপাদন কমানোর ঘোষণা দিয়েছে।
সরকারি সৌদি প্রেস এজেন্সি জানায়, সৌদি জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জোরদিয়ে বলেন, ‘তেলের বাজারে স্থিতিশীলতা বজায় রাখার লক্ষে এটি একটি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা।’
ওই এজেন্সির প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রতিদিন ২০ লাখ ব্যারেল তেল উৎপাদন কমানোর ব্যাপারে শীর্ষ তেল সংস্থা ওপেকের বিতর্কিত সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে এ হ্রাসের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়।
বাজার পরিস্থিতির ব্যাপারে উদ্বেগ থাকা সত্ত্বেও এই তেল উৎপাদন হ্রাস মূল্যস্ফীতিকে আরো বাড়িয়ে তুলতে পারে এবং এতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সুদের হার আরো বাড়ানো হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

সৌদি ও ইউএই’র নেতৃত্বে তেল উৎপাদন হ্রাসের পদক্ষেপ

আপডেট সময় : ০১:২১:২৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ এপ্রিল ২০২৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত রোববার মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর সমন্বিত তেল উৎপাদন হ্রাসে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। তারা এটিকে বাজারের স্থিতিশীলতার লক্ষে একটি ‘সতর্কতামূলক ব্যবস্থা’ হিসেবে অভিহিত করে। উপসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত সবচেয়ে বেশি জ্বালানি তেল উৎপাদন করে থাকে। খবর এএফপি’র।
সরকারি সংবাদ মাধ্যমে দেওয়া বিবৃতিতে তারা জানায়, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও কুয়েত প্রতিদিন মোট ৭৭২,০০০ ব্যারেল তেল উৎপাদন হ্রাস করবে। এ পদক্ষেপ আগামী মে মাস থেকে কার্যকর হবে এবং তা চলতি বছরের বাকি সময় ধরে চলবে।
ইরাক এটি অনুসরণ করার কথা জানিয়েছে। আলজেরিয়াও বেধে দেওয়া ওই সময় ধরে প্রতিদিন ৪৮ ব্যারেল তেল উৎপাদন কমানোর ঘোষণা দিয়েছে।
সরকারি সৌদি প্রেস এজেন্সি জানায়, সৌদি জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জোরদিয়ে বলেন, ‘তেলের বাজারে স্থিতিশীলতা বজায় রাখার লক্ষে এটি একটি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা।’
ওই এজেন্সির প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রতিদিন ২০ লাখ ব্যারেল তেল উৎপাদন কমানোর ব্যাপারে শীর্ষ তেল সংস্থা ওপেকের বিতর্কিত সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে এ হ্রাসের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়।
বাজার পরিস্থিতির ব্যাপারে উদ্বেগ থাকা সত্ত্বেও এই তেল উৎপাদন হ্রাস মূল্যস্ফীতিকে আরো বাড়িয়ে তুলতে পারে এবং এতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সুদের হার আরো বাড়ানো হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।