ঢাকা ০১:২১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সেনবাগে তুচ্ছ ঘটনার জেরে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্য! আটক-৩

নোয়াখালী প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১২:১৯:২৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৭৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার ৮নং বীজবাগ ইউপির ৯নং ওয়ার্ড দক্ষিণ বালিয়াকান্দি গ্রামের কবির মাষ্টারের বাড়িতে তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে খুরশিদ আলম (৫৮) নামের এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ ওঠেছে একই বাড়ির জেঠা ও জেঠাতো ভাইদের বিরুদ্ধে। ওই ঘটনাটি মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে উপজেলার দক্ষিন বালিয়াকান্দি গ্রামের কবির মাষ্টারের বাড়িতে।

পুলিশ শহীদ উল্লাহ (৬৫) তার ছেল অলি উল্লা (৩০) ও ছেলের বউ ফোরকানের নেছা (৩৩) কে আটক করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী খাজা মাইন উদ্দিন জানায়, সোমবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় শহীদ উল্লাহ তার ছেলেরা তাদের টয়লেটের সেফটি টেংক পরীস্কার করে ওই ময়লা গুলো নিহত খুরশিদ আলমের বসতঘরের কাছে ফেলে দেয়। এরপর মঙ্গলবার সকালে খুরশিদ আলম দুর্গন্ধ পেয়ে ঘরের বাহিরে গিয়ে ময়লা দেখে বকাঝকা করলে এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে তুমুল বাক বিতন্ডার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে জেঠা শহীদ উল্লাহ ও তার ছেলে সোহাগ, সুমন, হিমেল বাবু একত্রিত হয়ে খুরশিদ আলমের পরিবারের ওপর এলোপাথাড়ী হামলা চালায়। এতে লাঠির আঘাতে খুরশিদ আলম ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

খবর পেয়ে সেনবাগ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য থানায় নিয়ে আসে এবং দুপুর ২টার দিকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। এ হত্যা কান্ডের ঘটনায় নিহতের ছেলে পলাশ বাদি হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়েরে প্রস্তুতি চলছে।

যোগাযোগ করলে সেনবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ নাজিম উদ্দিন ঘটনার সত্যাতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে। মামলার দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। আটককৃতদের বিচারিক আদালতে প্রেরণ করা হবে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

সেনবাগে তুচ্ছ ঘটনার জেরে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্য! আটক-৩

আপডেট সময় : ১২:১৯:২৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার ৮নং বীজবাগ ইউপির ৯নং ওয়ার্ড দক্ষিণ বালিয়াকান্দি গ্রামের কবির মাষ্টারের বাড়িতে তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে খুরশিদ আলম (৫৮) নামের এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ ওঠেছে একই বাড়ির জেঠা ও জেঠাতো ভাইদের বিরুদ্ধে। ওই ঘটনাটি মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে উপজেলার দক্ষিন বালিয়াকান্দি গ্রামের কবির মাষ্টারের বাড়িতে।

পুলিশ শহীদ উল্লাহ (৬৫) তার ছেল অলি উল্লা (৩০) ও ছেলের বউ ফোরকানের নেছা (৩৩) কে আটক করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী খাজা মাইন উদ্দিন জানায়, সোমবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় শহীদ উল্লাহ তার ছেলেরা তাদের টয়লেটের সেফটি টেংক পরীস্কার করে ওই ময়লা গুলো নিহত খুরশিদ আলমের বসতঘরের কাছে ফেলে দেয়। এরপর মঙ্গলবার সকালে খুরশিদ আলম দুর্গন্ধ পেয়ে ঘরের বাহিরে গিয়ে ময়লা দেখে বকাঝকা করলে এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে তুমুল বাক বিতন্ডার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে জেঠা শহীদ উল্লাহ ও তার ছেলে সোহাগ, সুমন, হিমেল বাবু একত্রিত হয়ে খুরশিদ আলমের পরিবারের ওপর এলোপাথাড়ী হামলা চালায়। এতে লাঠির আঘাতে খুরশিদ আলম ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

খবর পেয়ে সেনবাগ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য থানায় নিয়ে আসে এবং দুপুর ২টার দিকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। এ হত্যা কান্ডের ঘটনায় নিহতের ছেলে পলাশ বাদি হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়েরে প্রস্তুতি চলছে।

যোগাযোগ করলে সেনবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ নাজিম উদ্দিন ঘটনার সত্যাতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে। মামলার দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। আটককৃতদের বিচারিক আদালতে প্রেরণ করা হবে।