ঢাকা ১০:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
ব্রেকিং নিউজ ::
চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষে নিহত ২ :: ঢাকা কলেজের সামনে সংঘর্ষে যুবক নিহত :: রংপুরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে বেরোবি শিক্ষার্থী নিহত :: ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া ও রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন :: রণক্ষেত্র মহাখালী, পুলিশ বক্সের সামনে দুটি মোটরসাইকেলে আগুন :: চার শিক্ষার্থী গুলিবিদ্ধ, উত্তাল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা :: আজও ছাত্রলীগের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ, রণক্ষেত্র ঢাবি

সুপার এইটের আশা বাঁচিয়ে রাখল ইংল্যান্ড

স্পোর্টস ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:২৫:৫৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪
  • / ৪২৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নামিবিয়াকে ৪১ রানে হারিয়ে সুপার এইটের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে ইংল্যান্ড। দুইবার বৃষ্টির কবলে পড়া ম্যাচে ১০ ওভারে ইংল্যান্ডের করা ৫ উইকেটে ১২২ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে নামিবিয়া করতে পেরেছে ৩ উইকেটে ৮৪ রান।

সুপার এইট নিশ্চিত করতে হলে সকাল সাড়ে ৬টায় শুরু হতে যাওয়া অস্ট্রেলিয়া-স্কটল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে ইংল্যান্ডকে। এই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া জয় পেলে সুপার এইট নিশ্চিত হবে ইংলিশদের। কোনো কারণে ম্যাচটি পরিত্যক্ত হলেও বাদ পড়তে হবে জস বাটলারের দলকে।

অ্যান্টিগুয়ার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামে ১২২ রানের জবাবে ব্যাট করতে নিজেদের সর্বশক্তি দিয়ে লড়াই করে নামিবিয়া। রানের চাপ অনেক বেশি হওয়ার কারণে শেষ পর্যন্ত আর পেরে ওঠতে পারেনি তারা। উদ্বোধনী জুটিতে ৪৪ রান করেন দুই ওপেনার মাইকেল ফন লিনজেন ও নিকোলাস ডেভিন। ১৬ বলে ১৮ রান করে ডেভিন রিটায়ার্ড হার্ট হন।

তিনে নেমে ডেভিড ওয়াইজে ১২ বলে ২৭ রানের দারুণ ইনিংস খেলেন। আর লিনজেন করেন ২৯ বলে ৩৩ রান। শেষ পর্যন্ত নামিবিয়াকে থামতে হয় ৮৪ রানে।

এর আগে মুষলধারে বৃষ্টির কারণে শঙ্কা তৈরি হয়েছিল ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ার। সেটি হলে দেশে ফেরার টিকিট কাটতে হতো বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। শেষ পর্যন্ত ইংলিশদের দুর্দশার বৃষ্টি থেমেছে। ৩ ঘণ্টা অপেক্ষার পর খেলা শুরু করেছেন আম্পায়াররা। প্রথম পর্যারে ২০ ওভারের খেলা নামিয়ে আনা হয় ১১ ওভারে। ৮ ওভার খেলা হতেই ফের হানা দেয় বৃষ্টি। যে কারণে আরও ১ ওভার কমিয়ে তা ১০ ওভার করা হয়।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় ইংল্যান্ড। দলীয় ২ রানে ওপেনার জস বাটলারের (৪ বলে ০) উইকেট হারানোর পর ১৩ রানের মাথায় ফিল সল্টের (৮ বলে ১১) উইকেটও হারায় ইংলিশরা।

এরপর ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন জনি বেয়ারেস্টো ও হ্যারি ব্রুক। নামিবিয়ার বোলারদের তুলোধুনো করে ৩০ বলে ৫৬ রানের জুটি করেন তারা। ১৮ বলে ৩১ রানের ইনিংস বেয়ারেস্টো আউট হলে জুটি ভাঙে।

তৃতীয় উইকেটের জুটি ভাঙলে ইংলিশদের ব্যাটিং ক্ষিপতা যেন আরও বেড়ে যায়। চতুর্থ জুটিতে মঈন আলি আর হ্যারি ব্রুক মিলে করেন ১৩ বলে ৩৮ রান। ৬ বলে ১৬ রান করেন আউট হন অলরাউন্ডা মঈন।

এরপর ব্যাট করতে নামা লিয়াম লিভিংস্টোন করেন ৪ বলে ১৪ রান। ইনিংসের শেষ বলে রানআউটের শিকার হন তিনি। ২০ বলে ৪৭ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিতই থেকে যান ব্রুক।

নিউজটি শেয়ার করুন

সুপার এইটের আশা বাঁচিয়ে রাখল ইংল্যান্ড

আপডেট সময় : ০১:২৫:৫৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪

নামিবিয়াকে ৪১ রানে হারিয়ে সুপার এইটের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে ইংল্যান্ড। দুইবার বৃষ্টির কবলে পড়া ম্যাচে ১০ ওভারে ইংল্যান্ডের করা ৫ উইকেটে ১২২ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে নামিবিয়া করতে পেরেছে ৩ উইকেটে ৮৪ রান।

সুপার এইট নিশ্চিত করতে হলে সকাল সাড়ে ৬টায় শুরু হতে যাওয়া অস্ট্রেলিয়া-স্কটল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে ইংল্যান্ডকে। এই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া জয় পেলে সুপার এইট নিশ্চিত হবে ইংলিশদের। কোনো কারণে ম্যাচটি পরিত্যক্ত হলেও বাদ পড়তে হবে জস বাটলারের দলকে।

অ্যান্টিগুয়ার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামে ১২২ রানের জবাবে ব্যাট করতে নিজেদের সর্বশক্তি দিয়ে লড়াই করে নামিবিয়া। রানের চাপ অনেক বেশি হওয়ার কারণে শেষ পর্যন্ত আর পেরে ওঠতে পারেনি তারা। উদ্বোধনী জুটিতে ৪৪ রান করেন দুই ওপেনার মাইকেল ফন লিনজেন ও নিকোলাস ডেভিন। ১৬ বলে ১৮ রান করে ডেভিন রিটায়ার্ড হার্ট হন।

তিনে নেমে ডেভিড ওয়াইজে ১২ বলে ২৭ রানের দারুণ ইনিংস খেলেন। আর লিনজেন করেন ২৯ বলে ৩৩ রান। শেষ পর্যন্ত নামিবিয়াকে থামতে হয় ৮৪ রানে।

এর আগে মুষলধারে বৃষ্টির কারণে শঙ্কা তৈরি হয়েছিল ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ার। সেটি হলে দেশে ফেরার টিকিট কাটতে হতো বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। শেষ পর্যন্ত ইংলিশদের দুর্দশার বৃষ্টি থেমেছে। ৩ ঘণ্টা অপেক্ষার পর খেলা শুরু করেছেন আম্পায়াররা। প্রথম পর্যারে ২০ ওভারের খেলা নামিয়ে আনা হয় ১১ ওভারে। ৮ ওভার খেলা হতেই ফের হানা দেয় বৃষ্টি। যে কারণে আরও ১ ওভার কমিয়ে তা ১০ ওভার করা হয়।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় ইংল্যান্ড। দলীয় ২ রানে ওপেনার জস বাটলারের (৪ বলে ০) উইকেট হারানোর পর ১৩ রানের মাথায় ফিল সল্টের (৮ বলে ১১) উইকেটও হারায় ইংলিশরা।

এরপর ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন জনি বেয়ারেস্টো ও হ্যারি ব্রুক। নামিবিয়ার বোলারদের তুলোধুনো করে ৩০ বলে ৫৬ রানের জুটি করেন তারা। ১৮ বলে ৩১ রানের ইনিংস বেয়ারেস্টো আউট হলে জুটি ভাঙে।

তৃতীয় উইকেটের জুটি ভাঙলে ইংলিশদের ব্যাটিং ক্ষিপতা যেন আরও বেড়ে যায়। চতুর্থ জুটিতে মঈন আলি আর হ্যারি ব্রুক মিলে করেন ১৩ বলে ৩৮ রান। ৬ বলে ১৬ রান করেন আউট হন অলরাউন্ডা মঈন।

এরপর ব্যাট করতে নামা লিয়াম লিভিংস্টোন করেন ৪ বলে ১৪ রান। ইনিংসের শেষ বলে রানআউটের শিকার হন তিনি। ২০ বলে ৪৭ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিতই থেকে যান ব্রুক।