ঢাকা ০৯:৫৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সুনামগঞ্জে ৩ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:০২:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুলাই ২০২৩
  • / ৪৫৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
// রাজু আহমেদ রমজান //
ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত তিন রোগী শনাক্ত করেছেন সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা।
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (১৪ জুলাই, শুক্রবার) তারা হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।
প্রসঙ্গত. স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এর আগে দেওয়া তথ্যে জানানো হয়েছিল সুনামগঞ্জ ডেঙ্গুমুক্ত।
আক্রান্ত রোগীরা হলেন,  শহরতলীর আলীপাড়া এলাকার বাসিন্দা সোহান মিয়া, ওয়েজখালি এলাকার মামুনুর রশিদ ও  ব্রাহ্মনগাঁও এলাকার রায়হান মিয়া।
স্থানীয়রা জানিয়েছেন, উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢল ও ভারী বৃষ্টিতে সুরমা নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করে শহরে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হলে নতুন করে সারা শহরময় মশার উপদ্রুপ বৃদ্ধি পায়। ফলে ডেঙ্গু আতংক ছড়িয়ে পড়ে।
সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. আনিসুর রহমান বলেন, হাসপাতালে এই প্রথম তিন ডেঙ্গু রোগী সনাক্ত হয়েছেন। তিন দিনে তিনজন রোগীর শরীরে ডেঙ্গু মিলেছে। তবে তারক রাজধানী থেকে এসেছেন। তিনজনেই সেখানে  চাকুরি করতেন। সামান্য জ্বর বা জ্বরের ভাব নিয়ে এসেছিলেন তারা। এরমধ্যে একজন সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। অন্য দুইজনকে হাসপাতালেই রাখা হয়েছে। সুস্থ্য হবার আগে পর্যন্ত তাদেরকে মশারির ভেতরে রাখা হবে।
সিভিল সার্জন ডা. আহাম্মদ আলী বলেন, বর্তমানে দুইজন ডেঙ্গু ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছেন এবং একজন সুস্থ হওয়ায় ছাড়পত্র নিয়ে বাড়িতে চলে গেছেন। ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তদের উপযুক্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা হাসপাতালে আছে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

সুনামগঞ্জে ৩ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

আপডেট সময় : ০১:০২:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুলাই ২০২৩
// রাজু আহমেদ রমজান //
ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত তিন রোগী শনাক্ত করেছেন সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা।
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (১৪ জুলাই, শুক্রবার) তারা হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।
প্রসঙ্গত. স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এর আগে দেওয়া তথ্যে জানানো হয়েছিল সুনামগঞ্জ ডেঙ্গুমুক্ত।
আক্রান্ত রোগীরা হলেন,  শহরতলীর আলীপাড়া এলাকার বাসিন্দা সোহান মিয়া, ওয়েজখালি এলাকার মামুনুর রশিদ ও  ব্রাহ্মনগাঁও এলাকার রায়হান মিয়া।
স্থানীয়রা জানিয়েছেন, উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢল ও ভারী বৃষ্টিতে সুরমা নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করে শহরে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হলে নতুন করে সারা শহরময় মশার উপদ্রুপ বৃদ্ধি পায়। ফলে ডেঙ্গু আতংক ছড়িয়ে পড়ে।
সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. আনিসুর রহমান বলেন, হাসপাতালে এই প্রথম তিন ডেঙ্গু রোগী সনাক্ত হয়েছেন। তিন দিনে তিনজন রোগীর শরীরে ডেঙ্গু মিলেছে। তবে তারক রাজধানী থেকে এসেছেন। তিনজনেই সেখানে  চাকুরি করতেন। সামান্য জ্বর বা জ্বরের ভাব নিয়ে এসেছিলেন তারা। এরমধ্যে একজন সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। অন্য দুইজনকে হাসপাতালেই রাখা হয়েছে। সুস্থ্য হবার আগে পর্যন্ত তাদেরকে মশারির ভেতরে রাখা হবে।
সিভিল সার্জন ডা. আহাম্মদ আলী বলেন, বর্তমানে দুইজন ডেঙ্গু ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছেন এবং একজন সুস্থ হওয়ায় ছাড়পত্র নিয়ে বাড়িতে চলে গেছেন। ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তদের উপযুক্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা হাসপাতালে আছে বলেও তিনি জানিয়েছেন।