ঢাকা ০৭:৫০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সুনামগঞ্জে সংঘর্ষে নিহত ৩ : আহত ৩০

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৪৩:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ জুলাই ২০২৩
  • / ৪৫৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
// রাজু আহমেদ রমজান //
মসজিদের কাঁঠালের দাম হাঁকানো (নিলাম) নিয়ে সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে তিনজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সংঘর্ষে অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন বলেও জানা গেছে। সোমবার (১০ জুলাই) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার জয়কলস ইউনিয়নের হাসনাবাদ গ্রামে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন, হাসনাবাদ গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে নুরুল হক (৪৫), আব্দুস সুফির ছেলে বাবুল মিয়া (৫০) এবং আব্দুল বাসিরের ছেলে শাহজাহান মিয়া (৫৫)।
সংঘর্ষে তিনজন নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শান্তিগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. খালেদ চৌধুরী।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গতকাল রোববার বিকেলে গ্রামের মসজিদের কাঁঠালের দাম হাঁকানো নিয়ে সরাইমরল ও মালদার পরিবারের লোকদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর জেরে সোমবার সকালে দেশীয় ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে উভয়পক্ষ সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এতে ঘটনাস্থলে সরাইমরল গ্রুপের নুরুল হক ও বাবুল মিয়া নিহত হন। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মালাদার গ্রপের শাহজাহান মিয়া মারা যান। স্থানীয়রা জানান, জমি নিয়ে এই দুই পক্ষের মধ্যে পূর্ব বিরোধ ছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

সুনামগঞ্জে সংঘর্ষে নিহত ৩ : আহত ৩০

আপডেট সময় : ০৩:৪৩:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ জুলাই ২০২৩
// রাজু আহমেদ রমজান //
মসজিদের কাঁঠালের দাম হাঁকানো (নিলাম) নিয়ে সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে তিনজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সংঘর্ষে অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন বলেও জানা গেছে। সোমবার (১০ জুলাই) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার জয়কলস ইউনিয়নের হাসনাবাদ গ্রামে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন, হাসনাবাদ গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে নুরুল হক (৪৫), আব্দুস সুফির ছেলে বাবুল মিয়া (৫০) এবং আব্দুল বাসিরের ছেলে শাহজাহান মিয়া (৫৫)।
সংঘর্ষে তিনজন নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শান্তিগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. খালেদ চৌধুরী।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গতকাল রোববার বিকেলে গ্রামের মসজিদের কাঁঠালের দাম হাঁকানো নিয়ে সরাইমরল ও মালদার পরিবারের লোকদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর জেরে সোমবার সকালে দেশীয় ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে উভয়পক্ষ সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এতে ঘটনাস্থলে সরাইমরল গ্রুপের নুরুল হক ও বাবুল মিয়া নিহত হন। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মালাদার গ্রপের শাহজাহান মিয়া মারা যান। স্থানীয়রা জানান, জমি নিয়ে এই দুই পক্ষের মধ্যে পূর্ব বিরোধ ছিল।