ঢাকা ০৫:০২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সাতক্ষীরায় পিকআপ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ২ শ্রমিক নিহত : আহত ১৭

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:০৮:৫০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ মে ২০২৩
  • / ৪৫৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

// সাতক্ষীরা প্রতিনিধি  //

সাতক্ষীরার তালায় ধান কাটা শ্রমিক বহনকারী পিকআপ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে দুই শ্রমিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ১৭ জন। মঙ্গলবার (১৬মে) ভোর পৌনে পাঁচটার দিকে উপজেলার পাটকেলঘাটা থানাধীন সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়কের কুমিরা বাজার এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। আহতদের সাতক্ষীরা সদর ও মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
নিহত শ্রমিকরা হলেন সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার কাশিমাড়ি গ্রামের মোঃ মন্টু মিয়ার ছেলে। মোঃ সুমন হোসেন (৩৫) ও একই উপজেলার জয়নগর গ্রামের মৃত মোঃ ওমর আলীর ছেলে মোঃ আবুল হোসেন (৪৬)।

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতরা হলেন, সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার কাশিমাড়ি গ্রামের মোঃ হযরত আলীর ছেলে মোঃ ইয়াসিন আলী (১৯), সদর উপজেলার ধুলিহর গ্রামের মোঃ নেছার আলীর ছেলে মোঃ শুকুর আলী (৫০) ও একই উপজেলার কাশেমপুর গ্রামের মোঃ আব্দুল আলীর ছেলে মোঃ ইমন হোসেন (১৯)।
এছাড়া সদর হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন তাপশ কুমার দাশ (৪০), শাহিদুল ইসলাম (৩৫), মামুন হোসেন (২৩), মোঃ শাহিন (২১) ও শ্রমিকদের বাবুর্চী ফরিদা বেগম (৫০)। আহত আরও ৯ জনকে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সদর হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা গ্রহণকারি আহত শ্রমিক তাপশ কুমার দাশ জানান, তারা ২৪ জন শ্রমিক সাতক্ষীরা থেকে ধান কাটার জন্য শরিয়তপুর গিয়েছিলেন। মজুরি হিসাবে পাওয়া ধান নিয়ে সোমবার দিন রাতে একটি পিকআপ ভাড়া করে তারা সাতক্ষীরায় আসছিলেন। কিন্তু গাড়িটি চালাচ্ছিল পিকআপের হেলপার। আমরা নিষেধ করার পরও তারা গুরুত্ব দেয়নি। পথিমধ্যে ভোর পৌণে ৫টার দিকে পাটকেলঘাটা থানাধীন সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়কের কুমিরা বাজারের কাছে পৌছালে চালক হেলপার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে পিকআপটি উল্টে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে আমরা ১৯ জনের মত শ্রমিক কমবেশি আহত হই। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উদ্ধার করে আমাদেরকে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালে আসার পর সুমন হোসেন মারা যায়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল সোয়া ৮টার দিকে মারা যায় আবুল হোসেন। আহত আরও ৯ জনকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডাঃ রাশেদুজ্জামান সুমন জানান, আহত শ্রমিকদের হাসপাতালে আনার পর সুমন হোসেন মারা যায়। সকাল সোয়া ৮টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় আবুল হোসেন।

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ (সামেক) হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রাশি বিশ্বাস জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ৯ জনকে সামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পাটকেলঘাটা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বিশ্বজিত কুমার আধিকারী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বা/খ: এসআর।

নিউজটি শেয়ার করুন

সাতক্ষীরায় পিকআপ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ২ শ্রমিক নিহত : আহত ১৭

আপডেট সময় : ০১:০৮:৫০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ মে ২০২৩

// সাতক্ষীরা প্রতিনিধি  //

সাতক্ষীরার তালায় ধান কাটা শ্রমিক বহনকারী পিকআপ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে দুই শ্রমিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ১৭ জন। মঙ্গলবার (১৬মে) ভোর পৌনে পাঁচটার দিকে উপজেলার পাটকেলঘাটা থানাধীন সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়কের কুমিরা বাজার এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। আহতদের সাতক্ষীরা সদর ও মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
নিহত শ্রমিকরা হলেন সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার কাশিমাড়ি গ্রামের মোঃ মন্টু মিয়ার ছেলে। মোঃ সুমন হোসেন (৩৫) ও একই উপজেলার জয়নগর গ্রামের মৃত মোঃ ওমর আলীর ছেলে মোঃ আবুল হোসেন (৪৬)।

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতরা হলেন, সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার কাশিমাড়ি গ্রামের মোঃ হযরত আলীর ছেলে মোঃ ইয়াসিন আলী (১৯), সদর উপজেলার ধুলিহর গ্রামের মোঃ নেছার আলীর ছেলে মোঃ শুকুর আলী (৫০) ও একই উপজেলার কাশেমপুর গ্রামের মোঃ আব্দুল আলীর ছেলে মোঃ ইমন হোসেন (১৯)।
এছাড়া সদর হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন তাপশ কুমার দাশ (৪০), শাহিদুল ইসলাম (৩৫), মামুন হোসেন (২৩), মোঃ শাহিন (২১) ও শ্রমিকদের বাবুর্চী ফরিদা বেগম (৫০)। আহত আরও ৯ জনকে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সদর হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা গ্রহণকারি আহত শ্রমিক তাপশ কুমার দাশ জানান, তারা ২৪ জন শ্রমিক সাতক্ষীরা থেকে ধান কাটার জন্য শরিয়তপুর গিয়েছিলেন। মজুরি হিসাবে পাওয়া ধান নিয়ে সোমবার দিন রাতে একটি পিকআপ ভাড়া করে তারা সাতক্ষীরায় আসছিলেন। কিন্তু গাড়িটি চালাচ্ছিল পিকআপের হেলপার। আমরা নিষেধ করার পরও তারা গুরুত্ব দেয়নি। পথিমধ্যে ভোর পৌণে ৫টার দিকে পাটকেলঘাটা থানাধীন সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়কের কুমিরা বাজারের কাছে পৌছালে চালক হেলপার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে পিকআপটি উল্টে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে আমরা ১৯ জনের মত শ্রমিক কমবেশি আহত হই। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উদ্ধার করে আমাদেরকে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালে আসার পর সুমন হোসেন মারা যায়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল সোয়া ৮টার দিকে মারা যায় আবুল হোসেন। আহত আরও ৯ জনকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডাঃ রাশেদুজ্জামান সুমন জানান, আহত শ্রমিকদের হাসপাতালে আনার পর সুমন হোসেন মারা যায়। সকাল সোয়া ৮টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় আবুল হোসেন।

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ (সামেক) হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রাশি বিশ্বাস জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ৯ জনকে সামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পাটকেলঘাটা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বিশ্বজিত কুমার আধিকারী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বা/খ: এসআর।