ঢাকা ০১:০৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সরকার পরিস্থিতি সংঘাতের দিকে ঠেলে দিচ্ছে : ফখরুল

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৫৮:৫০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৫৪ বার পড়া হয়েছে

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
পরিস্থিতি সংঘাতের দিকে ঠেলে দিচ্ছে সরকার বলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ শুক্রবার (২১ অক্টোবর) সকালে গুলশানে দলের চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।
এসময় দলের স্থায়ী কমিটির দুই সদস্য আমির খসরু ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু উপস্থিত ছিলেন।

ফখরুল বলেন, বিএনপির খুলনার সমাবেশ ঘিরে সরকার সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে, রাস্তায় রাস্তায় বাধা, হামলা হচ্ছে। পথে পথে যেখানে দেখবে সেখানে গ্রেফতারের নির্দেশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে। বৃহস্পতিবার রাতে বিএনপির ১৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, সমাবেশ ঘিরে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি তৈরি হলে সরকারকে দায় নিতে হবে। তারা বিএনপিকে সভা-সমাবেশ করেত দিতে চায় না। গণপরিবহন বন্ধ করে দিয়েছে সরকার৷ পরিকল্পিতভাবে তারা সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা ব্যাহত করছে।
ফখরুল বলেন, সরকারের অব্যবস্থাপনা, লুটপাট আর দুর্নীতির কারণে দুর্ভিক্ষের আগাম প্রতিধ্বনি শোনা যাচ্ছে। বিএনপির শঙ্কাই প্রমানিত হচ্ছে, সরকারও সেই দুর্ভিক্ষের পরিস্থিতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

কাল শনিবার (২২ অক্টোবর) খুলনায় বিভাগীয় গণসমাবেশ করার কথা বিএনপির।

এদিকে গত বুধবার খুলনা জেলা বাস, মিনিবাস, কোচ ও মাইক্রোবাস মালিক সমিতির বৈঠকের পর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, উচ্চ আদালতের সিদ্ধান্ত অমান্য করে সড়ক ও মহাসড়কে অবৈধভাবে নসিমন, করিমন, মাহেন্দ্র, ইজিবাইক ও বিআরটিসির গাড়ি চলাচল করছে। আগামী ২০ অক্টোবরের মধ্যে প্রশাসন যদি সড়কে ওই অবৈধ যান চলাচল ও কাউন্টার বন্ধ না করে, তাহলে পরবর্তী দুদিন ২১ ও ২২ অক্টোবর মালিক সমিতির সব রুটের গাড়ি বন্ধ থাকবে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

সরকার পরিস্থিতি সংঘাতের দিকে ঠেলে দিচ্ছে : ফখরুল

আপডেট সময় : ১২:৫৮:৫০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ অক্টোবর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক : 
পরিস্থিতি সংঘাতের দিকে ঠেলে দিচ্ছে সরকার বলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ শুক্রবার (২১ অক্টোবর) সকালে গুলশানে দলের চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।
এসময় দলের স্থায়ী কমিটির দুই সদস্য আমির খসরু ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু উপস্থিত ছিলেন।

ফখরুল বলেন, বিএনপির খুলনার সমাবেশ ঘিরে সরকার সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে, রাস্তায় রাস্তায় বাধা, হামলা হচ্ছে। পথে পথে যেখানে দেখবে সেখানে গ্রেফতারের নির্দেশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে। বৃহস্পতিবার রাতে বিএনপির ১৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, সমাবেশ ঘিরে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি তৈরি হলে সরকারকে দায় নিতে হবে। তারা বিএনপিকে সভা-সমাবেশ করেত দিতে চায় না। গণপরিবহন বন্ধ করে দিয়েছে সরকার৷ পরিকল্পিতভাবে তারা সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা ব্যাহত করছে।
ফখরুল বলেন, সরকারের অব্যবস্থাপনা, লুটপাট আর দুর্নীতির কারণে দুর্ভিক্ষের আগাম প্রতিধ্বনি শোনা যাচ্ছে। বিএনপির শঙ্কাই প্রমানিত হচ্ছে, সরকারও সেই দুর্ভিক্ষের পরিস্থিতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

কাল শনিবার (২২ অক্টোবর) খুলনায় বিভাগীয় গণসমাবেশ করার কথা বিএনপির।

এদিকে গত বুধবার খুলনা জেলা বাস, মিনিবাস, কোচ ও মাইক্রোবাস মালিক সমিতির বৈঠকের পর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, উচ্চ আদালতের সিদ্ধান্ত অমান্য করে সড়ক ও মহাসড়কে অবৈধভাবে নসিমন, করিমন, মাহেন্দ্র, ইজিবাইক ও বিআরটিসির গাড়ি চলাচল করছে। আগামী ২০ অক্টোবরের মধ্যে প্রশাসন যদি সড়কে ওই অবৈধ যান চলাচল ও কাউন্টার বন্ধ না করে, তাহলে পরবর্তী দুদিন ২১ ও ২২ অক্টোবর মালিক সমিতির সব রুটের গাড়ি বন্ধ থাকবে।