ঢাকা ০১:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সবাই দোয়া করেছে আমার জন্য: আবু হেনা রনি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৩৮:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৭১ বার পড়া হয়েছে

অভিনেতা আবু হেনা রনি

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বিনোদন ডেস্ক

মীরাক্কেল আক্কেল চ্যালেঞ্জার্স খ্যাত জনপ্রিয় অভিনেতা আবু হেনা রনি চিকিৎসায় আগের থেকে এখন অনেকটাই সুস্থ হয়ে উঠছেন। কথা বলছেন তিনি। আর এই সুস্থ হওয়ার জন্য প্রথমেই মহান আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। এছাড়া যারা তার জন্য দোয়া করেছেন, নামাজ পড়েছেন এবং মনে রেখেছেন, তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন রনি।

সম্প্রতি আবু হেনা রনি বলেন, প্রথমে আমি চাচ্ছিলাম না আমার অগ্নিদগ্ধের খবরটা ছড়িয়ে পড়ুক। মনে হচ্ছিল দু’দিন পরেই সুস্থ হবো। প্রোগ্রামের বিষয়েও কিছু জানা ছিল না। স্বাভাবিকভাবে আমাদের কোনো প্রোগ্রাম থাকলে তা যদি কারো জন্য নষ্ট হয় তাতে সবার মন খারাপ হয়। এ কারণেই আমি চাইনি আমার বিষয়টি কোনো আর্টিস্ট বা ওখানকার (অনুষ্ঠানস্থল) কেউ জানুক।

এর আগে গত ১৬ সেপ্টেম্বর গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে গ্যাস বেলুন বিস্ফোরণে রনিসহ পাঁচ জন দগ্ধ হন। গাজীপুর জেলা পুলিশ লাইনস মাঠে নাগরিক সম্মেলন ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়। সন্ধ্যা ৬টার দিকে পুলিশ লাইনস মাঠের পাশেই গ্যাস বেলুন বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

রনি বলেন, এক সময় দেখি অগ্নিদগ্ধের খবর নিউজে চলে এসেছে। হাসপাতালের গেটে আমাকে যারা ভালোবাসেন তারা সবাই দেখার জন্য হাজির হয়েছেন। বাড়ি থেকেও ফোন, কান্নাকাটি, সবাইকে সান্ত্বনা দিতে দিতে সবাই আমার পরিস্থিতিও বুঝে যায়। ওই রাত তো আমি আইসিইউতে ছিলাম। পরের দিন দেখি, আমার খবর জানে না এমন কেউ নেই।

এই কমেডি অভিনেতার অগ্নিদগ্ধের খবর সংবাদমাধ্যমে প্রকাশের পর এপার-ওপার দুই বাংলাতেই শোকের ছায়া নামে। ইন্ডাস্ট্রির তারকা ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা খোঁজ-খবর নিতে থাকেন প্রিয় তারকার।

তিনি বলেন, আমার অভিভাবকরা, বড় ভাইরা বলছিল যে, এমন মানুষ আমার খোঁজ-খবর নিয়েছে যাদেরকে আমরা আইডল মনে করি। এর বাইরে সাধারণ মানুষ তো রয়েছেই। তৃপ্তির জায়গা এখানে যে, এত মানুষ ভালোবাসে আমাকে। সবাই আমাকে মনে রেখেছে, কেউ ভুলেনি। আমার জন্য সবাই দোয়া করেছে। মিলাদ করা, দোয়া করা, সাদকা করা ও নামাজ পড়েছে অনেকে।

তিনি আরও বলেন, অনেকে বলেছেন যে তার মা-বাবা নফল নামাজ পড়ে দোয়া করেছেন আমার জন্য। এসব আমার জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি। আল্লাহ তায়ালা তারপরে নিচে ডাক্তার আর সবার দোয়া। এসব ভোলার মতো না।

রনি কৌতুক অভিনেতা হলেও হাসি-আনন্দের মাধ্যমেই তারকা থেকে দর্শক হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন। ২০১১ সালে ওপার বাংলার জনপ্রিয় ‘মীরাক্কেল আক্কেল চ্যালেঞ্জার্স’ অনুষ্ঠানের ৬ষ্ঠ সিজনে দর্শক ও বিচারকদের মাতিয়ে বিজীয় হন তিনি। তবে এতদিন পরেও তাকে সমানতালে মনে রেখেছেন সবাই। এ বিষয়ে তিনি বলেন, একটা সময়ে মনে হয়েছে, ফান করা তো অন্য শিল্পের মতো না। অভিনয়ে তো সুখ-দুঃখের অংশ থাকে। সেই সব মানুষের হৃদয়ে একেকভাবে দাগ কেটে থাকে। কিন্তু আমার বিষয় তো ফান করা, এটাও যে মানুষের হৃদয়ে দাগ কেটেছে তা আমার জীবনের বড় প্রাপ্তি।

নিউজটি শেয়ার করুন

সবাই দোয়া করেছে আমার জন্য: আবু হেনা রনি

আপডেট সময় : ০৬:৩৮:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২২

বিনোদন ডেস্ক

মীরাক্কেল আক্কেল চ্যালেঞ্জার্স খ্যাত জনপ্রিয় অভিনেতা আবু হেনা রনি চিকিৎসায় আগের থেকে এখন অনেকটাই সুস্থ হয়ে উঠছেন। কথা বলছেন তিনি। আর এই সুস্থ হওয়ার জন্য প্রথমেই মহান আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। এছাড়া যারা তার জন্য দোয়া করেছেন, নামাজ পড়েছেন এবং মনে রেখেছেন, তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন রনি।

সম্প্রতি আবু হেনা রনি বলেন, প্রথমে আমি চাচ্ছিলাম না আমার অগ্নিদগ্ধের খবরটা ছড়িয়ে পড়ুক। মনে হচ্ছিল দু’দিন পরেই সুস্থ হবো। প্রোগ্রামের বিষয়েও কিছু জানা ছিল না। স্বাভাবিকভাবে আমাদের কোনো প্রোগ্রাম থাকলে তা যদি কারো জন্য নষ্ট হয় তাতে সবার মন খারাপ হয়। এ কারণেই আমি চাইনি আমার বিষয়টি কোনো আর্টিস্ট বা ওখানকার (অনুষ্ঠানস্থল) কেউ জানুক।

এর আগে গত ১৬ সেপ্টেম্বর গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে গ্যাস বেলুন বিস্ফোরণে রনিসহ পাঁচ জন দগ্ধ হন। গাজীপুর জেলা পুলিশ লাইনস মাঠে নাগরিক সম্মেলন ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়। সন্ধ্যা ৬টার দিকে পুলিশ লাইনস মাঠের পাশেই গ্যাস বেলুন বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

রনি বলেন, এক সময় দেখি অগ্নিদগ্ধের খবর নিউজে চলে এসেছে। হাসপাতালের গেটে আমাকে যারা ভালোবাসেন তারা সবাই দেখার জন্য হাজির হয়েছেন। বাড়ি থেকেও ফোন, কান্নাকাটি, সবাইকে সান্ত্বনা দিতে দিতে সবাই আমার পরিস্থিতিও বুঝে যায়। ওই রাত তো আমি আইসিইউতে ছিলাম। পরের দিন দেখি, আমার খবর জানে না এমন কেউ নেই।

এই কমেডি অভিনেতার অগ্নিদগ্ধের খবর সংবাদমাধ্যমে প্রকাশের পর এপার-ওপার দুই বাংলাতেই শোকের ছায়া নামে। ইন্ডাস্ট্রির তারকা ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা খোঁজ-খবর নিতে থাকেন প্রিয় তারকার।

তিনি বলেন, আমার অভিভাবকরা, বড় ভাইরা বলছিল যে, এমন মানুষ আমার খোঁজ-খবর নিয়েছে যাদেরকে আমরা আইডল মনে করি। এর বাইরে সাধারণ মানুষ তো রয়েছেই। তৃপ্তির জায়গা এখানে যে, এত মানুষ ভালোবাসে আমাকে। সবাই আমাকে মনে রেখেছে, কেউ ভুলেনি। আমার জন্য সবাই দোয়া করেছে। মিলাদ করা, দোয়া করা, সাদকা করা ও নামাজ পড়েছে অনেকে।

তিনি আরও বলেন, অনেকে বলেছেন যে তার মা-বাবা নফল নামাজ পড়ে দোয়া করেছেন আমার জন্য। এসব আমার জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি। আল্লাহ তায়ালা তারপরে নিচে ডাক্তার আর সবার দোয়া। এসব ভোলার মতো না।

রনি কৌতুক অভিনেতা হলেও হাসি-আনন্দের মাধ্যমেই তারকা থেকে দর্শক হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন। ২০১১ সালে ওপার বাংলার জনপ্রিয় ‘মীরাক্কেল আক্কেল চ্যালেঞ্জার্স’ অনুষ্ঠানের ৬ষ্ঠ সিজনে দর্শক ও বিচারকদের মাতিয়ে বিজীয় হন তিনি। তবে এতদিন পরেও তাকে সমানতালে মনে রেখেছেন সবাই। এ বিষয়ে তিনি বলেন, একটা সময়ে মনে হয়েছে, ফান করা তো অন্য শিল্পের মতো না। অভিনয়ে তো সুখ-দুঃখের অংশ থাকে। সেই সব মানুষের হৃদয়ে একেকভাবে দাগ কেটে থাকে। কিন্তু আমার বিষয় তো ফান করা, এটাও যে মানুষের হৃদয়ে দাগ কেটেছে তা আমার জীবনের বড় প্রাপ্তি।