ঢাকা ০২:৩৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

সড়ক হলো উন্নয়নের প্রতীক: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:২০:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২
  • / ৪৫২ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মেহেরপুর প্রতিনিধি : 
জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, সড়ক হলো উন্নয়নের প্রতীক। যে এলাকার যত সড়ক হবে, যোগাযোগ যত উন্নত হবে, সেই এলাকা তত উন্নত হবে।

সড়ক নির্মাণ ও মেরামতের ফলে গ্রামাঞ্চলের মানুষের জীবনমান বাড়ছে। দৈনন্দিন কাজগুলো সহজ হচ্ছে।শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে মেহেরপুর কলেজ মোড় এলাকায় একটি প্রকল্পের নির্মাণকাজের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। কুষ্টিয়া (ত্রিমোহনী)-মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গা-ঝিনাইদহ (আর-৭৪৫) আঞ্চলিক মহাসড়কের কুষ্টিয়া থেকে মেহেরপুর পর্যন্ত যথাযথ মান ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ শীর্ষক প্রকল্পটির ব্যয় ধরা হয়েছে ৬৪৩ কোটি টাকা।

প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, ২০১৪ সালের পর থেকে মেহেরপুর সদর ও মুজিবনগর উপজেলায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ৪৩৮ কোটি ৪ লাখ টাকা ব্যয়ে ইউনিয়ন ও গ্রামের বিভিন্ন রাস্তা নির্মাণ ও মেরামত করা হয়েছে। এখন কৃষকদের সরাসরি উপকার করার জন্য মাঠের সড়কগুলোর কাজ করা হচ্ছে। সড়কের উন্নয়ন হলে কৃষকরা তাদের ফসল দ্রুত বিক্রি করতে পারেন এবং দাম পান। রাস্তা-ঘাট ভাল হওয়ায় কৃষকদের জমির দামও বেড়েছে।

তিনি বলেন, মুজিবনগর ঘিরে অনেক পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। মেহেরপুর এখন বাংলাদেশের উন্নয়নের রোল মডেল। এই জেলাকে সাজাতে অনেক বড় পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। জেলার রাস্তা-ঘাট, স্কুল-কলেজ, নদী-নালা ও ভৌত অবকাঠামোর উন্নয়নের কারণে মেহেরপুর জেলা এখন অর্থনৈতিকভাবে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জামায়াত-বিএনপির জোট সরকারের আমলে অন্ধকার যুগে মানুষ সন্ধ্যার পর বাইরে বের হতে পারত না। আতঙ্কের মধ্যে থাকত। মানুষ গ্রামে থাকতে চাইত না। অথচ এখন মানুষ গ্রামেই ফিরে গিয়ে বাড়ি তৈরি করছে। কারণ, এখন গ্রাম আর সেই গ্রাম নেই, গ্রাম এখন শহরে পরিণত হয়েছে। গ্রামগুলো এখন দৃষ্টিনন্দন প্রাকৃতিক দৃশ্যের ছবির মতো। কৃষকরা ঘরের দরজা খোলা রেখে ঘুমাতে পারছেন। মাঠের মেশিন আর গোয়ালের গরু চুরি হচ্ছে না। এখন মানুষ চরম নিরাপত্তার মধ্যে আছে।

সড়ক ও জনপদ বিভাগ কুষ্টিয়া সড়ক সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আবু হানা মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মেহেরপুর ২ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামান খোকন, সড়ক ও জনপদ বিভাগ খুলনার অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী সৈয়দ আসলাম আলী, মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও গাংনী উপজেলা চেয়ারম্যান এম এ খালেক, মেহেরপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

সড়ক হলো উন্নয়নের প্রতীক: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৪:২০:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২

মেহেরপুর প্রতিনিধি : 
জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, সড়ক হলো উন্নয়নের প্রতীক। যে এলাকার যত সড়ক হবে, যোগাযোগ যত উন্নত হবে, সেই এলাকা তত উন্নত হবে।

সড়ক নির্মাণ ও মেরামতের ফলে গ্রামাঞ্চলের মানুষের জীবনমান বাড়ছে। দৈনন্দিন কাজগুলো সহজ হচ্ছে।শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে মেহেরপুর কলেজ মোড় এলাকায় একটি প্রকল্পের নির্মাণকাজের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। কুষ্টিয়া (ত্রিমোহনী)-মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গা-ঝিনাইদহ (আর-৭৪৫) আঞ্চলিক মহাসড়কের কুষ্টিয়া থেকে মেহেরপুর পর্যন্ত যথাযথ মান ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ শীর্ষক প্রকল্পটির ব্যয় ধরা হয়েছে ৬৪৩ কোটি টাকা।

প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, ২০১৪ সালের পর থেকে মেহেরপুর সদর ও মুজিবনগর উপজেলায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ৪৩৮ কোটি ৪ লাখ টাকা ব্যয়ে ইউনিয়ন ও গ্রামের বিভিন্ন রাস্তা নির্মাণ ও মেরামত করা হয়েছে। এখন কৃষকদের সরাসরি উপকার করার জন্য মাঠের সড়কগুলোর কাজ করা হচ্ছে। সড়কের উন্নয়ন হলে কৃষকরা তাদের ফসল দ্রুত বিক্রি করতে পারেন এবং দাম পান। রাস্তা-ঘাট ভাল হওয়ায় কৃষকদের জমির দামও বেড়েছে।

তিনি বলেন, মুজিবনগর ঘিরে অনেক পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। মেহেরপুর এখন বাংলাদেশের উন্নয়নের রোল মডেল। এই জেলাকে সাজাতে অনেক বড় পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। জেলার রাস্তা-ঘাট, স্কুল-কলেজ, নদী-নালা ও ভৌত অবকাঠামোর উন্নয়নের কারণে মেহেরপুর জেলা এখন অর্থনৈতিকভাবে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জামায়াত-বিএনপির জোট সরকারের আমলে অন্ধকার যুগে মানুষ সন্ধ্যার পর বাইরে বের হতে পারত না। আতঙ্কের মধ্যে থাকত। মানুষ গ্রামে থাকতে চাইত না। অথচ এখন মানুষ গ্রামেই ফিরে গিয়ে বাড়ি তৈরি করছে। কারণ, এখন গ্রাম আর সেই গ্রাম নেই, গ্রাম এখন শহরে পরিণত হয়েছে। গ্রামগুলো এখন দৃষ্টিনন্দন প্রাকৃতিক দৃশ্যের ছবির মতো। কৃষকরা ঘরের দরজা খোলা রেখে ঘুমাতে পারছেন। মাঠের মেশিন আর গোয়ালের গরু চুরি হচ্ছে না। এখন মানুষ চরম নিরাপত্তার মধ্যে আছে।

সড়ক ও জনপদ বিভাগ কুষ্টিয়া সড়ক সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আবু হানা মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মেহেরপুর ২ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামান খোকন, সড়ক ও জনপদ বিভাগ খুলনার অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী সৈয়দ আসলাম আলী, মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও গাংনী উপজেলা চেয়ারম্যান এম এ খালেক, মেহেরপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম প্রমুখ।