ঢাকা ০৭:৩৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

শ্রীনগরে স্ত্রী ও সন্তানকে হত্যার ঘটনায় স্বামী  গ্রেপ্তার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:২৩:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩
  • / ৪৫২ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি :
শ্রীনগরে লেপ মোড়ানো মা-মেয়ের লাশ উদ্ধারের ১ বছর পর তাদের পরিচয় মিলেছে। বুধবার রাতে পলাতক স্বামী শাহিন পাহার ও অটোচালক মোঃ হাশেমকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে মুন্সীগঞ্জ জেলা পিবিআই।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০২২ সালের ৮ মার্চ দুপুরে শ্রীনগর উপজেলার কোলাপাড়া ইউনিয়নের ব্রাক্ষম পাইকশা গ্রামের একটি পতিত জমি থেকে লেপ মোড়ানো এক যুবতী নারী ও কন্যা শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মুন্সীগঞ্জ পিবিআইয়ের ইন্সপেক্টর শাহিনুর আলমের উপর মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব পরে। স্বামী শাহীন পাহারের সন্ধানে নেমে ১ বছর পর বুধবার রাতে তাকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। শাহীনের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করা হয় অটোচালক মোঃ হাশেমকে।
বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে এগারটার দিকে লাশ উদ্ধারের ঘটনাস্থলে এসে শাহীন পাহার জানায়, রিমতা তার দ্বিতীয় স্ত্রী। তার বাবার বাড়ি পাবনা সদর উপজেলায়। দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে সে কামারগাও এলাকায় ভাড়া বাড়িতে রেখে গোপনে সংসার করতো। তাদের সংসারে আমেনা নামের এক কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। এরপর শাহিনের প্রথম স্ত্রী দ্বিতীয় বিয়ের বিষয়টি জেনে যায়। এ নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো। এর সূত্র ধরে ৭ মার্চ রাতে শাহিনের সাথে তার দ্বিতীয় স্ত্রী রিমতারও ঝগড়া বাধে। ঝগড়ার এক পর্যায়ে শাহিন তার স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে ৮ মাসের শিশু কন্যা আমেনাকে একই কায়দায় হত্যা করে। লাশ গুম করার জন্য লেপ দিয়ে মুড়িয়ে বেধে রাখে। পরে তার পূর্ব পরিচিত অটোরিক্সা চালক হাশেমকে ডেকে আনে। রাত পৌনে ১ টার দিকে লাশ কোলাপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ পাইকসা এলাকায় রাস্তার পাশে ফেলে পালিয়ে যায়। এরপর সে সিলেট, শরিয়তপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে লুকিয়ে থাকে। সর্বশেষ সে ঢাকায় অবস্থান নেয়।
শাহিন পাহার বালাসুর নতুন বাজার এলাকার তৈয়ব পাহারের প্রথম স্ত্রীর সন্তান। তার প্রথম স্ত্রীর ঘরে ২ ছেলে সন্তান রয়েছে।  অটোরিক্সা চালক মোঃ হাশেমের বাড়ি টাঙ্গাইল। সে এই এলাকায় ভাড়া থেকে অটোরিক্সা চালাতো।
মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা মুন্সীগঞ্জ পিবিআইয়ের ইন্সপেক্টর শাহিনুর আলম জানান, ২ লাশের পরিচয় পাওয়া গেছে। ঘাতক স্বামী ও অটোচালককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
বা/খ: জই

নিউজটি শেয়ার করুন

শ্রীনগরে স্ত্রী ও সন্তানকে হত্যার ঘটনায় স্বামী  গ্রেপ্তার

আপডেট সময় : ০৭:২৩:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩
শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি :
শ্রীনগরে লেপ মোড়ানো মা-মেয়ের লাশ উদ্ধারের ১ বছর পর তাদের পরিচয় মিলেছে। বুধবার রাতে পলাতক স্বামী শাহিন পাহার ও অটোচালক মোঃ হাশেমকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে মুন্সীগঞ্জ জেলা পিবিআই।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০২২ সালের ৮ মার্চ দুপুরে শ্রীনগর উপজেলার কোলাপাড়া ইউনিয়নের ব্রাক্ষম পাইকশা গ্রামের একটি পতিত জমি থেকে লেপ মোড়ানো এক যুবতী নারী ও কন্যা শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মুন্সীগঞ্জ পিবিআইয়ের ইন্সপেক্টর শাহিনুর আলমের উপর মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব পরে। স্বামী শাহীন পাহারের সন্ধানে নেমে ১ বছর পর বুধবার রাতে তাকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। শাহীনের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করা হয় অটোচালক মোঃ হাশেমকে।
বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে এগারটার দিকে লাশ উদ্ধারের ঘটনাস্থলে এসে শাহীন পাহার জানায়, রিমতা তার দ্বিতীয় স্ত্রী। তার বাবার বাড়ি পাবনা সদর উপজেলায়। দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে সে কামারগাও এলাকায় ভাড়া বাড়িতে রেখে গোপনে সংসার করতো। তাদের সংসারে আমেনা নামের এক কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। এরপর শাহিনের প্রথম স্ত্রী দ্বিতীয় বিয়ের বিষয়টি জেনে যায়। এ নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো। এর সূত্র ধরে ৭ মার্চ রাতে শাহিনের সাথে তার দ্বিতীয় স্ত্রী রিমতারও ঝগড়া বাধে। ঝগড়ার এক পর্যায়ে শাহিন তার স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে ৮ মাসের শিশু কন্যা আমেনাকে একই কায়দায় হত্যা করে। লাশ গুম করার জন্য লেপ দিয়ে মুড়িয়ে বেধে রাখে। পরে তার পূর্ব পরিচিত অটোরিক্সা চালক হাশেমকে ডেকে আনে। রাত পৌনে ১ টার দিকে লাশ কোলাপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ পাইকসা এলাকায় রাস্তার পাশে ফেলে পালিয়ে যায়। এরপর সে সিলেট, শরিয়তপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে লুকিয়ে থাকে। সর্বশেষ সে ঢাকায় অবস্থান নেয়।
শাহিন পাহার বালাসুর নতুন বাজার এলাকার তৈয়ব পাহারের প্রথম স্ত্রীর সন্তান। তার প্রথম স্ত্রীর ঘরে ২ ছেলে সন্তান রয়েছে।  অটোরিক্সা চালক মোঃ হাশেমের বাড়ি টাঙ্গাইল। সে এই এলাকায় ভাড়া থেকে অটোরিক্সা চালাতো।
মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা মুন্সীগঞ্জ পিবিআইয়ের ইন্সপেক্টর শাহিনুর আলম জানান, ২ লাশের পরিচয় পাওয়া গেছে। ঘাতক স্বামী ও অটোচালককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
বা/খ: জই