ঢাকা ০৬:১৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

শ্রীনগরে ধান রোপণে কৃষকের ব্যতিব্যস্ততা বাড়ছে

মুনীরুল ইসলাম, শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৮:৫২:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৬২ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
শ্রীনগরে আড়িয়ল বিলসহ উপজেলার বিভিন্ন চক জুড়ে চলছে ধান আবাদের কর্মযজ্ঞ। প্রায় শেষের দিকে জমিতে ধানের চারা রোপণের কাজ। সিংহভাগ ধানি জমির যত্নে পানি সেঁচ, নিড়ানীসহ অন্যান্য কাজে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন স্থানীয়য় কৃষক ও শ্রমিকরা।
উপজেলায় প্রায় ১০ হাজার হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এর মধ্যে আড়িয়ল বিলের শ্রীনগর অংশে ৫ হাজার হেক্টর জমিতে আগাম ধান চাষ করা হচ্ছে। এরই মধ্যে জমিতে বপনকৃত ধানের চারা সবুজ আবহ তৈরী হতে যাচ্ছে। আর কৃষক ফসলের কাঙ্খিত ফলনের লক্ষ্যে জমিতে প্রয়োজনীয় পানি সেঁচ,
সার ছিটানো, কীটনাশক স্প্রে ও নিড়ির কাজকর্ম করছেন। ধানি জমি যত্নের কাজে পুরুষ শ্রমিকের পাশাপাশি নারী শ্রমিকরা সরব মাঠে।
সরেজমিন ঘুরে জানা গেছে, এ কাজে একজন পুরুষ শ্রমিকের ৩ বেলা খাবারসহ দৈনিক পারশ্রমিক ধরা হচ্ছে ৬শ’ টাকা। অপরদিকে একজন নারী শ্রমিককে দু’বেলা খাবারসহ দৈনিক কাজের মজুরী ধরা হচ্ছে ৪শ’ টাকা। যদিও মজুরীর দিক থেকে বিবেচনায় এখনও বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন নারীরা। তার পরেও জীবন যুদ্ধে জীবীকার তাগিদে কাজ করে যাচ্ছেন তারা।
স্থানীয় কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১০ হাজার হেক্টর জমিতে ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে মাঠে কৃষক কাজ করছেন। এর মধ্যে আড়িয়ল বিলের শ্রীনগর অংশে ৫ হাজার হেক্টর জমিতে আগাম ধানের চাষাবাদ হচ্ছে। উচ্চ ফলনশীল ধান চাষের জন্য স্থানীয় কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। এ অঞ্চলে হাইব্রিড-২৮ ও ২৯ জাতের ধান চাষ বেশী হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

শ্রীনগরে ধান রোপণে কৃষকের ব্যতিব্যস্ততা বাড়ছে

আপডেট সময় : ০৮:৫২:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শ্রীনগরে আড়িয়ল বিলসহ উপজেলার বিভিন্ন চক জুড়ে চলছে ধান আবাদের কর্মযজ্ঞ। প্রায় শেষের দিকে জমিতে ধানের চারা রোপণের কাজ। সিংহভাগ ধানি জমির যত্নে পানি সেঁচ, নিড়ানীসহ অন্যান্য কাজে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন স্থানীয়য় কৃষক ও শ্রমিকরা।
উপজেলায় প্রায় ১০ হাজার হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এর মধ্যে আড়িয়ল বিলের শ্রীনগর অংশে ৫ হাজার হেক্টর জমিতে আগাম ধান চাষ করা হচ্ছে। এরই মধ্যে জমিতে বপনকৃত ধানের চারা সবুজ আবহ তৈরী হতে যাচ্ছে। আর কৃষক ফসলের কাঙ্খিত ফলনের লক্ষ্যে জমিতে প্রয়োজনীয় পানি সেঁচ,
সার ছিটানো, কীটনাশক স্প্রে ও নিড়ির কাজকর্ম করছেন। ধানি জমি যত্নের কাজে পুরুষ শ্রমিকের পাশাপাশি নারী শ্রমিকরা সরব মাঠে।
সরেজমিন ঘুরে জানা গেছে, এ কাজে একজন পুরুষ শ্রমিকের ৩ বেলা খাবারসহ দৈনিক পারশ্রমিক ধরা হচ্ছে ৬শ’ টাকা। অপরদিকে একজন নারী শ্রমিককে দু’বেলা খাবারসহ দৈনিক কাজের মজুরী ধরা হচ্ছে ৪শ’ টাকা। যদিও মজুরীর দিক থেকে বিবেচনায় এখনও বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন নারীরা। তার পরেও জীবন যুদ্ধে জীবীকার তাগিদে কাজ করে যাচ্ছেন তারা।
স্থানীয় কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১০ হাজার হেক্টর জমিতে ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে মাঠে কৃষক কাজ করছেন। এর মধ্যে আড়িয়ল বিলের শ্রীনগর অংশে ৫ হাজার হেক্টর জমিতে আগাম ধানের চাষাবাদ হচ্ছে। উচ্চ ফলনশীল ধান চাষের জন্য স্থানীয় কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। এ অঞ্চলে হাইব্রিড-২৮ ও ২৯ জাতের ধান চাষ বেশী হচ্ছে।