শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:১২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
রাজশাহীতে কুখ্যাত ভূমি প্রতারক ফারজানাসহ আটক-৩ রাজশাহীতে আন্তর্জাতিক ক্বিরাত সম্মেলন কলমাকান্দায় সচেতনতা তৈরিতে বৈঠক শ্রীমঙ্গলে তিন দিনব্যাপী পিঠা উৎসব শুরু শ্রীমঙ্গলে টপসয়েল কাটার দায়ে ১ জনের ৫০ হাজার টাকা দন্ড রাস্তাঘাটের ব্যাপক উন্নয়নের পাশাপাশি দুর্ঘটনা অনেক বেড়েছে : সংসদে হানিফ সোনার চামচে রাজ-পরীমণির ছেলের মুখে ভাত! বাংলাদেশ সফরে ইংল্যান্ডের দল ঘোষণা চীন বাংলাদেশের বৃহৎ অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক অংশীদার : বাণিজ্যমন্ত্রী স্মার্ট বাংলাদেশ নির্মাণে সরকার কাজ করছে : স্পিকার হিরো আলমের অভিযোগের কোনও ভিত্তি নেই : ইসি রাশেদা দেশে মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ২০৩১৬ : সংসদে শিক্ষামন্ত্রী রাজউকে অনলাইনে নকশার আবেদন ৩৪ হাজার : সংসদে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আইএমএফের ঋণের প্রথম কিস্তি পেল বাংলাদেশ নোবিপ্রবিতে আট দাবিতে তৃতীয় দিনও আন্দোলন অব্যহত

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে রোমাঞ্চকর জয় ঘানার

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে রোমাঞ্চকর জয় ঘানার

স্পোর্টস ডেস্ক : 

উত্তেজনা ছিল চরমে। দুই গোলে এগিয়ে থাকা ঘানার আত্মবিশ্বাসে ভরপুর। ওদিকে পিছিয়ে থাকা দক্ষিণ কোরিয়া ম্যাচে ফিরতে মরিয়া। এশিয়ার দলটি সেটি পেরেও যায়। দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তনের গল্প লিখে ফেরে সমতায়। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি, ঘানা আবারও এগিয়ে যায়। এরপর আবার দক্ষিণ কোরিয়ার সমতায় ফেরার লড়াই। একের পর এক আক্রমণ ও সুযোগ তৈরি করেও পারেনি তারা।

এ যেন সার্বিয়া-ক্যামেরুন ম্যাচেরই পুনরাবৃত্তি। প্রথমার্ধে ২ গোল করে জয়ের সুবাস পাচ্ছিল ঘানা। দ্বিতীয়ার্ধে ৩ মিনিটে ২ গোল করে খেলায় দারুণভাবে ফিরে আসে দক্ষিণ কোরিয়া। তবে নাটকীয়তার শেষ এখানেই নয়, দৃশ্যপটে হাজির মোহামেদ কুদুস। ২২ বছর বয়সী আয়াক্স তারকা সবটুকু আলো কেড়ে নিলেন ব্যক্তিগত দ্বিতীয় গোল করে।

কাতার বিশ্বকাপে টিকে থাকার লড়াইয়ে উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়ারকে ৩-২ গোলের জয়ে শেষ ষোলোর আশা জিইয়ে রাখল ব্ল্যাক স্টাররা।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যে ৭ টায় এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে মাঠে নামে এই দু’দল। মোহাম্মদ সালিসু ও কুদুস মোহাম্মদের গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে গেছে ঘানা। বিরতি থেকে ফিরেই দুই গোল শোধ করে দক্ষিণ কোরিয়া। তবে শেষ পর্যন্ত কুদুস মোহাম্মদের জোড়া গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ঘানা।

ম্যাচের শুরু থেকেই ঘানার ওপর চড়াও হোয়ে খেলতে থাকে দক্ষিণ কোরিয়া। একের পর একে আক্রমণে ঘানার রক্ষণকে ব্যস্ত রাখে দক্ষিণ কোরিয়া। তবে গোলের দেখা পায়নি তারা। উল্টো ম্যাচের ২৪ মিনিটে গোল খেয়ে বসে দক্ষিণ কোরিয়া। বাম প্রান্ত থেকে পাওয়া ফ্রি কিক থেকে ডি বক্সে বল ভাসিয়ে দিলে সেখান জটলার মধ্যে পাওয়া বল জালে জড়িয়ে ঘানাকে এগিয়ে দেন মোহাম্মদ সালিসু। তার গোলে ম্যাচে প্রথম লিড পায় ঘানা।

ম্যাচে লিড নিয়ে আরও আগ্রাসী হয়ে খেলতে থাকে ঘানা। অন্যদিকে গোল শোধে মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে দক্ষিণ কোরিয়া। ম্যাচের ৩৪ মিনিটে আবারও গোলের দেখা পায় ঘানা। বাম প্রান্ত থেকে জর্ডান আয়েউের বাড়ানো বলে মাথা ছুঁইয়ে বল জালে জড়ান কুদুস মোহাম্মদ। তার গোলে ম্যাচে দুই গোলের লিড পায় ঘানা।

এরপর গোলের আশায় বেশ কিছু আক্রমণ চালায় দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে তা থেকে গোল বের করতে ব্যর্থ হয় তারা। ম্যাচের ৪৫ মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে জং উইয়ংয়ের নেওয়া শট গোলপোস্টের ওপর দিয়ে চলে যায়। শেষ পর্যন্ত আর কোন গোল না হলে দুই গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় ঘানা।

বিরতি থেকে ফিরেই গোলের আশায় মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে দক্ষিণ করিয়া। ম্যাচের ৫২ মিনিটে বাম দিক থেকে বাড়ানো বলে হেড করেন চো গুয়েসুং। কিন্তু তা অসাধারণ সেভে দলকে রক্ষা করেন ঘানার গোলরক্ষক লরেন্স আতি জিগি। কিন্তু ম্যাচের ৫৮ মিনিটে বাম দিক থেকে লি কাঙ্গিনের ক্রস থেকে হেড করে বল জালে জড়ান চো গুয়েসুং। তার গোলে ব্যবধান কমায় দক্ষিণ কোরিয়া।

এক শোধ করে ম্যাচে ফিরে দক্ষিণ কোরিয়া। ব্যবধান কমিয়ে আরও আগ্রাসী হয়ে খেলতে থাকে দক্ষিণ করিয়া। ম্যাচের ৬১ মিনিটে ফের গোলের দেখা পায় দক্ষিণ কোরিয়া। এবারো ত্রাতা হয়ে আসেন চো গুয়েসুং। ডান দিক থেকে আসা ক্রসে ফের হেড করে বল জালে জড়ান তিনি। তার গোলে ম্যাচে সমতায় আসে দক্ষিণ কোরিয়া।

ম্যাচে সমতা এনে খেলার গতি কিছুটা কমিয়ে দেয় দক্ষিণ কোরিয়া। কিন্তু ম্যাচের ৬৮ মিনিটে গোল করে ঘানা। বাম দিকে থেকে ওসমান বুখারীর কাট ব্যাক থেকে গোল করে আবারও ঘানাকে লিড এনে দেন কুদুস মোহাম্মদ।

ম্যাচের ৭২ মিনিটে ডি বক্সের বাইরে সন হিউম মিনকে ফাউল করার কারণে হলুদ কার্ড দেখেন তারিক ল্যাম্পটেই। সেখান থেকে অসাধারণ ফ্রি কিক নেন লি কাঙ্গিন। তবে তা বাম দিকে ঝাপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন লরেন্স আতি জিগি। কর্নার থেকে গোলের সুযোগ তৈরী হলেও তা গোল করতে ব্যর্থ হয় দক্ষিণ করিয়া।

ম্যাচের ৮২ মিনিটে মাঝ মাঠ থেকে একক প্রচেষ্টায় বল নিয়ে এগিয়ে যান কামালদীন সুলেমানা। কিন্তু ফিনিশিংয়ের অভাবে গোল করতে ব্যর্থ হয় ঘানা। ম্যাচের ৮৩ মিনিটে সুযোগ আসে দক্ষিণ কোরিয়ার সামনে। কিন্তু ডি বক্সের ভেতর থেকে চো গুয়েসুংয়ের নেওয়া শট চলে ক্রসবারের সামান্য ওপর দিয়ে।

ম্যাচে সমতা আনতে একের পর এক আক্রমণ চালায় দক্ষিণ কোরিয়া। তবে গোল পেতে ব্যর্থ হয় তারা। শেষ পর্যন্ত আর কোন গোল না হলে ৩-২ গোলের ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ঘানা। এই জয়ের ফলে নক আউট পর্বের আশা বাঁচিয়ে রাখলো ঘানা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *