ঢাকা ১১:০৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

শুক্রবারে ফরিদপুরে মাছ ও তরকারির বাজার চড়া

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:১৬:৪৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৪৪৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

// বিশেষ প্রতিনিধি //

ফরিদপুরে শুক্রবারে সব সময় মাছ ও তরকারির গরম (দামে) চড়া থাকে। এতে শুক্রবার বাজারে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে প্রায় আশি ভাগ সাধারন মানুষ।
আকবর নামে বাজার করতে আশা ব‍্যাক্তি জানান, তিনি আজ শুক্রবার এসেছেন বাজার করবার জন‍্য। তিনি  প্রথমে পোটল ও ঢেড়শ কিনতে
দোকানদারকে বললেন আধা কেজি পোটল আর আধা কেজি ঢেড়শ দেও।
দোকানদারকে টাকা দিয়ে জিজ্ঞাসা করলো দাম হয়েছে কতো?  দোকানদার বললেন, মোট আশি টাকা। অর্থাৎ প্রতিটির মূল্য পরলো আশি টাকা কেজি।
আকবর আরো জানান,  শুক্রবারে বাজারে আসলে মাছ মাংস তরকারিসহ খাদ্য সামগ্রী কেনা খুব সমস্যা আমাদের। তার কারণ কিছু  সরকারি চাকরিজীবী নিয়মিত বাজারের আসে না।
সপ্তাহে একদিন বাজারে এসে দোকানদারা যে দাম চায় তাই দিয়ে কিনে নিয়ে যায়। আমি এ পযর্ন্ত কোন চাকরিজীবীকে দেখিনি বাজারে এসে দামাদামি করে জিনিস পত্র কিনেছেন।
তার কারণ হচ্ছে তারা সকালে অফিসে যায় খালি পকেটে আর বিকেলে বাড়ি ফেরে পকেট ভরে।
আকবর এ ধরনের কর্মকাণ্ডের প্রতিকার চায় যেন সাধারন জনগণ যেন স্বাচ্ছন্দ্যে বাজারে গিয়ে বাজার করতে পারে।
বা/খ: এসআর।

নিউজটি শেয়ার করুন

শুক্রবারে ফরিদপুরে মাছ ও তরকারির বাজার চড়া

আপডেট সময় : ১২:১৬:৪৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ এপ্রিল ২০২৩

// বিশেষ প্রতিনিধি //

ফরিদপুরে শুক্রবারে সব সময় মাছ ও তরকারির গরম (দামে) চড়া থাকে। এতে শুক্রবার বাজারে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে প্রায় আশি ভাগ সাধারন মানুষ।
আকবর নামে বাজার করতে আশা ব‍্যাক্তি জানান, তিনি আজ শুক্রবার এসেছেন বাজার করবার জন‍্য। তিনি  প্রথমে পোটল ও ঢেড়শ কিনতে
দোকানদারকে বললেন আধা কেজি পোটল আর আধা কেজি ঢেড়শ দেও।
দোকানদারকে টাকা দিয়ে জিজ্ঞাসা করলো দাম হয়েছে কতো?  দোকানদার বললেন, মোট আশি টাকা। অর্থাৎ প্রতিটির মূল্য পরলো আশি টাকা কেজি।
আকবর আরো জানান,  শুক্রবারে বাজারে আসলে মাছ মাংস তরকারিসহ খাদ্য সামগ্রী কেনা খুব সমস্যা আমাদের। তার কারণ কিছু  সরকারি চাকরিজীবী নিয়মিত বাজারের আসে না।
সপ্তাহে একদিন বাজারে এসে দোকানদারা যে দাম চায় তাই দিয়ে কিনে নিয়ে যায়। আমি এ পযর্ন্ত কোন চাকরিজীবীকে দেখিনি বাজারে এসে দামাদামি করে জিনিস পত্র কিনেছেন।
তার কারণ হচ্ছে তারা সকালে অফিসে যায় খালি পকেটে আর বিকেলে বাড়ি ফেরে পকেট ভরে।
আকবর এ ধরনের কর্মকাণ্ডের প্রতিকার চায় যেন সাধারন জনগণ যেন স্বাচ্ছন্দ্যে বাজারে গিয়ে বাজার করতে পারে।
বা/খ: এসআর।