ঢাকা ১১:০৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

শিশুদের ঝগড়ায় দাদীসহ বাবা মা রক্তাক্ত

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৭:২৬:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪৪৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
খেলতে গিয়ে শিশুর সঙ্গে শিশুর ঝগড়াকে কেন্দ্র করে এক শিশুর দাদীসহ বাবা মাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করার ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। গত বুধবার  বিকেলে পাবনা ঈশ্বরদীর পাকশী ইউনিয়নের নতুন রুপপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় আহতরা হলেন, শিশুটির দাদী ফাতেমা বেগম (৫২), বাবা শরিফুল ইসলাম (৩৩) ও অন্তঃসত্তা মা আয়েশা খাতুন (২১)।
থানায় দায়ের করা অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন শরিফুলের শিশু ছেলের সঙ্গে প্রতিবেশি সোহাগের ছেলে খেলা করতে যায়। খেলার সময় দুই শিশুর মধ্যে ঝগড়া লাগে। এতে সোহাগ , তার স্ত্রী সম্পা খাতুন ও সুমি খাতুনসহ আরও ২-৩জন অপর শিশুর বাড়িতে গিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালাগালি শুরু করে। এই সময় শিশুটির দাদী ফাতেমা বেগম বের হয়ে গালাগালি করতে নিষেধ করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সোহাগ, সম্পা খাতুন ও সুমি খাতুনসহ অন্যান্যরা শিশুটির দাদী ফাতেমা কিল ঘুষিসহ ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করে রক্তাক্ত করে। এই সময় শিশুটির বাবা শরিফুল ও মা আয়েশা খাতুন ঘর থেকে বের হয়ে আসলে তাদের কেউ কিল ঘুষি ও ইট দিয়ে মাথা ও কপালে আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে।
অভিযোগকারী শরিফুল ইসলাম জানান, শিশুরা খেলার সময় একবার ঝগড়া করে। আরাব পরেক্ষণই তারা এক সঙ্গে খেলা করে। কিন্তু সোহাগরা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় শিশুদের কেন্দ্র করে এভাবে মারপিট করে রক্তাক্ত করে। তার চার মাসের অন্তঃসত্তা স্ত্রীকে প্রহার করে গলায় থাকা ১২ আনা ওজনের স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নিয়েছে। অবুঝ শিশুদের মধ্যে লাগা ঝগড়া কেন্দ্র দাদী, বাবা ও মাকে মারপিট করে রক্তাক্ত করার বিষয়টি খুবই দুঃখজনক ও নিন্দনীয়। তাদের অত্যাচার,জুলুম ও হুমকি খেয়ে বাঁচতে বাধ্য হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান, এই বিষয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

শিশুদের ঝগড়ায় দাদীসহ বাবা মা রক্তাক্ত

আপডেট সময় : ০৭:২৬:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪
খেলতে গিয়ে শিশুর সঙ্গে শিশুর ঝগড়াকে কেন্দ্র করে এক শিশুর দাদীসহ বাবা মাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করার ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। গত বুধবার  বিকেলে পাবনা ঈশ্বরদীর পাকশী ইউনিয়নের নতুন রুপপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় আহতরা হলেন, শিশুটির দাদী ফাতেমা বেগম (৫২), বাবা শরিফুল ইসলাম (৩৩) ও অন্তঃসত্তা মা আয়েশা খাতুন (২১)।
থানায় দায়ের করা অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন শরিফুলের শিশু ছেলের সঙ্গে প্রতিবেশি সোহাগের ছেলে খেলা করতে যায়। খেলার সময় দুই শিশুর মধ্যে ঝগড়া লাগে। এতে সোহাগ , তার স্ত্রী সম্পা খাতুন ও সুমি খাতুনসহ আরও ২-৩জন অপর শিশুর বাড়িতে গিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালাগালি শুরু করে। এই সময় শিশুটির দাদী ফাতেমা বেগম বের হয়ে গালাগালি করতে নিষেধ করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সোহাগ, সম্পা খাতুন ও সুমি খাতুনসহ অন্যান্যরা শিশুটির দাদী ফাতেমা কিল ঘুষিসহ ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করে রক্তাক্ত করে। এই সময় শিশুটির বাবা শরিফুল ও মা আয়েশা খাতুন ঘর থেকে বের হয়ে আসলে তাদের কেউ কিল ঘুষি ও ইট দিয়ে মাথা ও কপালে আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে।
অভিযোগকারী শরিফুল ইসলাম জানান, শিশুরা খেলার সময় একবার ঝগড়া করে। আরাব পরেক্ষণই তারা এক সঙ্গে খেলা করে। কিন্তু সোহাগরা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় শিশুদের কেন্দ্র করে এভাবে মারপিট করে রক্তাক্ত করে। তার চার মাসের অন্তঃসত্তা স্ত্রীকে প্রহার করে গলায় থাকা ১২ আনা ওজনের স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নিয়েছে। অবুঝ শিশুদের মধ্যে লাগা ঝগড়া কেন্দ্র দাদী, বাবা ও মাকে মারপিট করে রক্তাক্ত করার বিষয়টি খুবই দুঃখজনক ও নিন্দনীয়। তাদের অত্যাচার,জুলুম ও হুমকি খেয়ে বাঁচতে বাধ্য হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান, এই বিষয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।