ঢাকা ০৪:৪১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

শাহজাদপুরে শশুর কর্তৃক জামাইকে পিটিয়ে হত্যা : গ্রেফতার তিন জন

স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ০৮:৪৩:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪
  • / ৬০৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে শশুরবাড়ির লোকজন কর্তৃক জামাইকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা । মামলা দায়ের গ্রেফতার তিন। ব্যাপক চাঞ্চল্য ।

মামলা ও থানা পুলিশ সুত্রে জানা গেছে,শাহজাদপুর উপজেলার পোরজনা ইউনিয়নের হরিনাথপুর গ্রামের আলাউদ্দিনের পুত্র শিক্ষক হারুন অর রশিদের (৩৬) পুত্রর সাথে একই গ্রামের ফখরুল মোল্লার মেয়ে রেখা খাতুনের (২৫)বিয়ে পাঁচ বছর আগে।

বিয়ের পর থেকেই স্বামী ও স্ত্রীর সাথে বনিবনা হতে থাকে। গ্রামে ইতিপূর্বে তাদের নিয়ে দরবারও হয়েছিল। ২ মাস পূর্বে নিহত হারুন অর রশিদ তার স্ত্রী রেখা খাতুন কে ছেড়ে দেয়।

এরই ঘটনার সুত্র ধরে গত শুক্রবার বিকেলে ছেলের শশুর ফখরুল মোল্লার নেতৃত্বে জামাইকে পোরজনা বাজার থেকে ফিল্মী কায়দায় বাজার থেকে তুলে নিয়ে একটি জমির মধ্যে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করে জমিতে ফেলে দেয়।

পরে জমির মধ্যে থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে গ্রামবাসি এ সময় নিহতের পরিবারের লোকজনদের আহাজারিতে ভারী হয়ে ওঠে গোটা এলাকা।

পরে থানার পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ মর্গে প্রেরন করে । থানার ওসি আসলাম হোসেন গতকাল রবিবার জানান, নিহত ব্যাক্তি পাবনার আমিনপুর রতনগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে চাকুরী করত।

দুই মাস পূর্বে তার স্ত্রীকে ছেড়ে দেয়ার কারনে শশুর বাড়ির লোকজন তাকে পোরজনা বাজার থেকে তুলে নিয়ে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা। নিহতের শরীরে অসংখ্য লাঠির বাড়ির চিহ্ন রয়েছে। এমনভাবে পিটিয়েছে যা অতীতের বর্বরতাকে হার মানিয়েছে।

এ ঘটনায় ছেলের পিতা আলাউদ্দিন বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। এ ঘটনায় হত্যার সাথে জড়িত হরিনাথপুর গ্রামের বাশার (৪০) মকলেছুর রহমান (৪৫) ও আলমগীর হোসেন কে গ্রেফতার করে।

এদিকে পোরজনা ইউপিচেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বাবু জানান, পারিবারিক দ্বন্ড ও নিহত ব্যাক্তি হারুন অর রশিদ তার স্ত্রীকে ছেড়ে দেয়ার জন্য তাকে শশুর বাড়ির লোকজন পিটিয়ে হত্যা করে। তার মৃত্যুর ঘটনায় এলাকার মানুষ ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহজাদপুর সার্কেল মোঃ কামরুজ্জামান জানান, ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি তবে স্ত্রীকে ছেড়ে দেওয়ায় ঘটনায় তারা শিক্ষক পিটিয়ে হত্যা করে। বাকী আসামীদের খুব শ্রীঘই গ্রেফতার করা হবে।

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

শাহজাদপুরে শশুর কর্তৃক জামাইকে পিটিয়ে হত্যা : গ্রেফতার তিন জন

আপডেট সময় : ০৮:৪৩:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে শশুরবাড়ির লোকজন কর্তৃক জামাইকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা । মামলা দায়ের গ্রেফতার তিন। ব্যাপক চাঞ্চল্য ।

মামলা ও থানা পুলিশ সুত্রে জানা গেছে,শাহজাদপুর উপজেলার পোরজনা ইউনিয়নের হরিনাথপুর গ্রামের আলাউদ্দিনের পুত্র শিক্ষক হারুন অর রশিদের (৩৬) পুত্রর সাথে একই গ্রামের ফখরুল মোল্লার মেয়ে রেখা খাতুনের (২৫)বিয়ে পাঁচ বছর আগে।

বিয়ের পর থেকেই স্বামী ও স্ত্রীর সাথে বনিবনা হতে থাকে। গ্রামে ইতিপূর্বে তাদের নিয়ে দরবারও হয়েছিল। ২ মাস পূর্বে নিহত হারুন অর রশিদ তার স্ত্রী রেখা খাতুন কে ছেড়ে দেয়।

এরই ঘটনার সুত্র ধরে গত শুক্রবার বিকেলে ছেলের শশুর ফখরুল মোল্লার নেতৃত্বে জামাইকে পোরজনা বাজার থেকে ফিল্মী কায়দায় বাজার থেকে তুলে নিয়ে একটি জমির মধ্যে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করে জমিতে ফেলে দেয়।

পরে জমির মধ্যে থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে গ্রামবাসি এ সময় নিহতের পরিবারের লোকজনদের আহাজারিতে ভারী হয়ে ওঠে গোটা এলাকা।

পরে থানার পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ মর্গে প্রেরন করে । থানার ওসি আসলাম হোসেন গতকাল রবিবার জানান, নিহত ব্যাক্তি পাবনার আমিনপুর রতনগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে চাকুরী করত।

দুই মাস পূর্বে তার স্ত্রীকে ছেড়ে দেয়ার কারনে শশুর বাড়ির লোকজন তাকে পোরজনা বাজার থেকে তুলে নিয়ে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা। নিহতের শরীরে অসংখ্য লাঠির বাড়ির চিহ্ন রয়েছে। এমনভাবে পিটিয়েছে যা অতীতের বর্বরতাকে হার মানিয়েছে।

এ ঘটনায় ছেলের পিতা আলাউদ্দিন বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। এ ঘটনায় হত্যার সাথে জড়িত হরিনাথপুর গ্রামের বাশার (৪০) মকলেছুর রহমান (৪৫) ও আলমগীর হোসেন কে গ্রেফতার করে।

এদিকে পোরজনা ইউপিচেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বাবু জানান, পারিবারিক দ্বন্ড ও নিহত ব্যাক্তি হারুন অর রশিদ তার স্ত্রীকে ছেড়ে দেয়ার জন্য তাকে শশুর বাড়ির লোকজন পিটিয়ে হত্যা করে। তার মৃত্যুর ঘটনায় এলাকার মানুষ ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহজাদপুর সার্কেল মোঃ কামরুজ্জামান জানান, ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি তবে স্ত্রীকে ছেড়ে দেওয়ায় ঘটনায় তারা শিক্ষক পিটিয়ে হত্যা করে। বাকী আসামীদের খুব শ্রীঘই গ্রেফতার করা হবে।

বাখ//আর