ঢাকা ০৬:০৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

শাহজাদপুরে জামাইকে হত্যার দায়ে শশুরসহ তিন জনকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ০৬:১১:০৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪
  • / ৫০৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে চাঞ্চল্যকর পোরজনা ইউনিয়নের হরিনাথপুর গ্রামের হারুন অর রশিদকে তার শশুরবাড়ির লোকজন নির্মম ভাবে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে শশুরসহ তিন জন ঢাকার সাভার এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে শাহজাদপুর থানা পুলিশ। মঙ্গলবার শাহজাদপুর আদালতে প্রেরণ করলে আসামীরা বিজ্ঞ আদালতে তাদের সব দোষ স্বীকার করে।

মঙ্গলবার দুপুরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহজাদপুর সার্কেল পিপিএম কামরুজ্জামান সাংবাদিকদের জানান, আসামীদের গত সোমবার দুপুরে তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে ঢাকা জেলার সাভার এলাকা থেকে শিক্ষক হারুন অর রশিদ  হত্যার প্রধান তিন আসামী গ্রেফতার করা হয়।

তারা হলেন, শশুর ফখরুল মোল্লা (৪৫) তার আপন দুই ভাই মুকুল মোল্লা (৪৬) ও ইদ্রিস মোল্লা (৪০) কে গ্রেফতার করে। আজ দুপুরে তাদের শাহজাদপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়। তারা বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। জবানবন্দিতে তারা তাদের সকল দোষ স্বীকার করেছে।

উল্লেখ্য, শাহজাদপুর উপজেলার পোরজনা ইউনিয়নের গাজী আলাউদ্দিন খান আলোর ছোট ছেলে শিক্ষক হারুন অর রশিদ খান তার স্ত্রী রেখা খাতুনকে শরীয়াহ মোতাবেক তালাক দেয় নিহত হারুন পাবনা জেলার আমিনপুর থানাধীন রতনগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক ছিলেন।

দাম্পত্য জীবনে স্ত্রী রেখা খাতুনের উচ্ছৃংখল জীবন যাপন ও পরকিয়ায় লিপ্ত থাকার ঘটনায় অতিষ্ঠ হয়ে প্রায় তিন মাস পূর্বে শিক্ষক হারুন শরিয়া মোতাবেক তার স্ত্রীকে তালাক দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উপজেলার বড়মহারাজপুর গ্রামের তার শ্বশুর ফখরুল মোল্লা, চাচা শ্বশুর দুলাল মোল্লা ও ইউপি সদস্য হাশেম এর নেতৃত্বে তাদের সন্ত্রাসী বাহিনী গত ২৪ মে শুক্রবার রাতে অস্ত্রের মুখে হারুনকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে যায় এবং পোরজনার মাঠের মধ্যে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করে।

এ ব্যাপারে নিহতের পিতা বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামী করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। নিহতের পরিবারের দাবি তাদের ছেলেকে যারা হত্যা করেছে তাদের যেন ফাঁসি হয়।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

শাহজাদপুরে জামাইকে হত্যার দায়ে শশুরসহ তিন জনকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার

আপডেট সময় : ০৬:১১:০৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে চাঞ্চল্যকর পোরজনা ইউনিয়নের হরিনাথপুর গ্রামের হারুন অর রশিদকে তার শশুরবাড়ির লোকজন নির্মম ভাবে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে শশুরসহ তিন জন ঢাকার সাভার এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে শাহজাদপুর থানা পুলিশ। মঙ্গলবার শাহজাদপুর আদালতে প্রেরণ করলে আসামীরা বিজ্ঞ আদালতে তাদের সব দোষ স্বীকার করে।

মঙ্গলবার দুপুরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহজাদপুর সার্কেল পিপিএম কামরুজ্জামান সাংবাদিকদের জানান, আসামীদের গত সোমবার দুপুরে তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে ঢাকা জেলার সাভার এলাকা থেকে শিক্ষক হারুন অর রশিদ  হত্যার প্রধান তিন আসামী গ্রেফতার করা হয়।

তারা হলেন, শশুর ফখরুল মোল্লা (৪৫) তার আপন দুই ভাই মুকুল মোল্লা (৪৬) ও ইদ্রিস মোল্লা (৪০) কে গ্রেফতার করে। আজ দুপুরে তাদের শাহজাদপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়। তারা বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। জবানবন্দিতে তারা তাদের সকল দোষ স্বীকার করেছে।

উল্লেখ্য, শাহজাদপুর উপজেলার পোরজনা ইউনিয়নের গাজী আলাউদ্দিন খান আলোর ছোট ছেলে শিক্ষক হারুন অর রশিদ খান তার স্ত্রী রেখা খাতুনকে শরীয়াহ মোতাবেক তালাক দেয় নিহত হারুন পাবনা জেলার আমিনপুর থানাধীন রতনগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক ছিলেন।

দাম্পত্য জীবনে স্ত্রী রেখা খাতুনের উচ্ছৃংখল জীবন যাপন ও পরকিয়ায় লিপ্ত থাকার ঘটনায় অতিষ্ঠ হয়ে প্রায় তিন মাস পূর্বে শিক্ষক হারুন শরিয়া মোতাবেক তার স্ত্রীকে তালাক দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উপজেলার বড়মহারাজপুর গ্রামের তার শ্বশুর ফখরুল মোল্লা, চাচা শ্বশুর দুলাল মোল্লা ও ইউপি সদস্য হাশেম এর নেতৃত্বে তাদের সন্ত্রাসী বাহিনী গত ২৪ মে শুক্রবার রাতে অস্ত্রের মুখে হারুনকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে যায় এবং পোরজনার মাঠের মধ্যে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করে।

এ ব্যাপারে নিহতের পিতা বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামী করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। নিহতের পরিবারের দাবি তাদের ছেলেকে যারা হত্যা করেছে তাদের যেন ফাঁসি হয়।

 

বাখ//আর