ঢাকা ১১:৪১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১ আশ্বিন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

শাহজাদপুরে  চাঁদাবাজির মামলার আসামীর  ১৩ বছরের কারাদণ্ড 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:১৯:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৭৭১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
// এম. এ হান্নান,আদালত প্রতিবেদক //
সিরাজজগঞ্জের শাহজাদপুর  চাঁদাবাজি মামলার আসামীর  ১৩ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।
মামলার একমাত্র  আসামী মো. রকি কে চাঁদাদাবির অপরাধে ১৩ বছর কারাদন্ড  ১০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ১ বছর কারাদন্ড দিয়েছেন।
বৃহস্পতিবার   দুপুরে শাহজাদপুর যুগ্ম দায়রা জজ আদালতের জজ মো. মামুন অর- রশিদ এ দণ্ডাদেশ  দেন। দন্ডপ্রাপ্ত  মো. রকি শাহজাদপুর পৌর এলাকার চুনিয়াখালি পাড়া মহল্লার  মো. রন্জুর ছেলে।
রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী মো. আহসান হাবিব সোহেল এপিপি তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, বিজ্ঞ আদালতে আসামীর বিরুদ্ধে চাঁদা দাবির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় মামলার একমাত্র আসামীকে বিজ্ঞ আদালত ১৩ বছরের কারাদণ্ড  সেইসাথে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ১বছরের কারাদণ্ড দিয়ছেন।
 জানা যায়, রাষ্ট্র পক্ষের ৮ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে বৃহস্পতিবার   এ মামলায় রায় প্রকাশের জন্য দিন ধার্য করে আদালত।রায় ঘোষনার সময় আসামী পলাতক ছিলো।মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০১৩  সালের ২৩ এপ্রিল শাহজাদপুরের চরবেলতৈল গ্রামের বাসিন্দা মো. রায়হানুল আলম শাহজাদপুর থানায় এজাহার দায়ের করেন।  এজাহারের একমাত্র আসামি মো. রকির বিরুদ্ধে চাঁদা দাবি ও প্রাননাশের হুমকির অভিযোগ করেন।।
এজাহারে বাদির অভিযোগ ছিলো তার তার ছোট বোনকে কলেজে যাওয়া আসার সময় আসামি রকি বিরক্ত করিত।আসামির এরুপ কার্যকলাপের কারনে ৫ বছর আগে তার বোনকে বিয়ে দেন। আসামি রকি বাদির বোনের সংসার ভাঙার ষড়যন্ত্রের লিপ্ত থাকে। আসামির এরুপ কাজের প্রতিবাদ করলে আসামী রকি মামলার বাদি ও তার পরিবারের  কাছে ৩ লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে অন্যথায় আসামি রকি মামলার বাদির বোনের কুরুচিপূর্ণ ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে বাদির বোনের সংসার ভাঙার হুমকি দেয়।পরবর্তীতে ২০১৭ সালের ২৩ এপ্রিল শাহজাদপুর সরকারি কলেজের সামনে  মামলার বাদির পথরোধ করে করে চাঁদা দাবি করে।মামলার পর তদন্ত শুরু করে পুলিশ।তদন্ত শেষে শাহজাদপুর থানার এসআই কে এম রাকিবুল হুদা মামলার একমাত্র  আসামি  মো. রকির বিরুদ্ধে অভিযোগ পত্র আদালতে দাখিল করেন।
বা/খ/রা

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

শাহজাদপুরে  চাঁদাবাজির মামলার আসামীর  ১৩ বছরের কারাদণ্ড 

আপডেট সময় : ০৫:১৯:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩
// এম. এ হান্নান,আদালত প্রতিবেদক //
সিরাজজগঞ্জের শাহজাদপুর  চাঁদাবাজি মামলার আসামীর  ১৩ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।
মামলার একমাত্র  আসামী মো. রকি কে চাঁদাদাবির অপরাধে ১৩ বছর কারাদন্ড  ১০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ১ বছর কারাদন্ড দিয়েছেন।
বৃহস্পতিবার   দুপুরে শাহজাদপুর যুগ্ম দায়রা জজ আদালতের জজ মো. মামুন অর- রশিদ এ দণ্ডাদেশ  দেন। দন্ডপ্রাপ্ত  মো. রকি শাহজাদপুর পৌর এলাকার চুনিয়াখালি পাড়া মহল্লার  মো. রন্জুর ছেলে।
রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী মো. আহসান হাবিব সোহেল এপিপি তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, বিজ্ঞ আদালতে আসামীর বিরুদ্ধে চাঁদা দাবির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় মামলার একমাত্র আসামীকে বিজ্ঞ আদালত ১৩ বছরের কারাদণ্ড  সেইসাথে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ১বছরের কারাদণ্ড দিয়ছেন।
 জানা যায়, রাষ্ট্র পক্ষের ৮ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে বৃহস্পতিবার   এ মামলায় রায় প্রকাশের জন্য দিন ধার্য করে আদালত।রায় ঘোষনার সময় আসামী পলাতক ছিলো।মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০১৩  সালের ২৩ এপ্রিল শাহজাদপুরের চরবেলতৈল গ্রামের বাসিন্দা মো. রায়হানুল আলম শাহজাদপুর থানায় এজাহার দায়ের করেন।  এজাহারের একমাত্র আসামি মো. রকির বিরুদ্ধে চাঁদা দাবি ও প্রাননাশের হুমকির অভিযোগ করেন।।
এজাহারে বাদির অভিযোগ ছিলো তার তার ছোট বোনকে কলেজে যাওয়া আসার সময় আসামি রকি বিরক্ত করিত।আসামির এরুপ কার্যকলাপের কারনে ৫ বছর আগে তার বোনকে বিয়ে দেন। আসামি রকি বাদির বোনের সংসার ভাঙার ষড়যন্ত্রের লিপ্ত থাকে। আসামির এরুপ কাজের প্রতিবাদ করলে আসামী রকি মামলার বাদি ও তার পরিবারের  কাছে ৩ লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে অন্যথায় আসামি রকি মামলার বাদির বোনের কুরুচিপূর্ণ ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে বাদির বোনের সংসার ভাঙার হুমকি দেয়।পরবর্তীতে ২০১৭ সালের ২৩ এপ্রিল শাহজাদপুর সরকারি কলেজের সামনে  মামলার বাদির পথরোধ করে করে চাঁদা দাবি করে।মামলার পর তদন্ত শুরু করে পুলিশ।তদন্ত শেষে শাহজাদপুর থানার এসআই কে এম রাকিবুল হুদা মামলার একমাত্র  আসামি  মো. রকির বিরুদ্ধে অভিযোগ পত্র আদালতে দাখিল করেন।
বা/খ/রা