ঢাকা ০৭:০৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

শার্শা সীমান্তে কোটি টাকার সোনার বার ফেলে নদী সাঁতরে ভারতে পালালো পাচারকারী 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৫৪:০৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ মে ২০২৩
  • / ৪৪৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
// আহম্মদ আলী শাহিন, যশোর // 
যশোরের শার্শা সীমান্ত থেকে এক কোটি ২০ লাখ ২৪ হাজার টাকা মূল্যের ১২টি সোনার বার উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যরা। শুক্রবার বিকালে শার্শা উপজেলার গোগা সীমান্তের ইছামতি নদীর পাড় থেকে সোনার চালানটি উদ্ধার করা হয়।
বিজিবি জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় সোনার একটি চালান বাংলাদেশ হতে ভারতে পাচার হতে পারে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে খুলনা ২১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক এর নেতৃত্বে ব্যাটালিয়ন সদরের একটি বিশেষ টহল দল গোগা গ্রামের জোড়া পুকুর নামক স্থানে ইছামতি নদীর পাড়ে গোপনীয়তার সাথে অবস্থান নেয়। কিছু সময় পর এক ব্যক্তি টহল দলের নিকটবর্তী আসলে তাকে থামতে বলে। উক্ত ব্যক্তি না থেমে দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে বিজিবি টহল দল তাকে ধরার জন্য পিছনে ধাওয়া করলে তার সাথে থাকা কালো রঙের একটি ব্যাগ ফেলে ইছামতি নদী সাঁতরে ভারতের অভ্যন্তরে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে বিজিবি টহল দল ব্যাগটি তল্লাশি করে এক কেজি ৪০২ গ্রাম ওজনের মোট ১২ পিস সোনার বার উদ্ধার করে। সোনার বারগুলো কালো রংগের ব্যাগের ভিতরে কস্টেপ দ্বারা পেচানো অবস্থায় অভিনব কায়দায় লুকায়িত ছিল। উদ্ধারকৃত সোনার বারগুলো গোগা সীমান্ত এলাকা দিয়ে ভারতে পাচার করতে চেয়েছিল। উদ্ধারকৃত সোনার আনুমানিক সিজার মূল্য এক কোটি ২০ লাখ ২৪ হাজার টাকা।
খুলনা ২১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ তানভীর রহমান (পিএসসি, ইঞ্জিনিয়ার্স) সোনা উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বিজিবি এর টহল অত্যন্ত জোরদার থাকায় এ সোনার চালানটি উদ্ধার করা সম্ভব  হয়েছে। উদ্ধারকৃত সোনা শার্শা থানায় মামলা দায়েরের মাধ্যমে ট্রেজারীতে জমা দেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।
বা/খ: এসআর।

নিউজটি শেয়ার করুন

শার্শা সীমান্তে কোটি টাকার সোনার বার ফেলে নদী সাঁতরে ভারতে পালালো পাচারকারী 

আপডেট সময় : ১০:৫৪:০৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ মে ২০২৩
// আহম্মদ আলী শাহিন, যশোর // 
যশোরের শার্শা সীমান্ত থেকে এক কোটি ২০ লাখ ২৪ হাজার টাকা মূল্যের ১২টি সোনার বার উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যরা। শুক্রবার বিকালে শার্শা উপজেলার গোগা সীমান্তের ইছামতি নদীর পাড় থেকে সোনার চালানটি উদ্ধার করা হয়।
বিজিবি জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় সোনার একটি চালান বাংলাদেশ হতে ভারতে পাচার হতে পারে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে খুলনা ২১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক এর নেতৃত্বে ব্যাটালিয়ন সদরের একটি বিশেষ টহল দল গোগা গ্রামের জোড়া পুকুর নামক স্থানে ইছামতি নদীর পাড়ে গোপনীয়তার সাথে অবস্থান নেয়। কিছু সময় পর এক ব্যক্তি টহল দলের নিকটবর্তী আসলে তাকে থামতে বলে। উক্ত ব্যক্তি না থেমে দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে বিজিবি টহল দল তাকে ধরার জন্য পিছনে ধাওয়া করলে তার সাথে থাকা কালো রঙের একটি ব্যাগ ফেলে ইছামতি নদী সাঁতরে ভারতের অভ্যন্তরে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে বিজিবি টহল দল ব্যাগটি তল্লাশি করে এক কেজি ৪০২ গ্রাম ওজনের মোট ১২ পিস সোনার বার উদ্ধার করে। সোনার বারগুলো কালো রংগের ব্যাগের ভিতরে কস্টেপ দ্বারা পেচানো অবস্থায় অভিনব কায়দায় লুকায়িত ছিল। উদ্ধারকৃত সোনার বারগুলো গোগা সীমান্ত এলাকা দিয়ে ভারতে পাচার করতে চেয়েছিল। উদ্ধারকৃত সোনার আনুমানিক সিজার মূল্য এক কোটি ২০ লাখ ২৪ হাজার টাকা।
খুলনা ২১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ তানভীর রহমান (পিএসসি, ইঞ্জিনিয়ার্স) সোনা উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বিজিবি এর টহল অত্যন্ত জোরদার থাকায় এ সোনার চালানটি উদ্ধার করা সম্ভব  হয়েছে। উদ্ধারকৃত সোনা শার্শা থানায় মামলা দায়েরের মাধ্যমে ট্রেজারীতে জমা দেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।
বা/খ: এসআর।