ঢাকা ০৬:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

র‌্যাব-১২’র অভিযানে চোর দলের ৪ জন গ্রেফতার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:৩৩:০৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • / ৪৫৭ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

জহুরুল ইসলাম :

সিরাজগঞ্জে গরু চুরিতে বাধা দেয়ায় পিকআপ চাপায় গৃহবধূকে হত্যার ঘটনায় আন্ত জেলা চোর চক্রের ৪ জন পলাতক আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১২। ২ ফেব্রুয়ারি বেলা ১১ টায় র‌্যাব-১২’র ব্যাটালিয়নে একটি বিশেষ প্রেস ব্রিফিং এর মাধ্যমে সিরাজগঞ্জ র‌্যাব-১ ‘র অধিনায়ক মোঃ মারুফ হোসেন পিপিএম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

প্রেস ব্রিফিং-এ জানান, ১ ফেব্রুয়ারি ভোর ৪টার দিকে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার সায়দাবাদ ইউনিয়নের পঞ্চসারটিয়া গ্রামের একটি বাড়ি থেকে গরু চুরি করে পিকআপে করে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতিকালে গোয়াল ঘরে থাকা অন্যান্য গরুর ডাকে টের পেয়ে বাড়ির গৃহবধূ সেলিনা খাতুন(৪৫), স্বামী আমির চাঁন(৫৩), তার দুই ছেলে জুবাইল(২১) এবং ওয়ালিদ(১৪) বাড়ীর বাইরে বেরিয়ে এসে দেখেন তাদের ২ টি গরু পিকআপে তোলা হয়েছে। গাড়ী থামানোর জন্য গৃহবধূ সেলিনা খাতুন(৪৫) ও তার ছেলে পিকআপের সামনে গিয়ে গাড়ী থামানোর চেষ্টা করেন। এসময় চোর চক্রটি দ্রুত গতিতে পিকআপ চালিয়ে মা ও ছেলেকে চাকার নিচে পৃষ্ট করে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই গৃহবধূ সেলিনা খাতুন(৪৫) নিহত হন এবং ছেলে জুবায়ের গুরুতর আহত হন। এদিকে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার সময় চরসারটিয়া এলাকায় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গরুসহ পিকআপটি রেখে পালিয়ে যায় চোর চক্র। পরবর্তীতে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে চুরি হওয়া গরুসহ পিকআপটি থানায় নিয়ে আসে।

এ ঘটনায় নিহত সেলিনার স্বামী বাদি হয়ে সিরাজগঞ্জ জেলার সদর থানায় মোঃ আমিরুল ইসলাম, আমিরসহ অজ্ঞাত নামা আসামীর বিরুদ্ধে দস্যুতা এবং হত্যা করার অপরাধে একটি মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক ভাবে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে, পাশাপাশি বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে ব্যাপক ভাবে প্রচারিত হয়। পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের ব্যাপারে র‌্যাব উদ্যোগী হয়ে গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রাখে।

এরই ধারাবাহিকতায় সিরাজগঞ্জ র‌্যাব-১ ‘র অধিনায়ক মোঃ মারুফ হোসেন পিপিএম এর দিক নির্দেশনায় র‌্যাব-১ এর সহায়তায় র‌্যাব-১২’র একটি চৌকস আভিযানিক দল আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি ও র‌্যাব গোয়েন্দা শাখার সার্বিক সহযোগীতায় গতকাল রাতভর সিরাজগঞ্জ এবং টাংগাইলের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এ অভিযানে সিরাজগঞ্জ সদর থানার মৃত আবুল শেখের ছেলে মোঃ লতিফ হোসেন(৪৫), রায়গঞ্জ থানার শিবপুর গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের পুত্র জহিরুল শেখ(৩৫), বগুড়া জেলার শাহজাহানপুর থানার চন্ডীবর গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে আঃ ছালাম(৩৮) এবং টাঙ্গাইলের ধনবাড়ি থানার বাড়ইপাড়া গ্রামের মোঃ জহুর উদ্দিনের ছেলে মোঃ মিন্টু মিয়াকে(৩৪) গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত আসামিরা পূর্বেও একাধিক চুরি এবং ডাকাতির সাথে সম্পৃক্ততা থাকায় বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের আদালতে প্রেরণ করতঃ পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানিয়েছে র‌্যাব।

বা/খ: জই

নিউজটি শেয়ার করুন

র‌্যাব-১২’র অভিযানে চোর দলের ৪ জন গ্রেফতার

আপডেট সময় : ০৪:৩৩:০৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

জহুরুল ইসলাম :

সিরাজগঞ্জে গরু চুরিতে বাধা দেয়ায় পিকআপ চাপায় গৃহবধূকে হত্যার ঘটনায় আন্ত জেলা চোর চক্রের ৪ জন পলাতক আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১২। ২ ফেব্রুয়ারি বেলা ১১ টায় র‌্যাব-১২’র ব্যাটালিয়নে একটি বিশেষ প্রেস ব্রিফিং এর মাধ্যমে সিরাজগঞ্জ র‌্যাব-১ ‘র অধিনায়ক মোঃ মারুফ হোসেন পিপিএম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

প্রেস ব্রিফিং-এ জানান, ১ ফেব্রুয়ারি ভোর ৪টার দিকে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার সায়দাবাদ ইউনিয়নের পঞ্চসারটিয়া গ্রামের একটি বাড়ি থেকে গরু চুরি করে পিকআপে করে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতিকালে গোয়াল ঘরে থাকা অন্যান্য গরুর ডাকে টের পেয়ে বাড়ির গৃহবধূ সেলিনা খাতুন(৪৫), স্বামী আমির চাঁন(৫৩), তার দুই ছেলে জুবাইল(২১) এবং ওয়ালিদ(১৪) বাড়ীর বাইরে বেরিয়ে এসে দেখেন তাদের ২ টি গরু পিকআপে তোলা হয়েছে। গাড়ী থামানোর জন্য গৃহবধূ সেলিনা খাতুন(৪৫) ও তার ছেলে পিকআপের সামনে গিয়ে গাড়ী থামানোর চেষ্টা করেন। এসময় চোর চক্রটি দ্রুত গতিতে পিকআপ চালিয়ে মা ও ছেলেকে চাকার নিচে পৃষ্ট করে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই গৃহবধূ সেলিনা খাতুন(৪৫) নিহত হন এবং ছেলে জুবায়ের গুরুতর আহত হন। এদিকে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার সময় চরসারটিয়া এলাকায় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গরুসহ পিকআপটি রেখে পালিয়ে যায় চোর চক্র। পরবর্তীতে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে চুরি হওয়া গরুসহ পিকআপটি থানায় নিয়ে আসে।

এ ঘটনায় নিহত সেলিনার স্বামী বাদি হয়ে সিরাজগঞ্জ জেলার সদর থানায় মোঃ আমিরুল ইসলাম, আমিরসহ অজ্ঞাত নামা আসামীর বিরুদ্ধে দস্যুতা এবং হত্যা করার অপরাধে একটি মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক ভাবে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে, পাশাপাশি বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে ব্যাপক ভাবে প্রচারিত হয়। পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের ব্যাপারে র‌্যাব উদ্যোগী হয়ে গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রাখে।

এরই ধারাবাহিকতায় সিরাজগঞ্জ র‌্যাব-১ ‘র অধিনায়ক মোঃ মারুফ হোসেন পিপিএম এর দিক নির্দেশনায় র‌্যাব-১ এর সহায়তায় র‌্যাব-১২’র একটি চৌকস আভিযানিক দল আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি ও র‌্যাব গোয়েন্দা শাখার সার্বিক সহযোগীতায় গতকাল রাতভর সিরাজগঞ্জ এবং টাংগাইলের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এ অভিযানে সিরাজগঞ্জ সদর থানার মৃত আবুল শেখের ছেলে মোঃ লতিফ হোসেন(৪৫), রায়গঞ্জ থানার শিবপুর গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের পুত্র জহিরুল শেখ(৩৫), বগুড়া জেলার শাহজাহানপুর থানার চন্ডীবর গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে আঃ ছালাম(৩৮) এবং টাঙ্গাইলের ধনবাড়ি থানার বাড়ইপাড়া গ্রামের মোঃ জহুর উদ্দিনের ছেলে মোঃ মিন্টু মিয়াকে(৩৪) গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত আসামিরা পূর্বেও একাধিক চুরি এবং ডাকাতির সাথে সম্পৃক্ততা থাকায় বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের আদালতে প্রেরণ করতঃ পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানিয়েছে র‌্যাব।

বা/খ: জই