ঢাকা ০৮:৩৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রোসোর ঝড়ো সেঞ্চুরিতে প্রোটিয়াদের বড় সংগ্রহ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:১৯:৫৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৩৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

স্পোর্টস ডেস্ক : 
রাইলি রোসোর ঝড়ে অসহায় হয়ে পড়লেন বাংলাদেশের ব্যাটাররা। তিনি যখন আউট হয়েছেন, ততক্ষণে দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোর ২০০ ছুঁইছুঁই। কুইন্টন ডি ককের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের রেকর্ড জুটি গড়ার পথে সেঞ্চুরিও তুলে নিয়েছেন রোসো। কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে তার টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে রানের পাহাড় গড়েছে প্রোটিয়ারা।

বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর) সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে বাংলাদেশের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে তারপরই ব্যাটিংয়ে ঝড় শুরু। একটা সময় আড়াইশো রানও ডালভাত মনে হচ্ছিল। তবে শেষদিকে দারুণ বোলিংয়ে তা হতে দেননি সাকিবরা।

মেঘলা আবহাওয়া। থেমে থেমে বৃষ্টির সঙ্গে হালকা বাতাস। সিডনিতে এমন আবহাওয়ায় ব্যাটে ঝড় তুললেন দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটাররা। বাংলাদেশি বোলারদের তুলোধুনো করে রুশো-ডি ককের ব্যাটে ভর করে ৫ উইকেট হারিয়ে ২০৫ রানের বড় সংগ্রহ পেয়েছে প্রোটিয়ারা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কখনো টি-টোয়েন্টিতে জিততে না পারা বাংলাদেশকে ইতিহাস গড়তে করতে হবে ২০৬ রান।

এর আগে ইনিংসের প্রথম ওভারেই অধিনায়ক টেম্বা বাভুমাকে ফেরান তাসকিন। অফ স্টাম্পের বাইরে টাইগার পেসারের অসাধারণ এক লেংথ বলে খোঁচা মেরে আউট হন বাভুমা। উইকেটের পেছনে ক্যাচ নিতে তেমন একটা বেগ পেতে হয়নি উইকেটকিপার নুরুল হাসানের। ৬ বল খেলে ২ রান করে সাজঘরে ফিরে যান প্রোটিয়া অধিনায়ক।

তবে দ্রুত উইকেট হারানোর পর টাইগার বোলারদের ওপর চড়াও হন প্রোটিয়া দুই ব্যাটার ডি কক ও রাইলি রুশো। মাত্র ২ রান খরচায় ১ উইকেট তুলে নিয়ে স্বপ্নের শুরুর পর নিজের দ্বিতীয় ওভার করতে এসেই এলোমেলো তাসকিনকে দেখা গেল। পরপর দুই নো এবং চার-ছক্কায় এক ওভারেই দেন ২১ রান। বাংলাদেশের এখন পর্যন্ত সবচেয়ে খরুচে ওভার এটি।

তাসকিনের পর চতুর্থ ওভারে বল তুলে নেয়া তরুণ পেসার হাসান মাহমুদের ওপর চড়াও হন রাইলি রুশো। ইয়াসির আলি রাব্বির জায়গায় দলে সুযোগ পাওয়া মেহেদী হাসান মিরাজকেও ছাড় দেননি দুই প্রোটিয়া ব্যাটার। এ অফস্পিন অলরাউন্ডার প্রথম ২ ওভারে দিয়েছেন ২৪ রান।

প্রথম ৬ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা তোলে ৬৩ রান। এ বছর পাওয়ারপ্লেতে দক্ষিণ আফ্রিকার সর্বোচ্চ স্কোর এটি। এগারোতম ওভারে দলীয় সংগ্রহ শতরান ছাড়ায় তাদের।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

রোসোর ঝড়ো সেঞ্চুরিতে প্রোটিয়াদের বড় সংগ্রহ

আপডেট সময় : ১১:১৯:৫৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ অক্টোবর ২০২২

স্পোর্টস ডেস্ক : 
রাইলি রোসোর ঝড়ে অসহায় হয়ে পড়লেন বাংলাদেশের ব্যাটাররা। তিনি যখন আউট হয়েছেন, ততক্ষণে দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোর ২০০ ছুঁইছুঁই। কুইন্টন ডি ককের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের রেকর্ড জুটি গড়ার পথে সেঞ্চুরিও তুলে নিয়েছেন রোসো। কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে তার টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে রানের পাহাড় গড়েছে প্রোটিয়ারা।

বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর) সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে বাংলাদেশের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে তারপরই ব্যাটিংয়ে ঝড় শুরু। একটা সময় আড়াইশো রানও ডালভাত মনে হচ্ছিল। তবে শেষদিকে দারুণ বোলিংয়ে তা হতে দেননি সাকিবরা।

মেঘলা আবহাওয়া। থেমে থেমে বৃষ্টির সঙ্গে হালকা বাতাস। সিডনিতে এমন আবহাওয়ায় ব্যাটে ঝড় তুললেন দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটাররা। বাংলাদেশি বোলারদের তুলোধুনো করে রুশো-ডি ককের ব্যাটে ভর করে ৫ উইকেট হারিয়ে ২০৫ রানের বড় সংগ্রহ পেয়েছে প্রোটিয়ারা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কখনো টি-টোয়েন্টিতে জিততে না পারা বাংলাদেশকে ইতিহাস গড়তে করতে হবে ২০৬ রান।

এর আগে ইনিংসের প্রথম ওভারেই অধিনায়ক টেম্বা বাভুমাকে ফেরান তাসকিন। অফ স্টাম্পের বাইরে টাইগার পেসারের অসাধারণ এক লেংথ বলে খোঁচা মেরে আউট হন বাভুমা। উইকেটের পেছনে ক্যাচ নিতে তেমন একটা বেগ পেতে হয়নি উইকেটকিপার নুরুল হাসানের। ৬ বল খেলে ২ রান করে সাজঘরে ফিরে যান প্রোটিয়া অধিনায়ক।

তবে দ্রুত উইকেট হারানোর পর টাইগার বোলারদের ওপর চড়াও হন প্রোটিয়া দুই ব্যাটার ডি কক ও রাইলি রুশো। মাত্র ২ রান খরচায় ১ উইকেট তুলে নিয়ে স্বপ্নের শুরুর পর নিজের দ্বিতীয় ওভার করতে এসেই এলোমেলো তাসকিনকে দেখা গেল। পরপর দুই নো এবং চার-ছক্কায় এক ওভারেই দেন ২১ রান। বাংলাদেশের এখন পর্যন্ত সবচেয়ে খরুচে ওভার এটি।

তাসকিনের পর চতুর্থ ওভারে বল তুলে নেয়া তরুণ পেসার হাসান মাহমুদের ওপর চড়াও হন রাইলি রুশো। ইয়াসির আলি রাব্বির জায়গায় দলে সুযোগ পাওয়া মেহেদী হাসান মিরাজকেও ছাড় দেননি দুই প্রোটিয়া ব্যাটার। এ অফস্পিন অলরাউন্ডার প্রথম ২ ওভারে দিয়েছেন ২৪ রান।

প্রথম ৬ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা তোলে ৬৩ রান। এ বছর পাওয়ারপ্লেতে দক্ষিণ আফ্রিকার সর্বোচ্চ স্কোর এটি। এগারোতম ওভারে দলীয় সংগ্রহ শতরান ছাড়ায় তাদের।