ঢাকা ০২:১৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রেলমন্ত্রীর হাতে লাঞ্ছিত ইউএনও

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৪৬:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মার্চ ২০২৩
  • / ৪৪৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে সরকারি অনুষ্ঠানের ব্যানারে ‘জয় বাংলা’ না লেখায় রেলমন্ত্রী ও পঞ্চগড়-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট নূরুল ইসলাম সুজনের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গোলাম ফেরদৌস।

সোমবার (৬ মার্চ) সকালে উপজেলার সুন্দরদীঘি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রেলমন্ত্রী।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসনাৎ জামান চৌধুরী জর্জ অভিযোগ করেন, ইউএনওকে জয় বাংলা লিখতে বললে তিনি গেজেট দেখতে চান। বিষয়টি রেলমন্ত্রীকে জানানো হলে তিনি রেগে গিয়ে গোলাম ফেরদৌসকে হাত ধরে সেখান থেকে বের হয়ে যেতে নির্দেশ দেন।

এ ঘটনায় একটি ভিডিও প্রকাশ হয়। ভিডিওতে দেখা যায়, আনুষ্ঠানিকভাবে পতাকা উত্তোলনের পর রেলমন্ত্রী উপস্থিত নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন। এ সময় হাসনাৎ জামান ব্যানারে জয় বাংলা না লেখায় মন্ত্রীকে অভিযোগ দেন। বিষয়টি জানতে পেরে উপস্থিত সাধারণ সম্পাদকের অনুসারীরা ইউএনওকে উদ্দেশ্য করে স্লোগান দিতে থাকেন। একপর্যায়ে রেলমন্ত্রী রেগে গিয়ে ইউএনও গোলাম ফেরদৌসের হাত ধরে অনুষ্ঠানস্থল থেকে বের হয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিতে দেখা যায়। পরে ইউএনও ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

উল্লেখ্য, ২০২২ সালের ২ মার্চ জারিকৃত গেজেট অনুযায়ী, সাংবিধানিক পদাধিকারী, দেশে ও দেশের বাইরে কর্মরত সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও সংবিধিবদ্ধ সংস্থার কর্মকর্তা/কর্মচারীরা সব জাতীয় দিবস উদযাপন এবং অন্যান্য রাষ্ট্রীয় ও সরকারি অনুষ্ঠানে বক্তব্যের শেষে ‘জয় বাংলা’ স্লোগান উচ্চারণ করবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

রেলমন্ত্রীর হাতে লাঞ্ছিত ইউএনও

আপডেট সময় : ০১:৪৬:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মার্চ ২০২৩

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে সরকারি অনুষ্ঠানের ব্যানারে ‘জয় বাংলা’ না লেখায় রেলমন্ত্রী ও পঞ্চগড়-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট নূরুল ইসলাম সুজনের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গোলাম ফেরদৌস।

সোমবার (৬ মার্চ) সকালে উপজেলার সুন্দরদীঘি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রেলমন্ত্রী।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসনাৎ জামান চৌধুরী জর্জ অভিযোগ করেন, ইউএনওকে জয় বাংলা লিখতে বললে তিনি গেজেট দেখতে চান। বিষয়টি রেলমন্ত্রীকে জানানো হলে তিনি রেগে গিয়ে গোলাম ফেরদৌসকে হাত ধরে সেখান থেকে বের হয়ে যেতে নির্দেশ দেন।

এ ঘটনায় একটি ভিডিও প্রকাশ হয়। ভিডিওতে দেখা যায়, আনুষ্ঠানিকভাবে পতাকা উত্তোলনের পর রেলমন্ত্রী উপস্থিত নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন। এ সময় হাসনাৎ জামান ব্যানারে জয় বাংলা না লেখায় মন্ত্রীকে অভিযোগ দেন। বিষয়টি জানতে পেরে উপস্থিত সাধারণ সম্পাদকের অনুসারীরা ইউএনওকে উদ্দেশ্য করে স্লোগান দিতে থাকেন। একপর্যায়ে রেলমন্ত্রী রেগে গিয়ে ইউএনও গোলাম ফেরদৌসের হাত ধরে অনুষ্ঠানস্থল থেকে বের হয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিতে দেখা যায়। পরে ইউএনও ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

উল্লেখ্য, ২০২২ সালের ২ মার্চ জারিকৃত গেজেট অনুযায়ী, সাংবিধানিক পদাধিকারী, দেশে ও দেশের বাইরে কর্মরত সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও সংবিধিবদ্ধ সংস্থার কর্মকর্তা/কর্মচারীরা সব জাতীয় দিবস উদযাপন এবং অন্যান্য রাষ্ট্রীয় ও সরকারি অনুষ্ঠানে বক্তব্যের শেষে ‘জয় বাংলা’ স্লোগান উচ্চারণ করবেন।