ঢাকা ০৭:১১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রেকর্ড গড়লো দিনাজপুরের গোর-ই শহীদ সেনা ঈদগাহ মাঠ : জামাতে প্রায় ৬ লক্ষ মুসল্লির উপস্থিতি 

মোঃ খাদেমুল ইসলাম
  • আপডেট সময় : ০২:১৯:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪৮৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সর্ববৃহৎ ঈদগা মাঠ দিনাজপুরের বড় ময়দানে ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে । বৃহৎ এই জামাতে প্রায় ৬ লক্ষ মুসল্লী অংশ নেয় বলে জানান মুসল্লী ও আয়োজকরা।

গতকাল সকাল ৯ টায় এই জামাত অনুষ্ঠিত হয় । দিনাজপুরসহ আশপাশের জেলা থেকে আগত প্রায় ৬ লক্ষাধিক মুসল্লী এই জামাতে অংশগ্রহণ করে । জামাতে ইমামতি করেন সদর হাসপাতাল জামে মসজিদের খতিব মাওলানা শামসুল হক কাসেমী।

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালতের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এই জামাতে অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় দেশ ও জাতির কল্যাণে দোয়া কামনা করা হয়।

এ সময় রংপুর জেলার বদরগঞ্জ উপজেলা থেকে আগত মুসল্লী সোলায়মান আলী বলেন, পাশের জেলা হওয়া সত্ত্বেও আমি এতদিন পর্যন্ত জানতাম না দিনাজপুরের এই বড় মাঠ ঈদগাতে এত লোকের সমাগমে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। আমরা বদরগঞ্জ থেকে প্রায় দেড় হাজার লোক বাসে করে এসে এই জামাতে অংশ নিয়েছি ‌। প্রায় ৬ লক্ষ লোকের এই ঈদ জামাত নিশ্চয়ই মহান সৃষ্টি কর্তা কবুল করবেন।

নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলা থেকে আগত মুসল্লী আনোয়ার হোসেন বলেন, এর আগেও এই জামাতে অংশগ্রহণ করে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছি। লক্ষ লক্ষ মানুষের এই হাতকে সৃষ্টি কর্তা নিরাশ করতে পারেন না। নিশ্চয়ই সবার জীবনে অনাবিল সুখ শান্তি আগামী দিনগুলোতে বিরাজ করবে।

জেলার বিরল উপজেলার নাড়াবাড়ি এলাকা থেকে আগত মুসল্লী মোঃ আবুল কালাম আজাদ বলেন, সত্যিই সৃষ্টিকর্তার নিকট এই জামাতে নামাজ পড়ে আমি একজন ভাগ্যবান। দিনাজপুরের ছোট ছোট পাড়া গুলোতে যে জামাতগুলো অনুষ্ঠিত হয় সে জামাতগুলো যদি এখানে এসে অংশ নেয় তাহলে এই ঈদ জামাতে ৮ লক্ষাধিক লোক পার হয়ে যাবে। এজন্য স্থানীয় মসজিদ কমিটি গুলোর মধ্যে সমন্বয় সাধনের পরামর্শ প্রদান করেন তিনি।

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার জর্জা আদালতের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম বলেন, মহান সৃষ্টিকর্তা আমাদেরকে দেশের এই বৃহত্তর জামাতে অংশ নিয়ে নামাজ পড়ার সুযোগ করে দিয়েছেন সেজন্য সৃষ্টিকর্তার প্রতি অকুণ্ঠ কৃতজ্ঞতা। তিনি নিশ্চয়ই আমাদের সকলের মনোবাসনা পূরণ করবেন।

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের ইকবালুর রহিম এমপি বলেন, আজকের এই পবিত্র দিনে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় একমাস সিয়াম সাধনার পর আমরা লক্ষ লক্ষ লোক সমবেত হয়েছি। যারা আমাদের শান্তি শৃংখলা এবং সুষ্ঠ উপায়ে নামাজ আদায়ের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের এবং দিনাজপুর জেলা পৌরসভা কে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ। সেই সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ এ কারণে যে এই জামাতে অংশ নেওয়ার জন্য এবারে তিনি বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা রেখেছিলেন। এজন্য দিনাজপুর বাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে অজস্র ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা।

নিউজটি শেয়ার করুন

রেকর্ড গড়লো দিনাজপুরের গোর-ই শহীদ সেনা ঈদগাহ মাঠ : জামাতে প্রায় ৬ লক্ষ মুসল্লির উপস্থিতি 

আপডেট সময় : ০২:১৯:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪

নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সর্ববৃহৎ ঈদগা মাঠ দিনাজপুরের বড় ময়দানে ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে । বৃহৎ এই জামাতে প্রায় ৬ লক্ষ মুসল্লী অংশ নেয় বলে জানান মুসল্লী ও আয়োজকরা।

গতকাল সকাল ৯ টায় এই জামাত অনুষ্ঠিত হয় । দিনাজপুরসহ আশপাশের জেলা থেকে আগত প্রায় ৬ লক্ষাধিক মুসল্লী এই জামাতে অংশগ্রহণ করে । জামাতে ইমামতি করেন সদর হাসপাতাল জামে মসজিদের খতিব মাওলানা শামসুল হক কাসেমী।

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালতের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এই জামাতে অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় দেশ ও জাতির কল্যাণে দোয়া কামনা করা হয়।

এ সময় রংপুর জেলার বদরগঞ্জ উপজেলা থেকে আগত মুসল্লী সোলায়মান আলী বলেন, পাশের জেলা হওয়া সত্ত্বেও আমি এতদিন পর্যন্ত জানতাম না দিনাজপুরের এই বড় মাঠ ঈদগাতে এত লোকের সমাগমে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। আমরা বদরগঞ্জ থেকে প্রায় দেড় হাজার লোক বাসে করে এসে এই জামাতে অংশ নিয়েছি ‌। প্রায় ৬ লক্ষ লোকের এই ঈদ জামাত নিশ্চয়ই মহান সৃষ্টি কর্তা কবুল করবেন।

নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলা থেকে আগত মুসল্লী আনোয়ার হোসেন বলেন, এর আগেও এই জামাতে অংশগ্রহণ করে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছি। লক্ষ লক্ষ মানুষের এই হাতকে সৃষ্টি কর্তা নিরাশ করতে পারেন না। নিশ্চয়ই সবার জীবনে অনাবিল সুখ শান্তি আগামী দিনগুলোতে বিরাজ করবে।

জেলার বিরল উপজেলার নাড়াবাড়ি এলাকা থেকে আগত মুসল্লী মোঃ আবুল কালাম আজাদ বলেন, সত্যিই সৃষ্টিকর্তার নিকট এই জামাতে নামাজ পড়ে আমি একজন ভাগ্যবান। দিনাজপুরের ছোট ছোট পাড়া গুলোতে যে জামাতগুলো অনুষ্ঠিত হয় সে জামাতগুলো যদি এখানে এসে অংশ নেয় তাহলে এই ঈদ জামাতে ৮ লক্ষাধিক লোক পার হয়ে যাবে। এজন্য স্থানীয় মসজিদ কমিটি গুলোর মধ্যে সমন্বয় সাধনের পরামর্শ প্রদান করেন তিনি।

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার জর্জা আদালতের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম বলেন, মহান সৃষ্টিকর্তা আমাদেরকে দেশের এই বৃহত্তর জামাতে অংশ নিয়ে নামাজ পড়ার সুযোগ করে দিয়েছেন সেজন্য সৃষ্টিকর্তার প্রতি অকুণ্ঠ কৃতজ্ঞতা। তিনি নিশ্চয়ই আমাদের সকলের মনোবাসনা পূরণ করবেন।

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের ইকবালুর রহিম এমপি বলেন, আজকের এই পবিত্র দিনে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় একমাস সিয়াম সাধনার পর আমরা লক্ষ লক্ষ লোক সমবেত হয়েছি। যারা আমাদের শান্তি শৃংখলা এবং সুষ্ঠ উপায়ে নামাজ আদায়ের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের এবং দিনাজপুর জেলা পৌরসভা কে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ। সেই সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ এ কারণে যে এই জামাতে অংশ নেওয়ার জন্য এবারে তিনি বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা রেখেছিলেন। এজন্য দিনাজপুর বাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে অজস্র ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা।