ঢাকা ১০:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ

হাওরাঞ্চল প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৬:৫৭:৪৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪
  • / ৪৪২ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরে ২১ বছরের তরুণীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে রুবেল মিয়া (৩৬) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত রুবেল উপজেলার হুমাইপুর ইউনিয়নের টান গোসাইপুর পঞ্চায়েত বাড়ীর বাসিন্দা হাজী সিদ্দিক মিয়ার ছেলে। স্থানীয় ইউপি সদস্য সাহেদ মিয়া জানান, গত ১৬ মে (বৃহস্পতিবার) রাতে নির্যাতিত মেয়েটি নিজ বাড়ি টান গোসাইপুর যাওয়ার পথে অভিযুক্ত রুবেল মিয়া কয়েকজন সঙ্গীর সহায়তায় তাকে তুলে নিয়ে হাওরের পাকা রাস্তার মাথায় বটগাছের নিচে মধ্যরাত পর্যন্ত আটকে রেখে নেশাগ্রস্ত হয়ে ধর্ষণ করে।

পরে মানুষের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়। এ বিষয়ে বাজিতপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বাজিতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোর্শেদ জামান বলেন, এ বিষয়ে আমি একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ

আপডেট সময় : ০৬:৫৭:৪৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরে ২১ বছরের তরুণীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে রুবেল মিয়া (৩৬) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত রুবেল উপজেলার হুমাইপুর ইউনিয়নের টান গোসাইপুর পঞ্চায়েত বাড়ীর বাসিন্দা হাজী সিদ্দিক মিয়ার ছেলে। স্থানীয় ইউপি সদস্য সাহেদ মিয়া জানান, গত ১৬ মে (বৃহস্পতিবার) রাতে নির্যাতিত মেয়েটি নিজ বাড়ি টান গোসাইপুর যাওয়ার পথে অভিযুক্ত রুবেল মিয়া কয়েকজন সঙ্গীর সহায়তায় তাকে তুলে নিয়ে হাওরের পাকা রাস্তার মাথায় বটগাছের নিচে মধ্যরাত পর্যন্ত আটকে রেখে নেশাগ্রস্ত হয়ে ধর্ষণ করে।

পরে মানুষের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়। এ বিষয়ে বাজিতপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বাজিতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোর্শেদ জামান বলেন, এ বিষয়ে আমি একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

বাখ//আর