ঢাকা ১২:২৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রাশিয়াকে আরো সামরিক সরঞ্জাম দেবে ইরান

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৩১:২৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৫২ বার পড়া হয়েছে

ফাইল ছবি

বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 
রাশিয়াকে আরাে ড্রোন ও ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে ইরান। আজ বৃহস্পতিবার ইরানের দুই জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ও দুই কূটনীতিকের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানায় বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ৬ অক্টোবর ইরানের প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মোখবারের নেতৃত্বাধীন একটি দল রাশিয়া সফর করেন। এ সফরে রাশিয়াকে ড্রোন ও নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় দলটি।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, ইরানের সফরকারী দলে দেশটির শক্তিশালী বিপ্লবী গার্ড বাহিনী এবং সুপ্রিম ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের সদস্যও ছিলেন।

সফরকারী দলে থাকা ইরানের এক শীর্ষ কূটনীতিক রয়টার্সকে জানান, রাশিয়া আরও ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র চায়। বিশেষ করে ‘ফাতেহ’ ও ‘জুলফাগার’ ক্ষেপণাস্ত্র চায় রাশিয়া।

আর পাশ্চাত্যের এক কর্মকর্তা জানান, রাশিয়া ও ইরানের মধ্যে ড্রোন ও ‘জুলফাগার’ ছাড়াও ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপযোগ্য স্বল্পপাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের ব্যাপারে চুক্তি হয়েছে।

ইরান ‘শাহীদ-১৩৬’ বা ‘কামিকাজে’ ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করতে রাজি হয়েছে বলে জানা গেছে। ‘ফাতেহ-১১০’ ও ‘জুলফাগার’ ক্ষেপণাস্ত্র ৩০০ থেকে ৭০০ কিলোমিটার দূরত্বের লক্ষ্য বস্তুতে আঘাত করতে সক্ষম হবে।

এ ধরনের সরবরাহ ২০১৫ সালের জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবের লঙ্ঘন হয়েছে বলে পাশ্চাত্যের কর্মকর্তাদের দাবি প্রত্যাখ্যান করেছেন ইরানি কূটনীতিক।

ইউক্রেন দাবি করছে, রাশিয়ার সেনারা ‘শাহীদ-১৩৬’ ড্রোন ব্যবহার করে তাদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। তবে রাশিয়াকে ড্রোন সরবরাহ করার কথা অস্বীকার করে আসছে ইরান। রাশিয়াও ইউক্রেনে ইরানি ড্রোনে হামলা চালানোর কথা প্রত্যাখ্যান করেছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

রাশিয়াকে আরো সামরিক সরঞ্জাম দেবে ইরান

আপডেট সময় : ১০:৩১:২৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ অক্টোবর ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : 
রাশিয়াকে আরাে ড্রোন ও ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে ইরান। আজ বৃহস্পতিবার ইরানের দুই জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ও দুই কূটনীতিকের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানায় বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ৬ অক্টোবর ইরানের প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মোখবারের নেতৃত্বাধীন একটি দল রাশিয়া সফর করেন। এ সফরে রাশিয়াকে ড্রোন ও নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় দলটি।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, ইরানের সফরকারী দলে দেশটির শক্তিশালী বিপ্লবী গার্ড বাহিনী এবং সুপ্রিম ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের সদস্যও ছিলেন।

সফরকারী দলে থাকা ইরানের এক শীর্ষ কূটনীতিক রয়টার্সকে জানান, রাশিয়া আরও ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র চায়। বিশেষ করে ‘ফাতেহ’ ও ‘জুলফাগার’ ক্ষেপণাস্ত্র চায় রাশিয়া।

আর পাশ্চাত্যের এক কর্মকর্তা জানান, রাশিয়া ও ইরানের মধ্যে ড্রোন ও ‘জুলফাগার’ ছাড়াও ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপযোগ্য স্বল্পপাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের ব্যাপারে চুক্তি হয়েছে।

ইরান ‘শাহীদ-১৩৬’ বা ‘কামিকাজে’ ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করতে রাজি হয়েছে বলে জানা গেছে। ‘ফাতেহ-১১০’ ও ‘জুলফাগার’ ক্ষেপণাস্ত্র ৩০০ থেকে ৭০০ কিলোমিটার দূরত্বের লক্ষ্য বস্তুতে আঘাত করতে সক্ষম হবে।

এ ধরনের সরবরাহ ২০১৫ সালের জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবের লঙ্ঘন হয়েছে বলে পাশ্চাত্যের কর্মকর্তাদের দাবি প্রত্যাখ্যান করেছেন ইরানি কূটনীতিক।

ইউক্রেন দাবি করছে, রাশিয়ার সেনারা ‘শাহীদ-১৩৬’ ড্রোন ব্যবহার করে তাদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। তবে রাশিয়াকে ড্রোন সরবরাহ করার কথা অস্বীকার করে আসছে ইরান। রাশিয়াও ইউক্রেনে ইরানি ড্রোনে হামলা চালানোর কথা প্রত্যাখ্যান করেছে।