ঢাকা ০৩:১৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রাশিয়ার ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞায় সম্মত ইইউ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৩:০৭:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪
  • / ৪১২ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ইউক্রেনে অভিযান চালানোয় রাশিয়ার বিরুদ্ধে ১৪তম নিষেধাজ্ঞা প্যাকেজে সম্মত হয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন-ইইউ এর দেশগুলো।

কূটনীতিকেরা বলেছেন, ইইউ জলসীমায় রুশ তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞাও অন্তর্ভুক্ত। নতুন করে রাশিয়ার ৪৭টি সংস্থা ও ৬৯ ব্যক্তিকে ইইউর নিষেধাজ্ঞার তালিকায় যুক্ত করা হলো। ফলে রাশিয়ার অন্তত ২ হাজার ২০০ প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

আগামী সোমবার (২৪শে জুন) ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা মিলিত হলে প্যাকেজটি আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমোদিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

কূটনীতিকেরা আরও বলেছেন, ইইউ দেশগুলো অনুমোদিত সংস্থার তালিকায় ট্যাংকার যুক্ত করেছে। সেই সাথে যে দুটি রাশিয়ান মালিকানাধীন জাহাজ উত্তর কোরিয়া থেকে সামরিক সরঞ্জাম নিয়ে যাচ্ছে। সেগুলোও নিষেধাজ্ঞার আওতায় এনেছে।

এদিকে, রাশিয়ার দুটি জ্বালানি ডিপোতে ড্রোন হামলা চালিয়েছে ইউক্রেন। বৃহস্পতিবার এই ড্রোন হামলার পর তেলের ডিপোতে আগুন জ্বলতে দেখা গেছে। সম্প্রতি রাশিয়ার তেলশিল্পের ওপর ইউক্রেনের ধারাবাহিক হামলার অংশ হিসেবে এই ড্রোন হামলা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাম্বভ অঞ্চলের গভর্নর মাক্সিম ইয়েগোরভ জানান, এই হামলায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

ইউক্রেন বলছে, রাশিয়ার জ্বালানি স্থাপনাগুলো তাদের বৈধ লক্ষ্যবস্তু। কারণ এগুলো ইউক্রেনে চলমান রাশিয়ার যুদ্ধে ভূমিকা রাখছে। ইউক্রেনীয় শহর ও অবকাঠামোতে রাশিয়ার হামলার প্রতিক্রিয়া হিসেবেই এই আক্রমণগুলো ন্যায্য বলে দাবি করছে কিয়েভ।

নিউজটি শেয়ার করুন

রাশিয়ার ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞায় সম্মত ইইউ

আপডেট সময় : ০৩:০৭:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪

ইউক্রেনে অভিযান চালানোয় রাশিয়ার বিরুদ্ধে ১৪তম নিষেধাজ্ঞা প্যাকেজে সম্মত হয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন-ইইউ এর দেশগুলো।

কূটনীতিকেরা বলেছেন, ইইউ জলসীমায় রুশ তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞাও অন্তর্ভুক্ত। নতুন করে রাশিয়ার ৪৭টি সংস্থা ও ৬৯ ব্যক্তিকে ইইউর নিষেধাজ্ঞার তালিকায় যুক্ত করা হলো। ফলে রাশিয়ার অন্তত ২ হাজার ২০০ প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

আগামী সোমবার (২৪শে জুন) ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা মিলিত হলে প্যাকেজটি আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমোদিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

কূটনীতিকেরা আরও বলেছেন, ইইউ দেশগুলো অনুমোদিত সংস্থার তালিকায় ট্যাংকার যুক্ত করেছে। সেই সাথে যে দুটি রাশিয়ান মালিকানাধীন জাহাজ উত্তর কোরিয়া থেকে সামরিক সরঞ্জাম নিয়ে যাচ্ছে। সেগুলোও নিষেধাজ্ঞার আওতায় এনেছে।

এদিকে, রাশিয়ার দুটি জ্বালানি ডিপোতে ড্রোন হামলা চালিয়েছে ইউক্রেন। বৃহস্পতিবার এই ড্রোন হামলার পর তেলের ডিপোতে আগুন জ্বলতে দেখা গেছে। সম্প্রতি রাশিয়ার তেলশিল্পের ওপর ইউক্রেনের ধারাবাহিক হামলার অংশ হিসেবে এই ড্রোন হামলা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাম্বভ অঞ্চলের গভর্নর মাক্সিম ইয়েগোরভ জানান, এই হামলায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

ইউক্রেন বলছে, রাশিয়ার জ্বালানি স্থাপনাগুলো তাদের বৈধ লক্ষ্যবস্তু। কারণ এগুলো ইউক্রেনে চলমান রাশিয়ার যুদ্ধে ভূমিকা রাখছে। ইউক্রেনীয় শহর ও অবকাঠামোতে রাশিয়ার হামলার প্রতিক্রিয়া হিসেবেই এই আক্রমণগুলো ন্যায্য বলে দাবি করছে কিয়েভ।