ঢাকা ১২:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রায়পুরার মরজাল ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে ঈদুল ফিতরের নামাজ অনুষ্ঠিত

সাইফুল ইসলাম রুদ্র, নরসিংদী জেলা প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০২:২৩:৫৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪৭০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নরসিংদী রায়পুরা উপজেলার মরজাল ইউনিয়নের মাদ্রসার ঈদগাহ ময়দান সহ বিভিন্ন স্থানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) সকাল দশটায়ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় রমজানের রোজা কবুলের ফরিয়াদ ও মুসলিম উম্মাহর জন্য শান্তি কামনা করা হয়।

ঈদুল ফিতরের জামাতের ইমামতি করেছেন মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক। এতে অংশ নেন প্রায় ৫শত এর বেশি মুসল্লি। পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করার জন্য ঈদগাহে এসে পরিচিতদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন মুসল্লিরা।
নামাজ পড়তে আসা এক মুসল্লী বলেন, পবিত্র রমজানের রোজা রেখে ঈদের নামাজ পড়লাম। সকল ভেদাভেদ ভুলে সুন্দর সমাজে বসবাস করতে চাই।

মরজাল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান বলেন, শান্তি ও সম্প্রীতির বার্তা নিয়ে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে বর্ণবৈষম্য ভুলে সবাই এক সারিতে দাঁড়িয়ে পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন। দীর্ঘ এক মাস আত্মসংযমের পর ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করেছেন মুসল্লিরা।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন মরজাল বাসষ্ট্যান্ডের সভাপতি দুলাল খান সহ এই ইউনিয়নের সম্মানীত ব্যক্তিবর্গগন।
এসময় মরজাল বাসষ্ট্যান্ডের সভাপতি দুলাল খান বলেন, এক মাস আত্মসংযম করে মুসল্লিরা ঈদের নামাজ পড়েছেন। ঈদের আনুষ্ঠানিক সূচনা ঈদের নামাজের মধ্য দিয়ে শুরু হয়। নামাজের আগে ও পরে সকল ভেদাভেদ ভুলে কোলাকুলির মধ্য দিয়ে আনন্দ প্রকাশ করে সবাই। এই আনন্দ সম্প্রীতি ও শান্তির বার্তা দেয়। আল্লাহ আমাদেরকে সম্প্রীতি ও শান্তির জীবনে চলার তাওফিক দিক।

এ সময় নামাজ শেষে মাদ্রাসার সামনে টাওয়ারের সামনে বিভিন্ন খেলনার সামগ্রী বিক্রি করতে দেখা যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

রায়পুরার মরজাল ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে ঈদুল ফিতরের নামাজ অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ০২:২৩:৫৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪

নরসিংদী রায়পুরা উপজেলার মরজাল ইউনিয়নের মাদ্রসার ঈদগাহ ময়দান সহ বিভিন্ন স্থানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) সকাল দশটায়ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় রমজানের রোজা কবুলের ফরিয়াদ ও মুসলিম উম্মাহর জন্য শান্তি কামনা করা হয়।

ঈদুল ফিতরের জামাতের ইমামতি করেছেন মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক। এতে অংশ নেন প্রায় ৫শত এর বেশি মুসল্লি। পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করার জন্য ঈদগাহে এসে পরিচিতদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন মুসল্লিরা।
নামাজ পড়তে আসা এক মুসল্লী বলেন, পবিত্র রমজানের রোজা রেখে ঈদের নামাজ পড়লাম। সকল ভেদাভেদ ভুলে সুন্দর সমাজে বসবাস করতে চাই।

মরজাল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান বলেন, শান্তি ও সম্প্রীতির বার্তা নিয়ে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে বর্ণবৈষম্য ভুলে সবাই এক সারিতে দাঁড়িয়ে পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন। দীর্ঘ এক মাস আত্মসংযমের পর ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করেছেন মুসল্লিরা।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন মরজাল বাসষ্ট্যান্ডের সভাপতি দুলাল খান সহ এই ইউনিয়নের সম্মানীত ব্যক্তিবর্গগন।
এসময় মরজাল বাসষ্ট্যান্ডের সভাপতি দুলাল খান বলেন, এক মাস আত্মসংযম করে মুসল্লিরা ঈদের নামাজ পড়েছেন। ঈদের আনুষ্ঠানিক সূচনা ঈদের নামাজের মধ্য দিয়ে শুরু হয়। নামাজের আগে ও পরে সকল ভেদাভেদ ভুলে কোলাকুলির মধ্য দিয়ে আনন্দ প্রকাশ করে সবাই। এই আনন্দ সম্প্রীতি ও শান্তির বার্তা দেয়। আল্লাহ আমাদেরকে সম্প্রীতি ও শান্তির জীবনে চলার তাওফিক দিক।

এ সময় নামাজ শেষে মাদ্রাসার সামনে টাওয়ারের সামনে বিভিন্ন খেলনার সামগ্রী বিক্রি করতে দেখা যায়।