ঢাকা ১২:০৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রাজ্য এবং রাজের মঙ্গলের জন্যই আলাদা হয়ে গেলাম: পরীমণি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৩৮:৩৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১ জানুয়ারী ২০২৩
  • / ৪৫০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বিনোদন ডেস্ক : 

নতুন বছরের প্রথম প্রহরটা ভালো ছিল না হালের জনপ্রিয় আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনি এবং নায়ক শরিফুল রাজের। পরীমণি ও রাজের সুখের সংসারে বইছে ঝড়। শুক্রবার রাতে ফেসবুকে এক পোস্টে পরীমণি নিজেই এই ঝড়ের আভাস দেন। শনিবার রাতে নিজেদের মধ্যে মান-অভিমান ভুলে আবারও এক হন তারা। তবে নতুন বছরের প্রথম প্রহরে নায়িকার পোস্ট করা রক্ত ঝরার দুটি ছবি থেকেই বোঝা যায় সম্পর্কটা জোড়া লাগেনি। বরং দুজনের পথ আরও দূরে সরে গেছে। রোববার বিকেলে পরীমণির ও রাজের আলাদা দুটি পোস্টও এই সম্পর্ককে আলাদা করে দিয়েছে।

রোববার ভোরে এই চিত্রনায়িকা ফেসবুকে দুটি ছবি প্রকাশ করেন। ছবিগুলোতে দেখা যায়, কোলবালিশে ছোপ ছোপ রক্তের দাগ। আরেকটি ছবিতে বিছানার চাদরেও ছিটিয়ে আছে লাল রক্তবিন্দু। তারই পাশে নায়িকার পা। ক্যাপশনে পরী লিখেছেন, হ্যাপি নিউ ইয়ার। আগামীকাল সংবাদ সম্মেলন, লোডিং…।

শরিফুল রাজ, ছেলে রাজ্যকে কোলে নিয়ে জানিয়েছেন নতুন বছরের শুভেচ্ছা। সেখানে তিনি পরীর নামটিও মুখে আনলেন না।

অন্যদিকে পরীমণি জানালেন, রাজ্য এবং রাজের মঙ্গলের জন্যই আলাদা হয়ে গেছেন তিনি।

পরীমণি বলেন, ‘একটা সম্পর্কে পুরোপুরি সিরিয়াস বা খুব করে না চাইলে একটা মেয়ে, বাচ্চা নেয়ার মতো এতো বড় সিদ্ধান্ত নিতে পারে না কখনোই। আমার জীবনের সবটুকু চেষ্টা যখন এই সম্পর্কটাকে ঠিকঠাক টিকিয়ে রাখা তখনই আমাকে পেয়ে বসা হলো। যেন, শত কোটি বার যা ইচ্ছে তাই করলেও সব শেষে ওই যে আমি মানিয়ে নেই এটা রীতিমতো দারুণ এক সাংসারিক সূত্র হয়ে দাঁড়ালো।

রাজ্য ও রাজের মঙ্গলের জন্যই আলাদা হয়ে গেলাম: পরীমণি

এই নায়িকার ভাষ্যে, আমি জোর দিয়ে বলতে পারি আমাদের এই সম্পর্ক এত দিন আমার এফোর্টে টিকে ছিলো শুধু। কিন্তু বারবার গায়ে হাত তোলা পর্যায়ে পৌঁছালে কোন সম্পর্কই আর সম্পর্ক থাকে না। স্রেফ বিষ্ঠা হয়ে যায়।

রাজ্যর মায়ের কথায়, রাজ্যের দিকে তাকিয়ে বারবার সব ভুলে যাই। সব ঠিক করার জন্যে পড়ে থাকি। কিন্তু তাতে কি আসলেই আমার বাচ্চা ভালো থাকবে! না। একটা অসুস্থ সম্পর্ক এতো কাছে থেকে দেখে দেখে ও বড় হতে পারে না। তাই আমি, রাজ্য এবং রাজের মঙ্গল এর জন্যেই আলাদা হয়ে গেলাম।

পরী আরও বলেন, রাজ এখন শুধু আমার প্রাক্তন’ই না, আমার ছেলের বাবাও। তাই রাজ্যের বাবার সন্মান রাখতে পাবলিকলি আর বাকি কিছু বলছি না আমি। তবে আমার উপর তার আর তার পরিবারের কোন অসুস্থ আচরণ বা হার্মফুল কিছু করার চেষ্টা করলে আমি কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবো।

গণমাধ্যম কর্মীদের উদ্দেশ্যে এই নায়িকা বলেন, সম্মানিত গণমাধ্যমকর্মী যারা রয়েছেন আপনারা নিশ্চয়ই আমার মানসিক অবস্থা বুঝতে পারবেন আশা করছি। আমাকে একটু সময় দিন। শারীরিকভাবেও আমি বিধ্বস্ত।

সর্বশেষে পরী বলেন, রাজ এখন শুধু আমার প্রাক্তনই না, আমার ছেলের বাবাও। তাই রাজ্যের বাবার সন্মান রাখতে পাবলিকলি আর বাকি কিছু বলছি না আমি। তবে আমার ওপর তার আর তার পরিবারের কোনো অসুস্থ আচরণ বা হার্মফুল কিছু করার চেষ্টা করলে, আমি কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবো। আপনারা নিশ্চয়ই আমার মানসিক অবস্থা বুঝতে পারবেন আশা করছি। আমাকে একটু সময় দিন। শারীরিক ভাবেও আমি বিধ্বস্ত। রাজ্য তার বাবা-মাকে একসঙ্গে নিয়ে বড় হতে পারল না। এর থেকে কষ্টের আর কি হতে পারে আমার কাছে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১৭ অক্টোবর গোপনে বিয়ে করেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা পরীমণি ও অভিনেতা শরিফুল রাজ। মাত্র সাতদিনের পরিচয়ে তারা বিয়ে করেছিলেন। চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি সেই খবর প্রকাশ্যে আনেন তারা। একইদিন সন্তানধারণের বার্তাটিও দেন এ দম্পতি। এরপর ২২ জানুয়ারি পারিবারিক আয়োজনে বিয়ে সারেন। গত ১০ আগস্ট তাদের ঘর আলো করে এসেছে পুত্রসন্তান-শাহীম মুহাম্মদ রাজ্য।

নিউজটি শেয়ার করুন

রাজ্য এবং রাজের মঙ্গলের জন্যই আলাদা হয়ে গেলাম: পরীমণি

আপডেট সময় : ১১:৩৮:৩৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১ জানুয়ারী ২০২৩

বিনোদন ডেস্ক : 

নতুন বছরের প্রথম প্রহরটা ভালো ছিল না হালের জনপ্রিয় আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনি এবং নায়ক শরিফুল রাজের। পরীমণি ও রাজের সুখের সংসারে বইছে ঝড়। শুক্রবার রাতে ফেসবুকে এক পোস্টে পরীমণি নিজেই এই ঝড়ের আভাস দেন। শনিবার রাতে নিজেদের মধ্যে মান-অভিমান ভুলে আবারও এক হন তারা। তবে নতুন বছরের প্রথম প্রহরে নায়িকার পোস্ট করা রক্ত ঝরার দুটি ছবি থেকেই বোঝা যায় সম্পর্কটা জোড়া লাগেনি। বরং দুজনের পথ আরও দূরে সরে গেছে। রোববার বিকেলে পরীমণির ও রাজের আলাদা দুটি পোস্টও এই সম্পর্ককে আলাদা করে দিয়েছে।

রোববার ভোরে এই চিত্রনায়িকা ফেসবুকে দুটি ছবি প্রকাশ করেন। ছবিগুলোতে দেখা যায়, কোলবালিশে ছোপ ছোপ রক্তের দাগ। আরেকটি ছবিতে বিছানার চাদরেও ছিটিয়ে আছে লাল রক্তবিন্দু। তারই পাশে নায়িকার পা। ক্যাপশনে পরী লিখেছেন, হ্যাপি নিউ ইয়ার। আগামীকাল সংবাদ সম্মেলন, লোডিং…।

শরিফুল রাজ, ছেলে রাজ্যকে কোলে নিয়ে জানিয়েছেন নতুন বছরের শুভেচ্ছা। সেখানে তিনি পরীর নামটিও মুখে আনলেন না।

অন্যদিকে পরীমণি জানালেন, রাজ্য এবং রাজের মঙ্গলের জন্যই আলাদা হয়ে গেছেন তিনি।

পরীমণি বলেন, ‘একটা সম্পর্কে পুরোপুরি সিরিয়াস বা খুব করে না চাইলে একটা মেয়ে, বাচ্চা নেয়ার মতো এতো বড় সিদ্ধান্ত নিতে পারে না কখনোই। আমার জীবনের সবটুকু চেষ্টা যখন এই সম্পর্কটাকে ঠিকঠাক টিকিয়ে রাখা তখনই আমাকে পেয়ে বসা হলো। যেন, শত কোটি বার যা ইচ্ছে তাই করলেও সব শেষে ওই যে আমি মানিয়ে নেই এটা রীতিমতো দারুণ এক সাংসারিক সূত্র হয়ে দাঁড়ালো।

রাজ্য ও রাজের মঙ্গলের জন্যই আলাদা হয়ে গেলাম: পরীমণি

এই নায়িকার ভাষ্যে, আমি জোর দিয়ে বলতে পারি আমাদের এই সম্পর্ক এত দিন আমার এফোর্টে টিকে ছিলো শুধু। কিন্তু বারবার গায়ে হাত তোলা পর্যায়ে পৌঁছালে কোন সম্পর্কই আর সম্পর্ক থাকে না। স্রেফ বিষ্ঠা হয়ে যায়।

রাজ্যর মায়ের কথায়, রাজ্যের দিকে তাকিয়ে বারবার সব ভুলে যাই। সব ঠিক করার জন্যে পড়ে থাকি। কিন্তু তাতে কি আসলেই আমার বাচ্চা ভালো থাকবে! না। একটা অসুস্থ সম্পর্ক এতো কাছে থেকে দেখে দেখে ও বড় হতে পারে না। তাই আমি, রাজ্য এবং রাজের মঙ্গল এর জন্যেই আলাদা হয়ে গেলাম।

পরী আরও বলেন, রাজ এখন শুধু আমার প্রাক্তন’ই না, আমার ছেলের বাবাও। তাই রাজ্যের বাবার সন্মান রাখতে পাবলিকলি আর বাকি কিছু বলছি না আমি। তবে আমার উপর তার আর তার পরিবারের কোন অসুস্থ আচরণ বা হার্মফুল কিছু করার চেষ্টা করলে আমি কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবো।

গণমাধ্যম কর্মীদের উদ্দেশ্যে এই নায়িকা বলেন, সম্মানিত গণমাধ্যমকর্মী যারা রয়েছেন আপনারা নিশ্চয়ই আমার মানসিক অবস্থা বুঝতে পারবেন আশা করছি। আমাকে একটু সময় দিন। শারীরিকভাবেও আমি বিধ্বস্ত।

সর্বশেষে পরী বলেন, রাজ এখন শুধু আমার প্রাক্তনই না, আমার ছেলের বাবাও। তাই রাজ্যের বাবার সন্মান রাখতে পাবলিকলি আর বাকি কিছু বলছি না আমি। তবে আমার ওপর তার আর তার পরিবারের কোনো অসুস্থ আচরণ বা হার্মফুল কিছু করার চেষ্টা করলে, আমি কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবো। আপনারা নিশ্চয়ই আমার মানসিক অবস্থা বুঝতে পারবেন আশা করছি। আমাকে একটু সময় দিন। শারীরিক ভাবেও আমি বিধ্বস্ত। রাজ্য তার বাবা-মাকে একসঙ্গে নিয়ে বড় হতে পারল না। এর থেকে কষ্টের আর কি হতে পারে আমার কাছে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১৭ অক্টোবর গোপনে বিয়ে করেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা পরীমণি ও অভিনেতা শরিফুল রাজ। মাত্র সাতদিনের পরিচয়ে তারা বিয়ে করেছিলেন। চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি সেই খবর প্রকাশ্যে আনেন তারা। একইদিন সন্তানধারণের বার্তাটিও দেন এ দম্পতি। এরপর ২২ জানুয়ারি পারিবারিক আয়োজনে বিয়ে সারেন। গত ১০ আগস্ট তাদের ঘর আলো করে এসেছে পুত্রসন্তান-শাহীম মুহাম্মদ রাজ্য।