ঢাকা ১২:৪৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রাজারহাটে চাকিরপশার বিল পরিদর্শন করেছেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের পরিচালক

রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৭:৪২:৪৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪
  • / ৪৭৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

রবিবার রাজারহাটের ঐতিহ্যবাহী চাকিরপশার বিল পরিদর্শন করেছেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের পরিচালক মোঃ দেলোয়ার হোসেন।

জানা গেছে, উপজেলার ইটাকুড়ি নামক নিম্নাঞ্চল থেকে উৎপন্ন হয়ে বিলটি ভাটির অংশে বুড়িতিস্তা নামে পরিচিত। নব্বইয়ের দশকে চাকিরপশার বিলের বিভিন্ন অংশে দখলদাররা আড়াআড়ি ভাবে সড়ক তৈরী করায় বিলের স্বাভাবিক প্রবাহ বন্ধ হয়ে যায়।

এছাড়া বিলের বিভিন্ন অংশে তৈরী করা হয় পুকুর। অবশিষ্ঠ ১৪১ একর জমি বদ্ধ জলাশয় হিসেবে লিজ দিয়ে আসছিল জেলা প্রশাসন। চাকিরপশার নদী সুরক্ষা কমিটির আন্দোলনের মুখে গত বছর লিজ বাতিল করে চাকিরপশার বিলকে উম্মুক্ত জলাশয় ঘোষণা করে জেলা প্রশাসন। এরআগে চাকিরপশার থেকে অবৈধ দখল উচ্ছেদের নির্দেশ দেয় উচ্চ আদালত। এছাড়া জেলা প্রশাসন ১২৯জন অবৈধ দখলদারের বিরুদ্ধে রেকর্ড সংশোধনের মামলা দায়ের করেন।

রবিবার চাকিরপশার বিল পরিদর্শন কালে জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের পরিচালক মোঃ দেলোয়ার হোসেন বলেন, আড়াআড়ি সড়কে সেতু নির্মাণ করে পানির প্রবাহ সঠিক রাখতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। এ সময় কুড়িগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) উত্তম কুমার রায়, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাবেরী রায়,উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) আরিফুল ইসলাম, চাকিরপশার নদী সুরক্ষা কমিটির আহবায়ক খন্দকার আরিফ উপস্থিত ছিলেন।

 

বাখ//আর

নিউজটি শেয়ার করুন

রাজারহাটে চাকিরপশার বিল পরিদর্শন করেছেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের পরিচালক

আপডেট সময় : ০৭:৪২:৪৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪

রবিবার রাজারহাটের ঐতিহ্যবাহী চাকিরপশার বিল পরিদর্শন করেছেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের পরিচালক মোঃ দেলোয়ার হোসেন।

জানা গেছে, উপজেলার ইটাকুড়ি নামক নিম্নাঞ্চল থেকে উৎপন্ন হয়ে বিলটি ভাটির অংশে বুড়িতিস্তা নামে পরিচিত। নব্বইয়ের দশকে চাকিরপশার বিলের বিভিন্ন অংশে দখলদাররা আড়াআড়ি ভাবে সড়ক তৈরী করায় বিলের স্বাভাবিক প্রবাহ বন্ধ হয়ে যায়।

এছাড়া বিলের বিভিন্ন অংশে তৈরী করা হয় পুকুর। অবশিষ্ঠ ১৪১ একর জমি বদ্ধ জলাশয় হিসেবে লিজ দিয়ে আসছিল জেলা প্রশাসন। চাকিরপশার নদী সুরক্ষা কমিটির আন্দোলনের মুখে গত বছর লিজ বাতিল করে চাকিরপশার বিলকে উম্মুক্ত জলাশয় ঘোষণা করে জেলা প্রশাসন। এরআগে চাকিরপশার থেকে অবৈধ দখল উচ্ছেদের নির্দেশ দেয় উচ্চ আদালত। এছাড়া জেলা প্রশাসন ১২৯জন অবৈধ দখলদারের বিরুদ্ধে রেকর্ড সংশোধনের মামলা দায়ের করেন।

রবিবার চাকিরপশার বিল পরিদর্শন কালে জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের পরিচালক মোঃ দেলোয়ার হোসেন বলেন, আড়াআড়ি সড়কে সেতু নির্মাণ করে পানির প্রবাহ সঠিক রাখতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। এ সময় কুড়িগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) উত্তম কুমার রায়, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাবেরী রায়,উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) আরিফুল ইসলাম, চাকিরপশার নদী সুরক্ষা কমিটির আহবায়ক খন্দকার আরিফ উপস্থিত ছিলেন।

 

বাখ//আর