ঢাকা ১১:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচনে বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল চেয়ারম্যান নির্বাচিত 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:১৮:৫৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ অক্টোবর ২০২২
  • / ৪৬৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
রাজশাহী ব্যুরোঃ
রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল। তিনি কাপ-পিরিচ প্রতীকে ৫৯৮ ভোট পেয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আখতারুজ্জামান আকতার মোটরসাইকেল প্রতীকে পেয়েছেন ৫৬৬ ভোট।
রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মীর ইকবাল ৩২ ভোটের ব্যবধানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আখতারুজ্জামান আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী ছিলেন।
নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল জানান, নির্বাচনে মোট ভোটার ছিলেন এক হাজার ১৮৫ জন। এর মধ্যে এক হাজার ১৭৫ জন ভোট দিয়েছেন। ভোট পড়ার হার ৯৯ দশমিক ১৬ শতাংশ।
অন্য দুই স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার ইকবাল বাদল তালগাছ প্রতীকে ৭ এবং আফজাল হোসেন আনারস প্রতীকে ৪ ভোট পেয়েছেন।
এর আগে সোমবার সকাল ৯টা থেকে একটানা ভোট গ্রহণ করা হয় দুপুর ২টা পর্যন্ত। জেলার ৯টি উপজেলার ৯টি ভোটকেন্দ্রে ইভিএমে ভোটগ্রহণ করা হয়। উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটাররা ভোট দেন। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তায় প্রতিটি কেন্দ্রে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা বসানো ছিল।
জেলা পরিষদের নয়টি সাধারণ ওয়ার্ডের জন্য ৩১ জন এবং তিনটি সংরক্ষিত নারী আসনের জন্য ১৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচনে বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল চেয়ারম্যান নির্বাচিত 

আপডেট সময় : ০৬:১৮:৫৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ অক্টোবর ২০২২
রাজশাহী ব্যুরোঃ
রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল। তিনি কাপ-পিরিচ প্রতীকে ৫৯৮ ভোট পেয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আখতারুজ্জামান আকতার মোটরসাইকেল প্রতীকে পেয়েছেন ৫৬৬ ভোট।
রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মীর ইকবাল ৩২ ভোটের ব্যবধানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আখতারুজ্জামান আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী ছিলেন।
নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল জানান, নির্বাচনে মোট ভোটার ছিলেন এক হাজার ১৮৫ জন। এর মধ্যে এক হাজার ১৭৫ জন ভোট দিয়েছেন। ভোট পড়ার হার ৯৯ দশমিক ১৬ শতাংশ।
অন্য দুই স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার ইকবাল বাদল তালগাছ প্রতীকে ৭ এবং আফজাল হোসেন আনারস প্রতীকে ৪ ভোট পেয়েছেন।
এর আগে সোমবার সকাল ৯টা থেকে একটানা ভোট গ্রহণ করা হয় দুপুর ২টা পর্যন্ত। জেলার ৯টি উপজেলার ৯টি ভোটকেন্দ্রে ইভিএমে ভোটগ্রহণ করা হয়। উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটাররা ভোট দেন। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তায় প্রতিটি কেন্দ্রে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা বসানো ছিল।
জেলা পরিষদের নয়টি সাধারণ ওয়ার্ডের জন্য ৩১ জন এবং তিনটি সংরক্ষিত নারী আসনের জন্য ১৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।