ঢাকা ০৮:২৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রাজশাহীতে ১ মাসে ১৭ নারী শিশু নির্যাতনের শিকার: লফসের উদ্বেগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:০০:৩৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • / ৫০১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা খবর বিডি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

রাজশাহী প্রতিনিধি :  উন্নয়ন সংস্থা লেডিস অর্গানাইজেশন ফর সোসাল ওয়েলফেয়ার (লফস) রাজশাহী জেলায় দীর্ঘদিন যাবৎ নারী ও শিশুর উন্নয়নে কাজ করছে। মানবাধিকার সংগঠন হিসেবে লফস সংস্থার ডকুমেন্টেশন সেল থেকে রাজশাহীর প্রচারিত দৈনিক পত্রিকার সংবাদের ভিত্তিতে নিয়মিত নারী ও শিশু নির্যাতনের পরিস্থিতি প্রকাশ করে।লফস মনে করে অত্র অঞ্চলে নারী ও শিশু নির্যাতন পরিস্থিতি বিভিন্ন মাত্রায় অবনতি ঘটছে।

যৌতুক ও পরকীয়ার কারনে অধিকাংশ নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে। অনেক ক্ষেত্রে বিদেশি কিছু টিভি সিরিয়াল পরকিয়াকে উৎসাহিত করছে। এছাড়া পারিবারিক কলহ, অর্থনৈতিক ও প্রেম ঘটিত কারনে হত্যা-আত্মহত্যা ও অমানবিক নির্যাতনের মতো ঘটনা ঘটছে। বিষয়গুলো কারও জন্য সুখকর নয়।

সেপ্টেম্বর মাসে অমানবিক কিছূ ঘটে যাওয়া ঘটনার চিত্র-বাঘা উপজেলার আড়ানি পৌরসভার নুরনগর গ্রামের নজরুল ইসলামের ২য় স্ত্রী পাপিয়া বেগম (৩২) নিজ বাড়িতে তীরের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা, বিয়ের দাবিতে তানোর উপজেলার চান্দুড়িয়া গ্রামের জুয়েল রানার বাসায় এসে অসুস্থ হয়ে পড়ে কলেজ ছাত্রী, পুঠিয়া পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে চাকরি ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিক বার ধর্ষণ করার অভিযোগ এক নারীর, পবা উপজেলায় যৌতুক দিতে না পারায় ৪ বছরের মেয়ের সামনেই স্ত্রী সোনিয়া খাতুন (২২) কে শ্বসরোধ করে হত্যা করে স্বামী, নগরীতে রিয়া খাতুন (২১) কে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ, নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানাধীন রায়পাড়া বালুরঘাট সংলগ্ন এলাকায় প্রেমিক সহ ৩ জন মিলে প্রেমিকা (২২) কে ধর্ষণের চেষ্টা, বাগমারা উপজেলার সংরক্ষিত নারী আসনের এক পার্থী গণ ধর্ষণের শিকার, নগরীতে রিতা বেগম (৩৫) নামে এক গৃহবধূ নিজ শয়ন কক্ষে সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা, মোহনপুর উপজেলার পোল্লাকুড়ি গ্রামের শিলা প্রামানিক (৩০) নামে এক নার্স কে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা, পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর ইউনিয়নের রঘুরামপুর গ্রামে এক গৃহবধূ কে কু প্রস্তাব দেওয়ায় রাজি না হওয়ায় জোর পূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা, গোদাগাড়ীতে কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা এস.এস.সি পরীক্ষার্থী এক যুবককে তুলে নিয়ে যেয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় সিগেরেটের ছ্যাকা দিয়ে নির্যাতন।

এদিকে, গোদাগাড়ী উপজেলায় সামিউল আলম (১৬) নামে এক স্কুল ছাত্র নির্যাতনের শিকার, দুর্গাপুরে কলেজ ছাত্রের ধর্ষণের শিকার হয় এক স্কুল ছাত্রী, গোদাগাড়ীতে এক স্কুল শিক্ষক রফিকুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ, পুঠিয়ায় এস.এস.সি পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরার সময় মোহনা খাতুন নামে এক ছাত্রী কে অপহরণের চেষ্টা করা হয়।

ঘটনাগুলোর আলোকে লফস এর নির্বাহী পরিচালক শাহানাজ পারভীন বলেন, সংবাদ পত্রে প্রকাশিত ঘটনার বাইরেও অনেক ঘটনা ঘটে যা প্রকাশিত হয় না বা কোন তথ্য জানা যায় না এমন বাস্তবতায় রাজশাহীতে নারী ও শিশু নির্যাতনের প্রকাশিত তথ্য দিন দিন হতাশাজনক হচ্ছে। রাজশাহী অঞ্চলে নারী- শিশু নির্যাতন সহ সার্বিক ঘটনাগুলোর সুষ্ঠ তদন্ত ও দায়ীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

তিনি বলেন,অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত করা না গেলে ক্রমশই অপরাধীরা উৎসাহিত হবে এবং অপরাধের মাত্রা বৃদ্ধি পাবে। লফস সকল নারী-শিশু নির্যাতন ঘটনাগুলোর সুষ্ঠ তদন্ত স্বাপেক্ষে অপরাধীর কঠোর শাস্তির দাবী জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

রাজশাহীতে ১ মাসে ১৭ নারী শিশু নির্যাতনের শিকার: লফসের উদ্বেগ

আপডেট সময় : ০৫:০০:৩৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২

রাজশাহী প্রতিনিধি :  উন্নয়ন সংস্থা লেডিস অর্গানাইজেশন ফর সোসাল ওয়েলফেয়ার (লফস) রাজশাহী জেলায় দীর্ঘদিন যাবৎ নারী ও শিশুর উন্নয়নে কাজ করছে। মানবাধিকার সংগঠন হিসেবে লফস সংস্থার ডকুমেন্টেশন সেল থেকে রাজশাহীর প্রচারিত দৈনিক পত্রিকার সংবাদের ভিত্তিতে নিয়মিত নারী ও শিশু নির্যাতনের পরিস্থিতি প্রকাশ করে।লফস মনে করে অত্র অঞ্চলে নারী ও শিশু নির্যাতন পরিস্থিতি বিভিন্ন মাত্রায় অবনতি ঘটছে।

যৌতুক ও পরকীয়ার কারনে অধিকাংশ নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে। অনেক ক্ষেত্রে বিদেশি কিছু টিভি সিরিয়াল পরকিয়াকে উৎসাহিত করছে। এছাড়া পারিবারিক কলহ, অর্থনৈতিক ও প্রেম ঘটিত কারনে হত্যা-আত্মহত্যা ও অমানবিক নির্যাতনের মতো ঘটনা ঘটছে। বিষয়গুলো কারও জন্য সুখকর নয়।

সেপ্টেম্বর মাসে অমানবিক কিছূ ঘটে যাওয়া ঘটনার চিত্র-বাঘা উপজেলার আড়ানি পৌরসভার নুরনগর গ্রামের নজরুল ইসলামের ২য় স্ত্রী পাপিয়া বেগম (৩২) নিজ বাড়িতে তীরের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা, বিয়ের দাবিতে তানোর উপজেলার চান্দুড়িয়া গ্রামের জুয়েল রানার বাসায় এসে অসুস্থ হয়ে পড়ে কলেজ ছাত্রী, পুঠিয়া পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে চাকরি ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিক বার ধর্ষণ করার অভিযোগ এক নারীর, পবা উপজেলায় যৌতুক দিতে না পারায় ৪ বছরের মেয়ের সামনেই স্ত্রী সোনিয়া খাতুন (২২) কে শ্বসরোধ করে হত্যা করে স্বামী, নগরীতে রিয়া খাতুন (২১) কে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ, নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানাধীন রায়পাড়া বালুরঘাট সংলগ্ন এলাকায় প্রেমিক সহ ৩ জন মিলে প্রেমিকা (২২) কে ধর্ষণের চেষ্টা, বাগমারা উপজেলার সংরক্ষিত নারী আসনের এক পার্থী গণ ধর্ষণের শিকার, নগরীতে রিতা বেগম (৩৫) নামে এক গৃহবধূ নিজ শয়ন কক্ষে সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা, মোহনপুর উপজেলার পোল্লাকুড়ি গ্রামের শিলা প্রামানিক (৩০) নামে এক নার্স কে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা, পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর ইউনিয়নের রঘুরামপুর গ্রামে এক গৃহবধূ কে কু প্রস্তাব দেওয়ায় রাজি না হওয়ায় জোর পূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা, গোদাগাড়ীতে কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা এস.এস.সি পরীক্ষার্থী এক যুবককে তুলে নিয়ে যেয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় সিগেরেটের ছ্যাকা দিয়ে নির্যাতন।

এদিকে, গোদাগাড়ী উপজেলায় সামিউল আলম (১৬) নামে এক স্কুল ছাত্র নির্যাতনের শিকার, দুর্গাপুরে কলেজ ছাত্রের ধর্ষণের শিকার হয় এক স্কুল ছাত্রী, গোদাগাড়ীতে এক স্কুল শিক্ষক রফিকুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ, পুঠিয়ায় এস.এস.সি পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরার সময় মোহনা খাতুন নামে এক ছাত্রী কে অপহরণের চেষ্টা করা হয়।

ঘটনাগুলোর আলোকে লফস এর নির্বাহী পরিচালক শাহানাজ পারভীন বলেন, সংবাদ পত্রে প্রকাশিত ঘটনার বাইরেও অনেক ঘটনা ঘটে যা প্রকাশিত হয় না বা কোন তথ্য জানা যায় না এমন বাস্তবতায় রাজশাহীতে নারী ও শিশু নির্যাতনের প্রকাশিত তথ্য দিন দিন হতাশাজনক হচ্ছে। রাজশাহী অঞ্চলে নারী- শিশু নির্যাতন সহ সার্বিক ঘটনাগুলোর সুষ্ঠ তদন্ত ও দায়ীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

তিনি বলেন,অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত করা না গেলে ক্রমশই অপরাধীরা উৎসাহিত হবে এবং অপরাধের মাত্রা বৃদ্ধি পাবে। লফস সকল নারী-শিশু নির্যাতন ঘটনাগুলোর সুষ্ঠ তদন্ত স্বাপেক্ষে অপরাধীর কঠোর শাস্তির দাবী জানান।